আইপিএলে বাড়ছে ফ্র্যাঞ্চাইজি, তবে…

ড্রিম ইলেভেন আইপিএল ট্রফি
Vinkmag ad

ভারতীয় ক্রিকেট নিয়ন্ত্রক সংস্থা (বিসিসিআই) ২০২১ সালে আইপিএলের চতুর্দশ আসরেও ৮টি দল রাখবে। তবে ২০২২ সালে ১৫তম আসরে নতুন ১টি বা ২টি ফ্র‍্যাঞ্চাইজি আসার সম্ভাবনা রয়েছে। ২৪ ডিসেম্বর আহমেদাবাদে বিসিসিআই-এর বার্ষিক সাধারণ সভায় এ ব্যাপারে চুড়ান্ত সিদ্ধান্ত আসবে।

তিন সপ্তাহ আগে থেকে দুইটি নতুন ফ্র‍্যাঞ্চাইজি আসার গুঞ্জন প্রকাশ পেয়েছিল। বিসিসিআইও নতুন ফ্র‍্যাঞ্চাইজির ব্যাপারে বেশ আশাবাদী।

‘বিসিসিআই খুব সম্ভবত ফেব্রুয়ারি,মার্চ কিংবা এপ্রিলে নিলাম ডাকতে পারে। তবে তাদের সুবিধা অনুযায়ী নিলাম ডাকা হবে। নতুন বিনিয়োগকারী আসবে। এছাড়াও ২০২১ সালের আইপিএলেও কিছু পরিবর্তন আসতে পারে,’ বিসিসিআই-এর ডেভেলপমেন্ট কমিটি জানায়।

যদি সিদ্ধান্ত সঠিক হয়, তবে বোর্ড একইসাথে এক ঢিলে অনেক পাখি শিকার করবে।

১) বড়সড় নিলামে কোন বাধা থাকবে না। যদিও মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স ৫ মাস ধরে চ্যাম্পিয়ন হয়ে থাকবে। এছাড়া সময়ও বাঁচবে।

২) ২০২০ সালে সেপ্টেম্বর-অক্টোবরে ড্রিম ইলেভেনের মত আরও প্রতিষ্ঠানগুলো আইপিএলের স্বত্ব পেতে আগ্রহী হবে এবং সে অনুযায়ী টেন্ডারও ঘোষিত হবে।

৩) এই নতুন সিদ্ধান্তের মধ্য দিয়ে ২০২১ সালের অক্টোবরের পর মিডিয়া স্বত্বে নতুন পালক যুক্ত হবে।

সূত্র জানায়,’ দুইটি নতুন ফ্র‍্যাঞ্চাইজি তাদের নিজস্ব সুবিধা ও মিডিয়া স্বত্ব নিয়ে আসবে। ২০২১ সালের মৌসুমে কেন্দ্রীয় পুলভুক্ত ক্রিকেটাররা থাকবে, ফলে ফ্র‍্যাঞ্চাইজিরাও খুশি হবে। এছাড়াও ৬০টি ম্যাচে ডাবল হেডার ম্যাচগুলো থাকছে, তাই ব্রডকাস্টাররাও খুশি থাকবে।’

বোর্ড অবশ্য বিনিয়োগকারীদের সুবিধা অনুযায়ী কার্যক্রম পরিচালনা করবে। এতে করে তারাও আগ্রহী হবে। নতুন ফ্র‍্যাঞ্চাইজি দলের ক্ষেত্রে ব্যাংক, বিনিয়োগকারী প্রতিষ্ঠান, পুরাতন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান আগ্রহী হতে পারে বলে জানা গেছে।

‘দিনশেষে বিসিসিআই সকল কার্যক্ষমতার অধিকারী। বাস্তবতা অনুযায়ী তারা সিদ্ধান্ত নেবে এবং পরবর্তীতে বড় ধরণের ফায়দা পাওয়া সম্ভব হবে। তবে সবকিছু আগে থেকে ভেবে রেখে লাভ নাই যতক্ষণ পর্যন্ত চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত না আসে,’ সূত্র জানায়।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

নাইট ক্লাবে যেয়ে গ্রেফতার রায়না, জামিনে মুক্তি

Read Next

হতাশ ওয়েস্ট ইন্ডিজ মুমিনুলের কাছে ইতিবাচক দিক

Total
2
Share