বিসিসিআইয়ের কোষাগারে সাড়ে ১৪ হাজার কোটি রুপি

বিসিসিআইয়ের কোষাগারে সাড়ে ১৪ হাজার কোটি রুপি
Vinkmag ad

আর্থিক বিবরণী অনুসারে ২০১৮-১৯ অর্থ বছর শেষে বিশ্বের সবচেয়ে ধনী ক্রিকেট বোর্ড ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের কোষাগারে আছে প্রায় সাড়ে ১৪ হাজার কোটি রুপি। যেখানে আর্থিক বছর শেষে যোগ হয়েছে আরও আড়াই হাজার কোটি রুপি। বিসিসিআইয়ের (বোর্ড অফ কন্ট্রোল ফর ক্রিকেট ইন ইন্ডিয়া) আয়ের বড় একটা অংশ এসেছে আইপিএল থেকে।

ভারতীয় সংবাদ সংস্থা আইএনএসের তথ্য মতে ২০১৮ সালের আইপিএল থেকে বিসিসিআইয়ের আয় ৪ হাজার ১৭ কোটি রুপি। যেখানে ২০১৯-২০ মৌসুমের ২৪০৭ কোটি রুপি ব্যালেন্স শীট অনুসারে এখনো অন্তর্ভূক্ত হয়নি।

এদিকে বিসিসিআই আয়কর বিভাগ, পূর্বের আইপিএল কোচি ও ডেকান চার্জার্স ফ্র্যাঞ্চাইজি, সাহারা, নিও স্পোর্টস এবং ওয়ার্ল্ড স্পোর্টস গ্রুপের সাথে বেশ কিছু মামলায় জড়িয়েছে। ফলে এসব মামলার রায় আসলে বেশ বড় পরিমাণের অর্থ হারাতে হবে বলেও ধারণা করা হচ্ছে।

২০১৮-১৯ অর্থ বছরে বিসিসিআইয়ের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ আয়ের উৎস ভারতীয় দলের মিডিয়া সত্ব। যেখান থেকে তাদের আয় ৮৮২ কোটি রুপি। একই বছর বিসিসিআয়ের ব্যয় হয়েছে ১৫৯২ কোটি রুপি।

২০১৪-১৫ আর্থিক বছর শেষে বিসিসিআইয়ের কোষাগারে ছিল প্রায় সাড়ে ৫ হাজার কোটি রুপি। ২০১৫-১৬ আর্থিক বছর শেষে যা দাঁড়ায় প্রায় ৮ হাজার কোটি রুপিতে। ২০১৬-১৭ আর্থিক বছরে বেড়ে প্রায় সাড়ে ৮ হাজার কোটি রুপি এবং ২০১৭-১৮ আর্থিক বছরে যার মূল ছিল প্রায় ১২ হাজার কোটি রুপি।

আইপিএলের বাইরে আয়ের বড় একটা অংশ আসে পুরুষ দলের বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সফর ও টুর্নামেন্ট ভারতের মাটিতে আয়োজন ও আইসিসি (ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিল) এবং এসিসি (এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিল) থেকে।

বিসিসিআইয়ের মোট ৭ টি স্পন্সর রয়েছে। স্পন্সরগুলো হল স্টার স্পোর্টস (ব্রডকাস্টার), বাইজুস (টিম স্পন্সর), পেটিএম (টাইটেল স্পন্সর), ড্রিমইলেভেন, হুন্দাই ও আম্বুজা সিমেন্ট (পার্টনার) এবং কিট স্পন্সর (এমপিএল স্পোর্টস)।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

সালমা-জাহানারাদের নিয়ে বিসিবির যত পরিকল্পনা

Read Next

শ্রীলঙ্কাকে হোয়াইটওয়াশ করল দক্ষিণ আফ্রিকা

Total
2
Share