‘কিছু বোঝার আগেই সব শেষ!’

টুইটার জুড়ে কোহলিদের সমালোচনা, চলছে হাস্যরসও

ভারতের ক্রিকেট ইতিহাসের অন্যতম কালো দিনগুলোর একটি ছিল গতকাল (১৯ ডিসেম্বর)। অ্যাডিলেডে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে টেস্ট হেরেছে মাত্র তিনদিনে, গড়েছে নিজেদের টেস্ট ইতিহাসের সর্বনিম্ন সংগ্রহের রেকর্ড। দ্বিতীয় ইনিংসে ভারতকে ৩৬ রানে গুটিয়ে দিতে দুই পেসার জশ হ্যাজেলউড ও প্যাট কামিন্সই যথেষ্ট ছিল। দুজনে মিলে ফিরিয়েছেন ভারতীয় ৯ ব্যাটসম্যানকে, মোহাম্মদ শামি হয়েছেন রিটায়ার্ড হার্ট।

মাত্র ৫ ওভারে ৮ রান খরচায় ৫ উইকেট শিকার হ্যাজেলউডের। ১০.২ ওভারে ২১ রান খরচায় প্যাট কামিন্সের শিকার ৪ টি। প্রথম ইনিংসে ২৪৪ রান করা ভারতকে আরও আগেই অল আউট করার আক্ষেপ ছিল অজি পেসারদের। তবে কে জানতো গোলাপি বলের দিবা রাত্রির এই টেস্টে দ্বিতীয় ইনিংসেই সব আক্ষেপকে বিস্ময়ে পরিণত করবেন তারা! এমন দারুণ কিছু করে বিস্মিত খোদ হ্যাজেলউডও।

ম্যাচ পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘এটি এমন একটি দিন ছিল যেদিন সবকিছু পরিকল্পনামত হয়েছে। এত দ্রুত ঘটেছে যে কোন কিছু বোঝার আগেই শেষ হয়ে গেছে।’

ভারতকে ৩৬ রানে গুটিয়ে দেওয়ার দিনে হ্যাজেলউডের স্মৃতিতে ফিরে এসেছে গতবছর অ্যাশেজে লিডস টেস্টে ইংল্যান্ডকে ৬০ রানে অলআউট করার ঘটনা। তবে ভারতের বিপক্ষে দ্বিতীয় ইনিংসে বোলিংয়ে আহামরি পরিবর্তন আনেনি অজি পেসাররা জানান হ্যাজেলউড।

ডানহাতি এই পেসার বলেন, ‘লিডসের মত এটিও একই রকম ছিল। অ্যাশেজে আমরা ইংল্যান্ডকে ৬০ রানে অলআউট করেছি। তবে আমার মনে হয়না প্রথম ইনিংসের পর দুর্দান্ত কিছু করতে বোলিংয়ে আহামরি কোন পরিবর্তন এনেছি আমরা।’

‘প্রথম ইনিংসে আমরা দেখছিলাম পিচে অনেকটা বাউন্স আছে। যে কারণে স্টাম্পে বল করার জন্য প্রায় হাফ ভলি লেংথে বল করতে হতো। আমরা আজকে কিছুটা ফুল লেংথে বোলিং করেছি, ব্যাটসম্যানদের সিদ্ধান্ত নেয়ার ক্ষেত্রে পরীক্ষায় ফেলতে পেরেছি। ওদের বল ছাড়াটাও কঠিন করেছি, সৌভাগ্যবশত আজ আমাদের সবই কাজে লেগেছে।’

প্রথম ইনিংসে ৫৩ রানে পিছিয়ে থাকা অজিদের লক্ষ্য ছিল ভারতকে ২০০ রানের মধ্যে আঁটকে দেওয়া। কিন্তু ২১.২ ওভার স্থায়ী ভারতীয় ইনিংস থেমেছে ৩৬ রানে, অজিদের জন্য লক্ষ্য দাঁড়ায় মাত্র ৯০ রানের। যা ৮ উইকেট হাতে রেখেই তাড়া করে ম্যাথু ওয়েড, জো বার্নসরা।

নিজেদের পরিকল্পনার চাইতেও বেশি কিছু করে প্রথম ঘন্টাতেই বিস্ময় জাগান অজি পেসাররা। যে বিস্ময় ছুঁয়ে গেছে তাদেরও। হ্যাজেলউড বলেন, ‘আমরা ভেবেছিলাম, যদি ওদের ২০০ রানের মধ্য রাখতে পারি এবং ব্যাটিংয়ে ভালো করতে পারি তাহলে আমরা ম্যাচে থাকব। কিন্তু প্রথম ঘণ্টায় যা ঘটেছে তা একবারে বিস্ময়কর। এটা এমন একটি দিন যখন সব কিছু কাজে লেগেছ। আমরা যা করার চেষ্টা করেছি তার সবই কার্যকর হয়েছে।’

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

ছিটকে গেলেন মোহাম্মদ শামি

Read Next

কালান্দার্সের আইকন ক্রিকেটার হলেন শহীদ আফ্রিদি

Total
3
Share