মেহেদী-সোহানের ব্যাটে চড়ে রাজশাহীর ১৬৯

মেহেদী-সোহানের ব্যাটে চড়ে রাজশাহীর ১৬৯

বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপের উদ্বোধনী ম্যাচে বাজে শুরুর পরও আগে ব্যাট করা মিনিস্টার গ্রুপ রাজশাহীকে বড় সংগ্রহ এনে দেয় শেখ মেহেদী হাসানের ঝড়ো ফিফটি। মেহেদীর ফিফটির সাথে নুরুল হাসান সোহান ও তরুণ ওপেনার আনিসুল ইসলাম ইমনের ব্যাটে বেক্সিমকো ঢাকার বিপক্ষে ৯ উইকেট হারিয়ে মিনিস্টার গ্রুপ রাজশাহীর সংগ্রহ ১৬৯ রান।

অবশ্য দারুণ কিছুর ইঙ্গিত দিয়েই শুরুটা করেন মিনিস্টার গ্রুপ রাজশাহীর অধিনায়ক নাজমুল হোসেন শান্ত। আনিসুল ইমনকে নিয়ে ৩.৫ ওভার স্থায়ী জুটিতে যোগ করেন ৩১ রান। ১৬ বলে ২ ছক্কায় ১৭ রান করে নাসুম আহমেদের শিকার হয়ে শান্ত ফিরে গেলে শুরু হয় আসা যাওয়ার মিছিল।

আনিসুল ইসলাম ইমন এক প্রান্ত আগলে রাখলেও অন্য প্রান্তে রনি তালুকদার (৬), মোহাম্মদ আশরাফুলকে (৫) দ্রুত ফেরান মুক্তার আলি। দলীয় ৬৫ রানে বিদায় নেন ইমনও। নাইম হাসানের বলে স্টাম্পিংয় হওয়ার আগে দারুণ কিছু শটে ২৩ বলে ৫ চার ১ ছক্কায় ৩৫ রান করেন তরুণ এই ব্যাটসম্যান। কোন বল না খেলে ফজলে রাব্বি রান আউটে কাটা পড়লে ৬৫ রানেই ৫ উইকেট হারায় মিনিস্টার গ্রুপ রাজশাহী।

সেখান থেকে দলকে টেনে নেন শেখ মেহেদী হাসান ও নুরুল হাসান সোহান। দুজনে ৬ষ্ঠ উইকেত জুটিতে যোগ করেন ৪৯ বলে ৮৯ রান। ২০ বলে ২ চার ৪ ছক্কায় ৩৯ রান করে মুক্তার আলির তৃতীয় শিকার হয়ে সোহান ফিরে গেলে ভাঙে জুটি। ততক্ষণে ফিফটি তুলে নেন মেহেদী।

অবশ্য বেক্সিমকো ঢাকার পেসার মেহেদী হাসান রানার বলে মুক্তার আলিকে ক্যাচ দিয়ে ফিরেছেন ঠিক ৫০ রানেই। ৩২ বলে ৩ চার ৪ ছক্কায় ইনিংসটি সাজান এই ব্যাটসম্যান। তার বিদায়ের পর বেশি দূর যায়নি মিনিস্টার গ্রুপ রাজশাহীর ইনিংসও। থেমেছে ৯ উইকেটে ১৬৯ রানে। বেক্সিমকো ঢাকার হয়ে ৪ ওভারে ২২ রান খরচায় ৩ উইকেট তুলে নিয়ে সেরা বোলার মুক্তার আলি। একটি করে উইকেট নেন মেহেদী হাসান রানা, নাসুম আহমেদ ও নাইম হাসান।

সংক্ষিপ্ত স্কোর (১ম ইনিংস শেষে):

মিনিস্টার গ্রুপ রাজশাহীঃ ১৬৯/৯ (২০ ওভার), শান্ত ১৭, ইমন ৩৫, রনি ৬, আশরাফুল ৫, রাব্বি ০, সোহান ৩৯, মেহেদী ৫০, ফরহাদ ১১* , সানি ০, মুগ্ধ ০, ইবাদত ২* ; রুবেল ০/২৯ , রানা ১/৩১, নাসুম ১/৪১, মুক্তার ৩/২২, নাইম ১/৩২, সাব্বির ০/১১।

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচে শেষ হাসি রাজশাহীর

Read Next

৪ ছক্কা হাঁকিয়ে খুলনাকে জেতালেন আরিফুল

Total
2
Share