পন্টিংয়ের চোখে বিগ ব্যাশের অলটাইম একাদশ

পন্টিংয়ের চোখে বিগ ব্যাশের অলটাইম একাদশ
Vinkmag ad

অস্ট্রেলিয়ায় চলছে কেএফসি বিগ ব্যাশের (বিবিএল) ১০ম আসর। আগের আসরগুলোর পারফরম্যান্স বিবেচনা করে বিবিএলের সেরা একাদশ গঠন করেছেন দুইবারের বিশ্বকাপজয়ী অজি অধিনায়ক এবং ধারাভাষ্যকার রিকি পন্টিং। তার একাদশে বর্তমান আসরের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক ক্রিস লীন নেই।

বিবিএলের পারফরম্যান্স বিবেচনায় পন্টিংয়ের একাদশে কারা আছেন, চলুন জেনে নেই।

১. অ্যারন ফিঞ্চ-অধিনায়ক (মেলবোর্ন রেনেগেডস)

মেলবোর্ন রেনেগেডসে বহুদিন ধরে অধিনায়কত্ব করে আসছেন টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের ৩ নাম্বার র‍্যাংকিংধারী ও সীমিত ওভারের ক্রিকেটে অজি অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ। ৬৩ ম্যাচে ৩৮.৮৩ গড় এবং ১৩৬.৬৫ স্ট্রাইকরেটে ২০টি অর্ধশতকের সহায়তায় ২২৫২ রান করেছেন ফিঞ্চ।

২. শন মার্শ (পার্থ স্করচার্স, মেলবোর্ন রেনেগেডস)

পার্থ স্করচার্সের হয়ে দীর্ঘদিন খেললেও বর্তমানে ফিঞ্চের সহযোগী হিসেবে মেলবোর্ন রেনেগেডসে খেলছেন। খেলার ধারাবাহিকতা অনুযায়ী চমৎকার ব্যাটিং করেন এ ওপেনার। ৪৯ ম্যাচে ৪৫.৯৫ গড় এবং ১২৮.৫১ স্ট্রাইক রেটে ১৭টি অর্ধশতকের সহায়তায় ১৮৮৪ রান করেছেন মার্শ।

৩. ব্র‍্যাড হজ ( অ্যাডিলেড স্ট্রাইকার্স, মেলবোর্ন রেনেগেডস, মেলবোর্ন স্টার্স)

অভিজ্ঞ ব্র‍্যাড হজ বহুদিন ধরে বিবিএলে নিজের ব্যাটিং কারুকাজ ধরে রেখেছেন। আক্রমণাত্নক এই ব্যাটসম্যানকে ৩ নাম্বারে রাখতে কোন দ্বিধা সংকোচ করেননি পন্টিং। ৫০ ম্যাচে ৪২.৭৯ গড় এবং ১৩৪.৩৫ স্ট্রাইকরেটে ১১টি ফিফটির সাহায্যে ১৪১২ রান করেন হজ।

৪. গ্লেন ম্যাক্সওয়েল (মেলবোর্ন রেনেগেডস, মেলবোর্ন স্টার্স)

নিশ্চিতভাবেই পন্টিংয়ের একাদশে আছেন অস্ট্রেলিয়ার বিধ্বংসী ব্যাটসম্যান গ্লেন ম্যাক্সওয়েল। ঈর্ষনীয় স্ট্রাইকরেট এবং মাঠের চারপাশে শট খেলার অসম্ভব ক্ষমতা রয়েছে এই মিডলঅর্ডার ব্যাটসম্যানের। ৭৩ ম্যাচে ৩২.৬৮ গড় এবং ১৫০.৬২ স্ট্রাইকরেটে ১৪টি হাফসেঞ্চুরির সাহায্যে ১৮৩০ রান করেন ম্যাক্সওয়েল।

৫. জর্জ বেইলি (মেলবোর্ন স্টার্স, হোবার্ট হারিকেন্স)

পন্টিংয়ের সাথে একসাথে হোবার্ট হারিকেন্সে খেলেছিলেন জর্জ বেইলি। সাবেক এই ব্যাটসম্যান দীর্ঘদিন ধরে দারুণ ব্যাটিং করেছিলেন। অভিজ্ঞ এই খেলোয়াড় ৮০ ম্যাচে ৩২.৮৮ গড় এবং ১৩৫.৪৬ স্ট্রাইকরেটে ১১টি পঞ্চাশোর্ধ ইনিংসের সহায়তায় ১৬৭৭ রান করেন।

