খুলনার সাথে পেরে উঠল না ঢাকা

বরিশালকে অল্পতে আটকে দিল খুলনা

৫ দলের মোট ৮০ জন বাংলাদেশি ক্রিকেটার নিয়ে ২৪ নভেম্বর থেকে শুরু হয়েছে বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপ। টুর্নামেন্টের চতুর্থ দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হয়েছে বেক্সিমকো ঢাকা ও জেমকন খুলনা। এই ম্যাচের খুটিনাটি আপডেট এই লাইভ রিপোর্টে।

পুর্নাঙ্গ ম্যাচ রিপোর্ট পড়ুন এখানে

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

জেমকন খুলনাঃ ১৪৬/৮ (২০), বিজয় ৫, সাকিব ১১, জহুরুল ৪, ইমরুল ২৯, মাহমুদউল্লাহ ৪৫, আরিফুল ১৯, শামীম ১, শুভগত হোম ১৫*, শহিদুল ১; রুবেল হোসেন ৪-০-২৮-৩, শফিকুল ইসলাম ৪-০-৩৪-২, নাসুম আহমেদ ৪-০-১০-১, নাইম হাসান ৩-০-১৬-১, মুক্তার আলি ৪-০-৩৯-০, রবিউল ইসলাম রবি ১-০-৭-০।

বেক্সিমকো ঢাকাঃ ১০৯/১০ (১৯.২), তানজিদ ৪ , নাইম শেখ ১, রবি ৪, মুশফিক ৩৭, ইয়াসির ২১, আকবর ৪, মুক্তার ৪, নাইম ৩, নাসুম ৭, রুবেল ৪*, শফিকুল ৫; শুভগত হোম ৩.২-০-১৩-৩, সাকিব ৪-২-৮-১, শহিদুল ৪-০-৩০-৩, হাসান মাহমুদ ৪-০-২২-২

ফলাফলঃ জেমকন খুলনা ৩৭ রানে জয়ী

ম্যাচসেরাঃ শুভাগত হোম (জেমকন খুলনা)।

কোনমতে ঢাকার ১০০ পারঃ

উইকেটে অনেক সময় কাটিয়ে ফেললেও ব্যাটে বলে যোগাযোগটা ঠিকঠাক হচ্ছিল না মুক্তার আলি। ১০ বলের অস্বস্তির ইনিংস শেষ হয় শহিদুল ইসলামের বলে মুক্তার আলিকে ক্যাচ দিয়ে। শহিদুল ইসলাম পরের বলেই পেতে পারতেন রুবেল হোসেনের উইকেট। তবে ইমরুল ক্যাচ লোপ্পা ক্যাচ ছাড়েন। তার পরবর্তী বলেই অবশ্য নাসুম আহমেদকে শামীম হোসেনের ক্যাচ বানিয়ে ঝুলিতে পোরেন তৃতীয় উইকেট। শহিদুলের এই ওভারেই ১০০ রানের গন্ডি পার করে ঢাকা।

রান আউট নাইমঃ

ইনিংসের ১৭ তম ওভারে এসে ৭ম উইকেট হারিয়েছে বেক্সিমকো ঢাকা। ৬ বলে ৩ রান করে রান আউট হয়ে সাজঘরে ফিরেছেন নাইম হাসান।

সাজঘরে মুশফিক-আকবরঃ

একাদশে সুযোগ পেয়েই বাজিমাত করেছেন শুভাগত হোম। ব্যাট হাতে ৫ বলে ১৫ রান করে অপরাজিত থাকা শুভাগত বল হাতে প্রথম ওভারেই ফিরিয়েছিলেন তানজিদ হাসান তামিমকে। নিজের তৃতীয় ওভারে এসে ফেরালেন মুশফিকুর রহিমকে। ৩৫ বলে ৫ চারে ৩৭ রান করে আউট হয়েছেন বেক্সিমকো ঢাকার অধিনায়ক।

৫ বল বাদে সাজঘরের পথ ধরেন আকবর আলিও। ৫০ স্ট্রাইক রেটে ৪ রান করা আকবরকে শামীম হোসেনের ক্যাচ বানিয়ে ফেরান হাসান মাহমুদ।

জুটি ভাঙলেন হাসানঃ

জমে উঠছিল মুশফিকুর রহিম ও ইয়াসির আলি চৌধুরী রাব্বির জুটি। দুজনে স্বাচ্ছন্দে রান তোলা শুরু করেছিলেন। তবে জুটিকে খুব বেশি বড় করতে দিলেন না তরুণ পেসার হাসান মাহমুদ। ২৯ বলে ২১ রান করা রাব্বিকে বোল্ড করেন হাসান। এতে করে ভেঙেছে ৫৭ রানের জুটি।

পাওয়ার প্লে ভাল গেল না ঢাকারঃ

পাওয়ারপ্লে একদমই যুতসই হলো না বেক্সিমকো ঢাকার। ১৪ রানের মধ্যে টপ অর্ডারের ৩ ব্যাটসম্যানকে হারিয়ে বিপাকে পড়ে তারা। পাওয়ার প্লের ৬ ওভারে তারা ৩ উইকেট হারিয়ে তোলে ৩৩ রান। ৩৩ রানের ১৮ রানই আবার এসেছে শহিদুল ইসলামের করা ৬ষ্ঠ ওভারে।

