‘টিভিতে মাশরাফির খেলা দেখতে অনেকে অপেক্ষা করছে’

জালাল ইউনুস

জল্পনা কল্পনার অবসান ঘটিয়ে বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপে লটারি ভাগ্যে মাশরাফি বিন মর্তুজাকে দলে ভেড়ালো জেমকন খুলনা। চোটের কারণে প্লেয়ার্স ড্রাফটে না থাকা দেশের অন্যতম সফল এই পেসার চোট কাটিয়ে অনুশীলনে ফেরার পরই শুরু হয় দলগুলোর আগ্রহ প্রকাশ। একাধিক দলের আগ্রহের কারণে তার ঠিকানা চুড়ান্ত হল লটারির মাধ্যমে। টুর্নামেন্টের টেকনিক্যাল কমিটির প্রধান জালাল ইউনুস মনে করেন মাঠে দর্শকের অনুমতি না থাকলেও টিভি পর্দায় তাকে দেখতে মুখিয়ে আছেন অনেকেই।

আজ (৬ ডিসেম্বর) বিকেলে বিসিবি কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত লটারিতে অংশ নেয় জেমকন খুলনা, ফরচুন বরিশাল, মিনিস্টার গ্রুপ রাজশাহী ও বেক্সিমকো ঢাকা। যেখানে লটারি ভাগ্যে মাশরাফিকে দলে পায় জেমকন খুলনা। প্লেয়ার্স ড্রাফটেও যারা সাকিব আল হাসানের সাথে ভাগ্যের বদলৌতে একই ক্যাটাগরির মাহমুদউল্লাহ রিয়াদকে দলে ভেড়াতে পারে।

লম্বা সময় পর মাশরাফিকে মাঠে দেখা যাবে বলে বেশ উচ্ছ্বসিত বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপের টেকনিক্যাল কমিটির প্রধান জালাল ইউনুস। লটারি শেষে এক ভিডিও বার্তায় তিনি বলেন, ‘আমরা অবশ্যই খুশি। অবশ্যই আমরা মাশরাফিকে মাঠে দেখতে চাই ইন শা আল্লাহ। যে দলেই খেলুক জানি ও খুবই পরিশ্রমী এবং নিবেদিত ক্রিকেটার। সে অবশ্যই যে দলেই খেলুক আমার মনে হয় নিশ্চয়ই ভালো করবে। তার জন্য শুভ কামনা রইলো।’

‘অবশ্যই মাশরাফি আমাদের অনেক বড় মানের আইকন খেলোয়াড়। মাশরাফি নিজেই এমন একজন যে অনুপ্রাণিত করে সবাইকে মাঠে ও একটা দলকে। সামনে থেকে আমার মনে হয় নেতৃত্ব না দিলেও ওই কাজটা ও করে দেবে দলটার জন্য।’

এদিকে মাঠে মাশরাফির দাপিয়ে বেড়ানো সবসময়ই উপভোগ্য দেশের দর্শকমহলে। কিন্তু করোনা প্রভাবে বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপে মাঠে থাকছেনা কোন দর্শক। মাঠে না হলেও টিভি দর্শকরা মাশরাফিকে দেখতে মুখিয়ে আছে বলে মনে করেন জালাল ইউনুস।

তিনি বলেন, ‘এখন কথা হচ্ছে আমরা এখানে তো দর্শক পাচ্ছি না। তারপরও টিভিতে তাকে দেখার জন্য অনেক দর্শক মনে হয় অপেক্ষা করছে। হয়তো সামনে আরও বেশি ম্যাচ থাকবে না তারপরও আমার মনে হচ্ছে যে কয়টাই থাকে আর তারা যদি কোয়ালিফাই করে ফাইনাল, সেমিফাইনালে যায় (সংখ্যা বাড়বে)।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

মাশরাফিকে দলে পেয়ে উচ্ছ্বসিত জেমকন খুলনা

Read Next

‘শফিকুলকে দমিয়ে রাখা অতটা সহজ নয়’

Total
3
Share