৬. মার্কাস স্টয়নিস (পার্থ স্করচার্স, মেলবোর্ন স্টার্স)

গত ২-৩ মৌসুম ধরে ফর্মের তুঙ্গে আছেন অজি অলরাউন্ডার মার্কাস স্টয়নিস। মেলবোর্ন স্টার্সের হয়ে ওপেনিংয়ে সফল হলেও পন্টিংয়ের একাদশে ৬ নাম্বারে আছেন স্টয়নিস। ৬১ ম্যাচে ৩৭.৮৫ গড় এবং ১২৯.৩৫ স্ট্রাইকরেটে ১৩টি পঞ্চাশোর্ধ ইনিংসের কল্যাণে ১৭৪১ রান করেছেন স্টয়নিস।

৭. ম্যাথু ওয়েড-উইকেটরক্ষক (মেলবোর্ন রেনেগেডস, মেলবোর্ন স্টার্স, হোবার্ট হারিকেন্স)

উইকেটরক্ষক এবং ৭ নাম্বার ব্যাটসম্যান হিসেবে ম্যাথু ওয়েডকে বিবেচনা করেছেন পন্টিং। অভিজ্ঞতাসম্পন্ন এই খেলোয়াড় ম্যাচে কার্যকর ভূমিলা রাখতে পারেন। ৬৫ ম্যাচে ৩৩.১৯ গড় এবং ১৪১.৯৪ স্ট্রাইকরেটে ১৩টি ফিফটির সহায়তায় ১৭২৬ রান করেছেন ওয়েড।

৮. শন অ্যাবট (সিডনি থান্ডার, সিডনি সিক্সার্স)

ম্যাচের চরম মুহুর্তে উইকেট নেওয়ার ক্ষেত্রে শন অ্যাবটের জুড়ি নেই। প্রতি মৌসুমে দুর্দান্ত বোলিংয়ের পাশাপাশি কার্যকর ব্যাটিং করেন তিনি। ৭৮ ম্যাচে ২১.২১ গড় এবং ৮.৪৮ ইকোনমিতে ৯৯ উইকেট নেন অ্যাবট।

৯. রাশিদ খান (অ্যাডিলেড স্ট্রাইকার্স)

বিশ্বের সকল টি-টোয়েন্টি লিগের অন্যতম জনপ্রিয় নাম রাশিদ খান। আফগানিস্তানের এই তরুণ তুর্কি তার লেগ স্পিনের জাদুতে বিগ ব্যাশ মাতাচ্ছেন। ৪০ ম্যাচে ১৭.৬৬ গড় এবং ৬.৩৭ ইকোনমিতে ৫৬ উইকেট নিয়েছেন রাশিদ খান।

১০. বেন লাফলিন ( হোবার্ট হারিকেন্স, অ্যাডিলেড স্ট্রাইকার্স, ব্রিসবেন হিট)

একাদশে বেন লাফলিনকে রাখায় অনেকে অবাক হলেও পন্টিং ঠিকই তার ধারাবাহিকতার প্রশংসা করেছেন। ইয়র্কার,কাটার এবং স্লোয়ারে প্রতিপক্ষকে বারবার ভড়কে দিয়ে ম্যাচ নিজেদের হাতে নিয়ে আসার দারুণ ক্ষমতা এই বোলারের রয়েছে। ৮৮ ম্যাচে ২২.১৪ গড় এবং ৮.০১ ইকোনমিতে ১১০ উইকেট নিয়েছেন লাফলিন।

১১. লাসিথ মালিঙ্গা (মেলবোর্ন স্টার্স)

বিবিএলে খুব একটা না খেললেও পন্টিং ঠিকই তার একাদশে শ্রীলঙ্কার বর্ষীয়ান এ পেসারকে রেখেছেন। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের আদর্শ এই বোলার ১৩ ম্যাচে ১৫ গড় এবং ৫.৪০ ইকোনমিতে ১৮ উইকেট নিয়েছেন।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

বক্সিং-ডে টেস্টেও নেই ওয়ার্নার, অ্যাবট

Read Next

দেশ সেরা কোচ এখন হাতের মুঠোয়

Total
11
Share