এলপিএল ফাইনালে গলের প্রতিপক্ষ জাফনা

এলপিএল ফাইনালে গলের প্রতিপক্ষ জাফনা
Vinkmag ad

জনসন চার্লসের দারুণ ব্যাটিং এবং ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গা চৌকস বোলিংয়ে ফাইনালে চলে গেল জাফনা স্ট্যালিয়ন্স। সোমবার লঙ্কা প্রিমিয়ার লিগের ২য় সেমিফাইনালে ডাম্বুলা ভাইকিংকে ৩৭ রানে হারায় স্ট্যালিয়ন্স। ফাইনালের তাদের সঙ্গী গলে গ্লাডিয়েটর্স।

হাম্বানটোটার মাহিন্দ রাজাপাকসা আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে টসে জিতে প্রথমে বোলিং নেয় ডাম্বুলা ভাইকিং। স্ট্যালিয়ন্সের দুই ওপেনার আভিষ্কা ফার্নান্ডো এবং জনসন চার্লস উদ্বোধনীতে দুর্দান্ত সূচনা এনে দেন। উদ্বোধনী জুটিতে তারা ৬৮ রান তোলেন। ইনিংসের ৯ম ওভারে ফার্নান্ডোকে আউট করে ভাইকিংয়ের হয়ে ১ম সাফল্য এনে দেন পাকিস্তানি রিক্রুট আনোয়ার আলি।

ফার্নান্ডো ২৬ বলে ২ চার ও ৩ ছয়ে ৩৯ রান করেন। এরপর ২য় উইকেটে চারিথ আসালাঙ্কার সাথে ৪৩ রানের জুটি গড়েন। জুটি গড়ার পথে নিজের অর্ধশতরান পূর্ণ করেন চার্লস। আসালাঙ্কা ১০ রানে আউট হওয়ার পর স্ট্যালিয়ন্স দ্রুত উইকেট হারাতে থাকে। একপ্রান্ত জুড়ে চার্লস সপাটে ব্যাট চালালেও অপর প্রান্তে মিডল ও লোয়ার অর্ডার চরম ব্যর্থ।

ইনিংসের ১৭ তম ওভারে চার্লস ৫৬ বলে ১০ চার ও ১ ছয়ে ইনিংস সর্বোচ্চ ৭৬ রান করে লাহিরু কুমারার বলে আউট হয়ে বিদায় নেন। তবে এরপর আর কোন ব্যাটসম্যান উইকেটে সেট হতে পারেননি। শেষ পর্যন্ত ৯ উইকেটে ১৬৫ রান নিয়ে শেষ হয় স্ট্যালিয়ন্সের ইনিংস। ভাইকিংয়ের পক্ষে মালিন্দা পুষ্পকুমারা ২ উইকেট নেন।

১৬৬ রানের টার্গেটে ভাইকিংও শুরুটা ঝড়ের বেগে করে। তবে ২ চারে ১০ রানের পর সুরঙ্গা লাকমালের বলে আউট হন সামিত। পরের ওভারে অ্যাঞ্জেলো পেরেরাকে ফিরিয়ে দেন ধনঞ্জয়া ডি সিলভা। এরপর নিরোশান ডিকওয়েলাকে নিয়ে ৪৪ রানের দারুণ জুটি গড়েন উপুল থারাঙ্গা। ডিকওয়েলা ২৯ রানে আউট হওয়ার পর রানের চাকা কমে যেতে থাকে ভাইকিংয়ের।

থারাঙ্গা এক প্রান্ত ধরে রাখলেও অপর প্রান্তে মুহুর্মুহু উইকেট পড়ে। এর মাঝে থারাঙ্গা ৩৩ রানে আউট হওয়ার পর ভাইকিংয়ের জয়ের স্বপ্ন ফিকে হতে থাকে। শেষদিকে রমেশ মেন্ডিসের ১০ বলে ২৬ রানের ঝড়ো ব্যাটিং শুধুমাত্র পরাজয়ের ব্যবধান কমিয়েছে। ইনিংসের ২০ তম ওভারে সবকটি উইকেট হারিয়ে ১২৮ রান করে ভাইকিং। স্ট্যালিয়ন্সের পক্ষে হাসারাঙ্গা ৩ টি উইকেট নেন।

অসাধারণ ব্যাটিংয়ের জন্য ম্যাচসেরা হন জনসন চার্লস।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

জাফনা স্ট্যালিয়ন্সঃ ১৬৫/৯ (২০), চার্লস ৭৬, ফার্নান্ডো ৩৯, হাসারাঙ্গা ১৪; পুষ্পকুমারা ৪-০-২৪-২, মেন্ডিস ১-০-১০-১

ডাম্বুলা ভাইকিংঃ ১২৮/১০ (১৯.১), থারাঙ্গা ৩৩, ডিকওয়েলা ২৯, মেন্ডিস ২৬; হাসারাঙ্গা ৪-১-১৫-৩, আসালাঙ্কা ১-০-৭-১

ফলাফলঃ জাফনা স্ট্যালিয়ন্স ৩৭ রানে জয়ী

ম্যাচ সেরাঃ জনসন চার্লস (জাফনা স্ট্যালিয়ন্স)।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

২৪ ঘন্টার পর্যবেক্ষণে আছেন জাকির হাসান

Read Next

পৃথ্বী শ নন, বোর্ডার-গাভাস্কারের ভোট পাচ্ছেন শুবমান গিল

Total
2
Share