বাংলাদেশের রতনের নামে ওভালের স্টেডিয়াম

বাংলাদেশের রতনের নামে ওভালের স্টেডিয়াম
Vinkmag ad

ইংল্যান্ড ও ওয়েলসের বেশ কয়েকটি স্পোর্টস ভেন্যুর নাম এই সপ্তাহে ২৪ ঘন্টার জন্য বদলানো হচ্ছে। নামকরণ করা হচ্ছে লকডাউনের সময় কাজ করা স্পোর্টস কমিউনিটির কর্মচারী ও স্বেচ্ছাসেবকদের নামে।

দ্য কিয়া ওভাল, সারে কাউন্টি ক্রিকেট ক্লাব তাদের ভেন্যুর নাম পরিবর্তন করে রেখেছে দ্য কিয়া শহিদুল আলম রতন ওভাল। বাংলাদেশের শহিদুল আলম রতন ক্যাপিটাল কিডস ক্রিকেটের সঙ্গে জড়িত।

ক্যাপিটাল কিডস ক্রিকেট ক্রিকেটের মাধ্যমে সুবিধাবঞ্চিত বাচ্চাদের জীবনযাত্রার মান পরিবর্তন করার চেষ্টা করে। লকডাউনের সময় ক্যাপিটাল কিডস ক্রিকেট রতনের নেতৃত্বে দারুণ কিছু কাজ করে।

ক্যাপিটাল কিডস ক্রিকেট তরুণদের ক্রিকেটের মাধ্যমে সাহায্য করে থাকে। তাদের ইন্সপায়ার, চ্যালেঞ্জ, চেঞ্জ মূল প্রতিপাদ্য নিয়ে তারা লন্ডনের পিছিয়ে পড়া এলাকার সুবিধাবঞ্চিতদের শারীরিক, সামাজিক ও মানসিক বিকাশে সাহায্য করে।

ক্যাপিটাল কিডস ক্রিকেটের প্রধান নির্বাহী শহিদুল ইসলাম রতন লকডাউনের সময় প্রতিষ্ঠানটির কার্যক্রম দেখভাল করেছেন। রিফিউজিদের নিয়ে ভার্চুয়াল কুইজ প্রতিযোগিতা আয়োজন করেছেন, কনসালটেন্সি করিয়েছেন জুম এর মাধ্যমে।

 

শহিদুল ইসলাম রতন খেলোয়াড়ি জীবনে ছিলেন উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান। ঢাকার ক্রিকেটে খেলেছেন ওয়ারী, মোহামেডানের হয়ে। বিসিসিবির হয়ে অনানুষ্ঠানিক বাংলাদেশ জাতীয় দলের হয়েও খেলেছেন।

Image may contain: 4 people, people smiling

খেলোয়াড়ি জীবনকে দ্রুত বিদায় বলে মন দেন কোচিংয়ে। লেভেল ৩ এর কোচিং কোর্স ইংল্যান্ড থেকে সম্পন্ন করেন। ২০০১ সালে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড তাকে তরুণ কোচ হিসাবে নিয়োগ দেয়। অনূর্ধ্ব-১৯ দলের সেটআপ ও হাই পারফরম্যান্স ইউনিটের কোচও হয়েছিলেন রতন।

মালয়েশিয়ার যুবদলের কোচ হয়ে বিশ্বকাপে কাজ করেছেন। সেখান থেকেই চলে যান ক্যাপিটাল কিডস ক্রিকেটে। শুরুতে গেম ডেভেলপমেন্ট কর্মকর্তা ও কোচের ভূমিকায় কাজ করা রতন আজ সেখানকার প্রধান নির্বাহী।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

সুমন খানকে শাস্তি দিল বিসিবি

Read Next

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ১ম টেস্টের জন্য ভারতের একাদশ ঘোষণা

Total
9
Share