দ্বিধাদ্বন্দ্বে ভুগছেন মাশরাফি, ধারণা ছিল না বিসিবি সভাপতির

মাশরাফি পাপন
Vinkmag ad

মাশরাফি বিন মর্তুজার বয়স এখন ৩৭। ইনজুরি প্রবণ মাশরাফি বাংলাদেশের ওয়ানডে দলের নেতৃত্ব ছেড়েছেন, তবে খেলাটা এখনো ছাড়েননি। ঠিক কবে ছাড়বেন সেসম্পর্কে নেই সুস্পষ্ট কোন ধারণা। বিসিবি সভাপতি মনে করেন মাশরাফি নিজেই আছেন দ্বিধাদ্বন্দ্বে।

২০১৯ বিশ্বকাপে বাংলাদেশের অধিনায়ক থাকা মাশরাফি নিজের সেরাটা দিতে পারেননি। টুর্নামেন্টে কেবল ১ টি উইকেট পান তিনি। পাকিস্তানের বিপক্ষে শেষ ম্যাচে খেলতে চাননি তিনি। পরে অবশ্য ঠিকই খেলেন তিনি।

একাত্তর টিভিকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন বলেন, ‘লুকানোর কোন কারণই নেই। মাশরাফি ওয়ার্ল্ড কাপের সময় আমাকে নিজে ফোন করে। ফোন করে আমাকে বলে আমি নেক্সট ম্যাচ (পাকিস্তানের বিপক্ষে) খেলব না। আমার ফর্ম ভাল যাচ্ছে না, আমি খেলব না। আমি বললাম, খেলবা না এটা কাকে বলেছ? বলল আমি অলরেডি বলে দিয়েছি কোচকে, এবং সাকিবকে বলে দিয়েছি ও ক্যাপ্টেন হবে।’

‘এরপরে আমি একবার চিন্তা করলাম যাই একবার, দেখে আসি। রাত্রে বেলা গেলাম হোটেলে দেখলাম সাকিব সব টিম নিয়ে বসা। সবাই বসা, সাকিব বলল আমি অলরেডি ব্রিফ করে দিয়েছি। আজ প্র্যাকটিসেও মাশরাফি আসেনি, আমার ওপর দায়িত্ব দিয়েছে, আমিই করছি। পরদিন আমি যখন মাঠে খেলা দেখতে গেলাম, তখন দেখি মাশরাফি মাঠে।’

কেনো সেদিন মাশরাফি খেলবেন না বলেও পরে খেললেন তা বোর্ড সভাপতির কাছে এখনো এক রহস্য। অনেকদিন ধরে মাশরাফির অবসর ইস্যুতে অনেক কথা শুনলেও সেটা নিয়ে বিসিবি বসের সঙ্গে কোন আলাপ হয়নি তার।

‘আসলে জিনিসটা, ঐ আমাকে বলল খেলবে না, পরে কেন খেলল আমি জানিনা। এটা আমার কাছে এখনো এক রহস্য। ওকে তো আমরা বলি নাই যে তুমি খেলো না। ও খেলবে নাকি রিটায়ার করবে এমনটা অনেকদিন ধরেই শুনছি। কোথায় করবে এটা হল কথা। আমার সাথে এটা নিয়ে কোন কথা হয়নি। শুনেছি অনেকে নাকি তাকে প্রপোজ করেছিল যে লর্ডস হতে পারে সেরা জায়গা।’

‘আসলে ও নিজেই দ্বিধাদ্বন্দ্বে ভুগছে। তখনো ভুগেছে, এখনো ভুগছে। যেটা আমার ধারণা ছিল না। যতদিন আমাদের সাথে ক্যাপ্টেন হিসাবে ছিল ওর ডিসিশন মেকিং ছিল ক্লিন এন্ড ক্লিয়ার।’

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

উইজডেনের টিনেজ রায়েট টেস্ট একাদশে মুশফিক

Read Next

‘কাগজে-কলমে লেখা ১৭-১৮, আসল বয়স ২৭-২৮’

Total
6
Share