গিল-সিরাজদের তৈরিতে আইপিএলের বড় অবদানঃ শাস্ত্রী

গিল-সিরাজদের তৈরিতে আইপিএলের বড় অবদানঃ শাস্ত্রী
Vinkmag ad

শুবমান গিল এবং মোহাম্মদ সিরাজ, এই দুই ক্রিকেটার নিজেদের অভিষেক ম্যাচে যেভাবে খেলেছে তাতে টেস্ট ক্রিকেটে নিজেদের আগমনবার্তা জানান দিয়েছে। তাঁদের এমন উজ্জ্বল পারফরম্যান্স দেখে কোচ রবি শাস্ত্রী মনে করছেন, আইপিএলের অভিজ্ঞতার জন্য এমন আত্মবিশ্বাস দেখাতে পেরেছেন গিল ও সিরাজ।

শুবমান গিলের প্রথম শ্রেণির রেকর্ড প্রশংসনীয়। কিন্তু অস্ট্রেলিয়ার মাঠে টেস্টে ওপেন করা এবং রান করা অনেক বেশি কঠিন কাজ। তবে শুভমান দেখিয়ে দিলেন এই পর্যায়ের চ্যালেঞ্জ নিতেও তিনি যে তৈরি। নিজের প্রথম টেস্টের দুটো ইনিংসে নিজের যোগ্যতা প্রমাণ করেছেন। বক্সিং-ডে টেস্টের মত বড় মঞ্চে ওপেন করতে নেমে প্রথম ইনিংসে ৪৫ এবং দ্বিতীয় ইনিংসে অপরাজিত থেকে দলকে জিতিয়েছেন, করেছেন ৩৫ রান।

অপরদিকে মোহাম্মদ সিরাজ এশিয়ার বাইরের কন্ডিশনে দারুণ বল করেছেন নিজের অভিষেক টেস্টেই। একজন ফাস্ট বোলার হিসেবে যে সাহস থাকা দরকার সেটা দেখিয়েছেন। বিপক্ষ ব্যাটসম্যানদের চাপে রেখে, হাত খোলার জায়গা দেয়নি। সিরাজ দুই ইনিংস মিলিয়ে ৩৬.৩ ওভারে ৭৭ রান দিয়ে নেন ৫ উইকেট।

অভিষেক টেস্টে ব্যাটে নজর কেড়েছেন শুবমান গিল, বল হাতে মোহাম্মদ সিরাজ। হেড কোচ শাস্ত্রীর এই দুই’য়ে মুগ্ধ। বললেন,

‘দু’জন অভিষেক টেস্টে নামলেও ওদের পরিণতবোধ ও শৃঙ্খলা দারুণ লেগেছে। শুবমানের ব্যাটিংয়ে যে বিচক্ষণতা ছিল, সেটা দুর্দান্ত। যে মানসিকতা ও দেখিয়েছে তাঁর প্রশংসা করতেই হবে। শুবমান প্রথম টেস্ট খেলতে নামলেও ওকে খুব শান্ত দেখিয়েছে। সিরাজের নিয়ন্ত্রণ ছিল অসাধারণ। প্রথম টেস্ট খেলতে নেমে কেই এমন পরিণত ক্রিকেট উপহার দিচ্ছে ভাবাই যায় না।’

অভিষেককারী ক্রিকেটারদের এমন আত্মবিশ্বাস দেখানোর কারণ হিসেবে শাস্ত্রী বলেন,

‘গত তির-চার বছর ধরে এই ধরনের ক্রিকেটটাই আমরা খেলে আসছি। এর জন্য আইপিএলের কৃতিত্ব রয়েছে। তারা আন্তর্জাতিক ক্রিকেটারদের সঙ্গে ড্রেসিং রুম ভাগাভাগি করে, কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে লড়লে আত্মবিশ্বাস নিয়ে যাবতীয় জটিলতা কেটে যায়। মাঠেই সেটা দেখতে পাওয়া যাচ্ছে।’

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

টি-টেনের সঙ্গে যুক্ত হলো ড্রিম ইলেভেন

Read Next

‘পরিশ্রম ও ডেডিকেশন দিয়ে অনেককে ভুল প্রমাণ করেছ’

Total
11
Share