‘৪-৫ বছর পর শান্ত বাংলাদেশের অধিনায়ক হবে’

ম্যারাডোনাকে জয় উৎসর্গ করলেন নাজমুল হোসেন শান্ত
Vinkmag ad

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) যে কয়জন ক্রিকেটারের পেছনে লম্বা সময় বিনিয়োগ করে আসছে তাদের একজন নাজমুল হোসেন শান্ত। ব্যাট হাতে সেরাটা বের করে আনার পাশাপাশি তার নেতৃত্বেও আস্থা বোর্ডের।

বয়সভিত্তিক থেকে বোর্ডের অধীনে বিভিন্ন প্রস্তুতি ম্যাচে তার কাঁধেই অধিনায়কত্বের ভার দিয়ে থাকে বিসিবি। চলতি বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপে মিনিস্টার গ্রুপ রাজশাহীও শান্ত’র ওপর আস্থা রেখেছে। দলে তার সতীর্থ মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন তো তাকে ভবিষ্যৎ বাংলাদেশ অধিনায়ক হিসেবেও দেখছেন।

বয়সভিত্তিক থেকেই বাড়তি নজরে থাকা বাঁহাতি ব্যাটসম্যান শান্ত ইতোমধ্যে নেতৃত্ব দিয়েছেন বাংলাদেশ ‘এ’ দল, হাই পারফরম্যান্স (এইচপি), অনূর্ধ্ব-১৯, ইমার্জিং দল, বিসিবি প্রেসিডেন্টস কাপে। তার নেতৃত্বেই এসএ গেমসে স্বর্ণ জিতেছিল বাংলাদেশ।

চলতি বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপে ব্যাট হাতে দারুণ সফল শান্ত নেতৃত্ব গুণেও মুগ্ধ করেছেন। ৭ ম্যাচে মাত্র ২ জয় হলেও বেশ কিছু ম্যাচেই অভিজ্ঞতা ও ছোটখাটো ভুলের কারণে হারতে হয়েছে মিনিস্টার গ্রুপ রাজশাহীকে।

তবে সব ছাপিয়ে তার দীর্ঘদিনের সতীর্থ অলরাউন্ডার মোহাম্মদ সাইফউদ্দিনের চোখে তিনি লড়াকু এক অধিনায়ক। গণমাধ্যমের সাথে আলাপে শুক্রবার মিরপুরে মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন জানান মিনিস্টার গ্রুপ রাজশাহী দলপতি শান্তকে ভবিষ্যৎ বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক হিসেবেই দেখছেন।

তিনি বলেন, ‘কোন সন্দেহ নেই শান্ত শুধু লড়াকু ক্রিকেটার না, লড়াকু অধিনায়কও। কারণ সে মাঠে যেভাবে ফিল্ড সেট আপ, ক্যাপ্টেন্সি, দলকে উজ্জীবিত করে সত্যি প্রশংসনীয়। আমি তো ছোটবেলা থেকে সেই অনূর্ধ্ব-১৫, ২০১০ সাল থেকে দেখে আসছি। ও এবং মিরাজকে একসাথে। তখন হয়ত মিরাজ বেশি ক্যাপ্টেন্সি করত। তারপরও মিরাজ ইনজুরড থাকলে বা অসুস্থতার কারণে ম্যাচ মিস করলে বেশিরভাগ সময় শান্তই ক্যাপ্টেন্সি করত। মিরাজ-শান্ত দুজনের নেতৃত্বই আমরা ছোটবেলা থেকে উপভোগ করতাম।’

‘আর আমরা জানি ভবিষ্যতে, মা শা আল্লাহ (শান্ত) যেভাবে ব্যাটিং করছে, যদি ধারাবহিক থাকে ৪-৫ বছর পর নেতৃত্ব হয়ত ওই পাবে। যদি দেখেন ‘এ’ দল, হাই পারফরম্যান্স সব জায়গায় নেতৃ্ত্ব দিয়ে আসছে। ওর ভেতরে সেই গুনাবলী আছে বিধায় দায়িত্ব পাচ্ছে। এবং ড্রাফটের পর যখন আমাকে জিজ্ঞেস করা হয় সারোয়ার ইমরান স্যার বা টিমের বাকিরা আমি বলেছি কোন সন্দেহ নেই। ওর অধিনায়কত্ব বা অধিনায়কত্বের ধরণ সব কিছু আমার ভালো লাগে।’

উল্লেখ্য, চলতি টুর্নামেন্টে এখনও পর্যন্ত ৭ ম্যাচে ৪১.৪২ গড়ে দুই ফিফটি, এক সেঞ্চুরিতে ১৫৯.৩৪ স্ট্রাইক রেটে ২৯০ রান করেছেন নাজমুল হোসেন শান্ত। রাজশাহি দলপতি বর্তমানে সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহকের তালিকায় আছেন শীর্ষে। প্লে-অফের টিকিট পেতে আগামীকাল গাজী গ্রুপ চট্টগ্রামের বিপক্ষে ম্যাচে জয়ের বিকল্প নেই তাদের। যদিও এরপরও তাকিয়ে থাকতে হবে বেক্সিমকো ঢাকা-ফরচুন বরিশাল ম্যাচের দিকে।

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

হেনরি নিকোলসের ক্যাচ মিসের মাশুল দিচ্ছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ

Read Next

শান্তকে সান্ত্বনা দেওয়ার ভাষা ছিলনা সাইফউদ্দিনের

Total
3
Share