ভারতীয় দলে দ্বিমুখী আচরণ, ক্ষোভ উগরে দিলেন গাভাস্কার

ভারতীয় দলে দ্বিমুখী আচরণ, ক্ষোভ উগরে দিলেন গাভাস্কার
Vinkmag ad

ভারতের সাবেক অধিনায়ক, সর্বকালের অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যান সুনীল গাভাস্কার মনে করেন ভিরাট কোহলির নেতৃত্বাধীন ভারতীয় দলে পক্ষপাতমূলক আচরণ করা হয়। দলের মধ্যে একেক জনের সঙ্গে একেক রকম আচরণের উদাহরণ হিসাবে রবিচন্দ্রন অশ্বিন ও থাঙ্গারাসু নটরাজনকে সামনে আনেন গাভাস্কার।

অ্যাডিলেডে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে লজ্জাজনক হারের পর স্পোর্টস্টারে লেখা কলামে গাভাস্কার শুরুতে অশ্বিনের উদাহরণ টানেন।

তিনি বলেন, ‘লম্বা সময় ধরে অশ্বিন ভুগছেন, শুধু তার বোলিং অ্যাবিলিটির জন্য নয়। বরং তার অবিচল নীতির জন্য, মনে যা আসে তা বলে ফেলার জন্য। মিটিংয়ে যেখানে অন্যরা একমত না হলেও কেবল মাথা নাড়ে।’

‘৩৫০ এর বেশি উইকেট (৭২ টেস্টে ৩৭০) পাওয়া বোলারকে যেকোন দেশ স্বাগত জানাবে, সাথে আবার ৪ টি টেস্ট সেঞ্চুরিও আছে তার। যাহোক, যদি অশ্বিন কোন একটা টেস্টে উইকেট না পায় তাহলে তাকে দলের বাইরে রাখা হয়। এটা অবশ্য দলের প্রতিষ্ঠিত ব্যাটসম্যানদের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য হয়না। তারা আরো একাধিক সুযোগ পায়, তবে অশ্বিনের জন্য নিয়ম আলাদা।’

 

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Sportstar (@sportstarweb)

অ্যাডিলেডে ভারত দ্বিতীয় ইনিংসে অলআউট হয় মাত্র ৩৬ রানে, যা টেস্ট ইতিহাসে তাদের সর্বনিম্ন দলীয় সংগ্রহ। ১৯৭৪ সালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ৪২ রানে অলআউট হয়েছিল ভারত, সেই টেস্টে খেলেছিলেন গাভাস্কার। অ্যাডিলেড টেস্টের আগে সেটিই ছিল ভারতের সর্বনিম্ন রানের রেকর্ড।

আগামীকাল থেকে শুরু হতে যাওয়া দ্বিতীয় টেস্ট থেকে ভারতকে নেতৃত্ব দিবেন আজিঙ্কা রাহানে। প্যাটার্নিটি লিভ আগে থেকে বোর্ড থেকে মঞ্জুর করে রেখেছিলেন ভিরাট কোহলি।

গাভাস্কার মনে করেন কোহলিকে অস্ট্রেলিয়া সফরের মাঝপথে দেশে ফিরতে দেওয়া থাঙ্গারাসু নটরাজনের জন্য আনফেয়ার। নভেম্বরে সন্তানের জনক হন নটরাজন। তবে সংযুক্ত আরব আমিরাতে আইপিএল খেলে নটরাজনকে সরাসরি দলের সঙ্গে যেতে হয় অস্ট্রেলিয়ায়।

গাভাস্কার বলেন, ‘বাহাতি ইয়র্কার স্পেশালিস্ট থাঙ্গারাসু নটরাজন, যে কিনা টি-টোয়েন্টি সিরিজে দারুণ পারফর্ম করে, হার্দিক পান্ডিয়া যাকে সিরিজসেরার পুরস্কার অফার করেছিল আইপিএলের প্লেঅফ চলাকালীন প্রথমবারের মত বাবা হয়েছিল। তাকে সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকে সরাসরি অস্ট্রেলিয়ায় নেওয়া হয়। তার দারুণ পারফরম্যান্স দেখার পর তাকে টেস্ট সিরিজে নেট বোলার হিসাবে রাখা হয়। ভাবুন, এক ফরম্যাটে একজন ম্যাচ উইনার, অন্য ফরম্যাটে তাকে নেট বোলার হিসাবে ব্যবহার করা হচ্ছে!’

জানুয়ারির তৃতীয় সপ্তাহে সে বাড়ি যেয়ে নিজের কন্যা সন্তানকে ১ম বারের মতো দেখবে সে। অন্যদিকে দলের অধিনায়ক সফরের মাঝখানে দেশে ফিরছে প্রথম সন্তানের জন্য।’

গাভাস্কার যোগ করেন, ‘এটাই ভারতীয় ক্রিকেট, ভিন্ন ভিন্ন মানুষের জন্য ভিন্ন ভিন্ন নিয়ম। যদি আমাকে বিশ্বাস না করেন তাহলে রবিচন্দ্রন অশ্বিন ও থাঙ্গারাসু নটরাজনকে জিজ্ঞাসা করেন।’

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

পিএসএলে ক্রিকেটারদের হালনাগাদকৃত ক্যাটাগরি

Read Next

আমিরের এমন অবসর পাকিস্তানের ভাবমূর্তি নষ্ট করেছে

Total
5
Share