‘শফিকুলকে দমিয়ে রাখা অতটা সহজ নয়’

ভালো ছেলে শফিকুলের উজ্জ্বল ভবিষ্যত দেখছেন রুবেল

বেক্সিমকো ঢাকার পেসার শফিকুল ইসলাম বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপে আলো ছড়াচ্ছেন বেশ ভালোভাবে। জেমকন খুলনার বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে স্বীকৃত টি-টোয়েন্টিতে অভিষেক হয় এই পেসারের। পাদপ্রদীপের আলো কাড়ার মঞ্চ এর আগে ঠিকঠাক না পেলেও নির্বাচকদের নজরে পড়েছেন।

বয়সভিত্তিক ক্রিকেটের পরিচিত মুখ নন, তবে ২০১৮ সালেই হয়েছে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে অভিষেক। দারুণ কিছুর ছায়া দেখতে পেয়ে বাংলাদেশ ‘এ’ দল, জাতীয় দলের কন্ডিশনিং ক্যাম্প হয়ে ঠাই হয়েছে এবারে হাই পারফরম্যান্স (এইচপি) ইউনিটের স্কিল ক্যাম্পেও।

তবে সব ছাপিয়ে চলতি বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপে বেক্সিমকো ঢাকার হয়ে রাখছেন ভালো অবদান। ৪ ম্যাচে নিয়েছেন ৮ উইকেট, টানা তিন হারের পর বেক্সিমকো ঢাকার টানা তিন জয়েই রেখেছেন কার্যকর ভূমিকা। দলের অধিনায়ক মুশফিকুর রহিমতো রোববার (৬ ডিসেম্বর) গাজী গ্রুপ চট্টগ্রামের বিপক্ষে জয়ের পর টুর্নামেন্টের সবচেয়ে সুন্দর জিনিস হিসেবে শফিকুলকে উল্লেখ করেছেন।

১৪৫ রানের পুঁজিতে বেক্সিমকো ঢাকা পায় ৭ রানের জয়। গুরুত্বপূর্ণ মুহূর্তে শফিকুল ফিরিয়েছেন চট্টগ্রাম দলপতি মোহাম্মদ মিঠুনকে, ডেথ ওভারে করেছেন দারুণ বোলিং। বেক্সিমকো ঢাকার আগের দুই জয়েও বল হাতে ভালো অবদান ছিল বাঁহাতি এই পেসারের। ফরচুন বরিশালের বিপক্ষে ১০ রানে ২ উইকেটের পর মিনিস্টার গ্রুপ রাজশাহীর বিপক্ষে শিকার ৩১ রানে ৩ উইকেট।

রোববার (৬ ডিসেম্বর) চট্টগ্রামের বিপক্ষে জয়ের পর অধিনায়ক মুশফিক পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে শফিকুলকে নিয়ে বলেন, ‘আপনি যদি আমাকে জিজ্ঞাসা করেন এই টুর্নামেন্টের সবচেয়ে সুন্দর জিনিস কি আমি তাহলে অবশ্যই বলব শফিকুল। যেভাবে সে বল করেছে বিশেষ শেষ তিন ম্যাচে সে অসাধারণ ছিল।’

২৩ বছর বয়সী এই পেসারকে দমিয়ে রাখা কঠিন উল্লেখ করে মুশফিক যোগ করেন, ‘তাকে দমিয়ে রাখা অতটা সহজ নয়। আমি মনে করি সে যেভাবে ক্রিজে এবং ক্রিজের বাইরে তার কাজটা করেছে এটা দুর্দান্ত। শুধু তাঁর বোলিংই নয় সে ফিল্ডিংয়েও ভালো করেছে। আমি মনে করি আমার দলের এই ধরণের ক্রিকেটাররা ভবিষ্যতে অনেকদূর এগিয়ে যাবে।’

২০১৮ সালে রাজশাহী বিভাগের হয়ে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে অভিষেক হওয়া শফিকুল এখনো পর্যন্ত খেলেছেন ৪ টি ম্যাচ, নিয়েছেন ৯ উইকেট। বাংলাদেশ ‘এ’ দলের হয়ে আফগানিস্তান ‘এ’ দলের বিপক্ষে লিস্ট ‘এ’ তে অভিষেক হওয়া বাঁহাতি পেসার ৫ ম্যাচে নিয়েছেন ৪ উইকেট।

শফিকুলকে নেটে অনুশীলনে দেখেই মনে ধরে বেক্সিমকো ঢাকা সতীর্থ অভিজ্ঞ রুবেল হোসেনের। বেক্সিমকো ঢাকার জার্সি গায়ে শফিকুলের প্রথম ম্যাচের পরই রুবেল বলেছেন তার উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ দেখছেন।

রুবেল বলেন, ‘ওর সাথে আমি নেটে বোলিং করেছি তখনই দেখেছি মা শা আল্লাহ ভালো বোলিং করে। পেস আছে, ভেরিয়েশন আছে। তো ভালো ছেলে এবং ভালো বোলার। আমার কাছে মনে হয় ওর ফিউচার ভালো।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

‘টিভিতে মাশরাফির খেলা দেখতে অনেকে অপেক্ষা করছে’

Read Next

জেমকন খুলনার জয়ের হ্যাটট্রিক, হেরেই চলেছে রাজশাহী

Total
8
Share