ডিসেম্বরে বাংলাদেশে মেয়েদের অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ

ডিসেম্বরে বাংলাদেশে মেয়েদের অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ

প্রথমবারের মত আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি) সংযোজন করেছে মেয়েদের অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ। যার প্রথম আসরের আয়োজক দেশ হিসেবে ঘোষিত হয় বাংলাদেশের নাম। চলতি বছরের জানুয়ারিতে মাঠে গড়ানোর কথা থাকলেও করোনা প্রভাবে অন্য অনেক টুর্নামেন্টের মত স্থগিত হয় বিশ্বকাপটি। তবে চলতি বছরের ডিসেম্বরেই বিশ্বকাপটি আয়োজন করতে যাচ্ছে বাংলাদেশ।

মেয়েদের অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের পুনঃনির্ধারিত সূচির বিষয়টি গণমাধ্যমকে আজ (৭ জানুয়ারি) নিশ্চিত করেছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবির) নারী বিভাগের চেয়ারম্যান শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল।

মিরপুরে তিনি বলেন, ‘আপনারা জানেন যে আমরা (মেয়েদের অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের) আয়োজক হতে যাচ্ছি যেটা গত বছর হওয়ার কথা ছিল। করোনা মহামারীর কারণে হয়নি। এই বছর শেষের দিকে ডিসেম্বরে সেটা বাংলাদেশে অনুষ্ঠিত হবে।’

মেয়েদের অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের জন্য দল গুছাতে শুরু করেছে বিসিবিও। ইতোমধ্যে সারাদেশ থেকে প্রতিভা অন্বেষণ কার্যক্রমের মাধ্যমে বাছাই প্রক্রিয়া শুরুও হয়েছে। নারীদের বয়সভিত্তিক ক্রিকেটের পাইপলাইন শক্ত করতে পরিকল্পনার একটি অংশ এটি।

এ প্রসঙ্গে নারী বিভাগের চেয়ারম্যান যোগ করেন, ‘আমাদের প্রস্তুতির একটি অংশ হিসেবে আমরা ইতোমধ্যে সারাদেশে ক্রিকেট বোর্ডের বিভাগীয় কোচদের মাধ্যমে বাছাই প্রক্রিয়া শুরু করেছি। এখন আমরা করবো আমাদের গেম ডেভলপমেন্টের সহায়তায় এবং নারী বিভাগ যৌথভাবে বিভিন্ন বিভাগে পুরো দেশে জেলাভিত্তিক আমরা অনুর্ধ্ব ১৭ দলগুলো প্রস্তুত করতে চাই।’

‘সেই জায়গা থেকে বাছাই করে আমাদের জাতীয় দলও গড়োবো। এই প্রক্রিয়ার মধ্যে দুটো কাজ হচ্ছে। প্রতিটি জেলায় মেয়েদের একটা দল হয়ে যাচ্ছে। বিভাগেও হবে। জাতীয় ভাবেও আমরা আরেকটি দল তৈরি করবো। ভবিষ্যতে তাদেরকে নিয়ে আমাদের দীর্ঘমেয়াদী কিছু পরিকল্পনা রয়েছে। সেই পরিকল্পনা অনুযায়ী দেখা যাবে এই দলটাই জাতীয় পর্যায়ে একটা সময় আমাদের প্রতিনিধিত্ব করবে।’

কিভাবে হবে বাছাই প্রক্রিয়া তা জানাতে গিয়ে নাদেল আরও বলেন, ‘স্বাস্থ্যবিধির দিকে আমরা অবশ্যই গুরুত্ব দিবো। এ বিষয়ে কোন ধরণের শৈথল্য বা কার্পণ্য থাকবেনা। কিন্তু আমাদের এই খেলোয়াড়দের বাছাই করতে ইতোমধ্যেই বিভিন্ন বিভাগ থেকে ভিডিও ফুটেজ সংগ্রহ করছি। সেখান থেকে বাছাই করে আমাদের পরবর্তী কাজ শুরু করবো।’

‘ভিডিও ফুটেজ পাঠানোর জন্য আমরা তাদেরকে বলেছি। আমরা ৭ থেকে ১৭ জানুয়ারির মধ্যেই ভিডিও ফুটেজগুলো সংগ্রহ করবো। এবং এই জায়গা থেকে আমাদের বাছাই প্রক্রিয়াটা শুরু করবো।’

‘এই জায়গায় আমরা একটা বয়সসীমা নির্ধারন করে দিয়েছি। আপনারা জানেন আইসিসিতে ১৪ বছরের নিচে কারো অংশগ্রহণ করার সুযোগ নেই এবং আমরা সেটাও করছিনা। আমরা ১লা সেপ্টেম্বর ২০০৩ থেকে ৩১ আগস্ট ২০০৬ এই সময়সীমায় যারা জন্মগ্রহণ করেছেন তারাই আমাদের এই প্রক্রিয়ায় অংশগ্রহণ করবে এবং এই ভিডিও ফুটেজগুলো তারা নিজস্ব উদ্যোগে আমাদের কাছে পাঠাবে।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

সিডনিতে বৃষ্টিবিঘ্নিত ১ম দিন, ভাল অবস্থানে স্বাগতিকরা

Read Next

জন লুইসের জন্য সরকারের কাছে বিসিবির আবেদন

Total
3
Share