ব্যাটিং বিপর্যয়ে ঢাকাঃ

ব্যাট হাতে ওপেন করতে নেমে সুবিধা করে উঠতে পারেননি, করেছেন কেবল ১১ রান। তবে বল হাতে নিয়ে ২য় বলেই দলকে উদযাপনের উপলক্ষ এনে দিলেন সাকিব আল হাসান। নাইম শেখকে ইনিংস লম্বা করতে না দিয়ে, চমৎকার ফ্লিপারে বোল্ড করেছেন। ঐ ওভারে দেননি কোন রানও।

সাকিবের উইকেট মেডেনের পর শহিদুলের ১ম বলে ফিরে গেছেন রবিউল ইসলাম। ব্যাটিং বিপর্যয়ে বেক্সিমকো ঢাকা।

শুরুর ওভারেই শুভাগত’র আঘাতঃ

মাঝারি মানের সংগ্রহ ডিফেন্ড করতে জেমকন খুলনার দরকার ছিল দারুণ শুরু। সেই কাজটাই করেছেন এই ম্যাচে প্রথম একাদশে ঢোকা শুভাগত হোম। প্রথম ওভারেই বোল্ড করে ফিরিয়েছেন তানজিদ হাসান তামিমকে।

খুলনাকে অল্পতে আঁটকে রাখল ঢাকাঃ 

জেমকন খুলনাকে অল্পতেই আঁটকে রেখেছে বেক্সিমকো ঢাকা। রুবেল হোসেন, শফিকুল ইসলামদের সামনে হাত খুলে মারতে পারেননি মাহমুদউল্লাহ রিয়াদরা। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৪৫ রান করেন মাহমুদউল্লাহ, তবে খেলেন ৪৭ বল।

সংক্ষিপ্ত স্কোর (১ম ইনিংস শেষে)-

জেমকন খুলনাঃ ১৪৬/৮ (২০), বিজয় ৫, সাকিব ১১, জহুরুল ৪, ইমরুল ২৯, মাহমুদউল্লাহ ৪৫, আরিফুল ১৯, শামীম ১, শুভগত হোম ১৫*, শহিদুল ১; রুবেল হোসেন ৪-০-২৮-৩, শফিকুল ইসলাম ৪-০-৩৪-২, নাসুম আহমেদ ৪-০-১০-১, নাইম হাসান ৩-০-১৬-১, মুক্তার আলি ৪-০-৩৯-০, রবিউল ইসলাম রবি ১-০-৭-০।

দ্রুত ফিরলেন আরিফুল, শামীমঃ

আজ ব্যাট হাতে দারুণ কিছু করতে পারেননি আরিফুল হক। ১১ বলে ৩ চারে ১৯ রান করে রুবেল হোসেনের দ্বিতীয় শিকার হয়ে ফিরেছেন সাজঘরে, উইকেটের পেছনে ক্যাচ দিয়েছেন মুশফিকুর রহিমকে। সুবিধা করে উঠতে পারেননি শামীম হোসেনও। ২ বলে ১ রান করে আউট হয়েছেন শফিকুল ইসলামের বলে আকবর আলিকে ক্যাচ দিয়ে।

ফিরেছেন ইমরুলঃ

৩০ রানে ৩ উইকেট হারানোর পর মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের সঙ্গে জুটি বেধে দলকে এগিয়ে নিচ্ছিলেন ইমরুল কায়েস। নাইম হাসানের বলে লেগ বিফোরের ফাঁদে পড়ে সাজঘরে ফিরেছেন তিনি। দলীয় ৮৬ রানের মাথায় জেমকন খুলনার ৪র্থ উইকেটের পতন। ২৭ বলে ৪ টি চারে ২৯ রান করেছেন ইমরুল।

৩০ রানেই নেই খুলনার ৩ উইকেটঃ

নাসুম আহমেদের আর্মারে সরাসরি বোল্ড হলেন এনামুল হক বিজয়, দলীয় ১৩ রানে ১ম উইকেটের পতন জেমকন খুলনার। ৮ বলে ৫ রান করে সাজঘরে বিজয়।

বিজয়ের মত ব্যাট হাতে আজও ব্যর্থ সাকিব আল হাসান। মাত্র ৯ বলে ১১ রান করে রুবেল হোসেনের বলে বোল্ড হয়ে বিদায় নিয়েছেন তিনি।

তিনে নেমে সুবিধা করে উঠতে পারেননি জহুরুল ইসলাম। ৯ বলে ৪ রান করে শফিকুল ইসলামের চমৎকার ডেলিভারিতে সরাসরি বোল্ড হয়েছেন তিনি। ৩০ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে বিপাকে খুলনা। ইমরুল কায়েসকে সঙ্গ দিতে ক্রিজে এসেছেন অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ।

একাদশ আপডেটঃ

বেক্সিমকো ঢাকার একাদশে এসেছে চার পরিবর্তন। মেহেদী হাসান রানা, আবু হায়দার রনি, সাব্বির রহমান ও শাহাদাত হোসেন দিপুর পরিবর্তে জায়গা পেয়েছেন ইয়াসির আলি রাব্বি, শফিকুল ইসলাম, রবিউল ইসলাম রবি, নাইম হাসান।

জেমকন খুলনার একাদশেও আছে এক পরিবর্তন। রিশাদ হোসেনের জায়গায় খেলবেন শুভাগত হোম।

টস আপডেটঃ

মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টসে জিতে আগে জেমকন খুলনাকে ব্যাট করতে পাঠিয়েছেন বেক্সিমকো ঢাকার অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম।

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

বিকেএসপি ও এভারকেয়ার পরিদর্শন করল ওয়েস্ট ইন্ডিজের পরিদর্শক দল

Read Next

‘টি-টোয়েন্টিতে ২০-৩০ রানে আউট হয়ে যাওয়া পাপের মত’

Total
3
Share