শান্ত’র দাপুটে শতক, রাজশাহীর রানের পাহাড়

শান্ত'র দাপুটে শতক, রাজশাহীর রানের পাহাড়
Vinkmag ad

টুর্নামেন্টে টিকে থাকতে জয়ের বিকল্প নেই ফরচুন বরিশালের। এমন ম্যাচেই টস জিতে ফিল্ডিং নেওয়া বরিশাল বোলারদের উপর রীতিমত তান্ডব চালিয়েছে মিনিস্টার গ্রুপ রাজশাহীর ব্যাটসম্যানরা। নির্দিষ্ট করে বললে দুই ওপেনার নাজমুল হোসেন শান্ত ও আনিসুল ইমনের শত রানের জুটিতে স্কোরবোর্ডে ৭ উইকেটে ২২০ তোলে রাজশহী।

আনিসুল ফিফটির পর থামলেও টুর্নামেন্টের প্রথম সেঞ্চুরি তুলে নেন অধিনায়ক শান্ত। শেষ ওভারে হ্যাটট্রিক সহ চার উইকেট তুলে নেন ফরচুন বরিশাল পেসার কামরুল ইসলাম রাব্বি।

এমনিতে ব্যাট হাতে চলতি টুর্নামেন্টে বেশ ধারাবাহিক শান্ত। পাওয়ার প্লে তে দলকে ভালো শুরু এনে দেওয়াতে বড় ভূমিকা রাখা আনিসুলও মঙ্গলবার যেন আরও বেশি আক্রমণাত্মক খেলতে থাকেন। পাওয়ার প্লের ৬ ওভারে ৬৪ রান তোলা দুই ওপেনার জুটি লম্বা করেন ১২.২ ওভার পর্যন্ত।

ততক্ষণে স্কোরবোর্ডে যোগ হয় ১৩১ রান। ২৫ বলে নিজের দ্বিতীয় ফিফটিতে পৌঁছানো আনিসুল ইমন থেমেছেন ৩৯ বলে ৭ চার ৩ ছক্কায় ৬৯ রান করে। সুমন খানের বলে আফিফ হোসেনের দারণ এক ক্যাচে পরিণোত হন এই ওপেনার।

আনিসুল ফিরে গেলেও ব্যাত হাতে অশান্তই থাকেন অধিনায়ক শান্ত। অন্য প্রান্তে রনি তালুকদার (১৮) ও শেখ মেহেদী হাসান (০) ফিরে যান দ্রুতই। ৩২ বলে ফিফটি তুলে নেওয়া শান্ত সেঞ্চুরির আগে আরও বেশি আক্রমণাত্মক হয়ে উঠেন। পরের ২০ বলেই পৌঁছে যান তিন অঙ্কে।

ফরচুন বরিশালের বোলারদের তুলোধুনো করে মিরপুরে ছক্কা বৃষ্টি নামান শান্ত। মাত্র ৪ চারের বিপরীতে সেঞ্চুরিতে পৌঁছান ১০ ছক্কা হাঁকিয়ে। ইনিংসের শেষ ওভারে কামরুল ইসলাম রাব্বির বলে আউট হওয়ার আগে করেছেন ৫৫ বলে ৪ চার ১১ ছক্কায় ১০৯ রান। শান্ত সহ শেষ ওভারের প্রথম তিন বলে নুরুল হাসান সোহান (১২) ও ফরহাদ রেজাকে (০) ফিরিয়ে হ্যাটট্রিক তুলে নেন কামরুল ইসলাম রাব্বি।

এক বল বিরতি দিয়ে মোহাম্মদ সাইফউদ্দিনকেও (৪) ফেরান ডানহাতি এই পেসার। ফলে ওভারে রাব্বি শিকার করেন চার উইকেট। নিজের প্রথম ওভারে ২১ রান হজম করা রাব্বির ইনিংস শেষে ফিগার দাঁড়ায় ৪-০-৪৯-৪! মিনিস্টার গ্রুপ রাজশাহীর দলীয় সংগ্রহ দাঁড়ায় ৭ উইকেটে ২২০ রান।

এদিকে দলের বাজে বোলিং পারফরম্যান্সের দিনে ফরচুন বরিশালের দুঃসংবাদ হয়ে আসে দারুণ বোলিং করতে থাকা পেসার আবু জায়েদ রাহির চোট। প্রথম দুই ওভারে ৫ রান খরচ করা রাহি নিজের তৃতীয় ওভারের প্রথম বলে ছক্কা হজম করেন। কিন্তু দ্বিতীয় বল করতে রানাপ শুরুর পর বল রিলিজের আগ মুহূর্তেই বাঁ পায়ে চোট পেয়ে মাঠ ছাড়েন। ব্যথার তীব্রতা বেশি হওয়াতে স্ট্র্যাচারে করে মাঠ ছারটে হয় তাকে। যদিও পরে ফরচুন বরিশাল সংবাদ বিজ্ঞপ্তি দিয়ে জানিয়েছে চোট গুরুতর নয়।

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

রাহির ইনজুরির আপডেট জানাল ফরচুন বরিশাল

Read Next

আইসোলেশনে বেক্সিমকো ঢাকার এক ক্রিকেটার

Total
6
Share