‘মনে হচ্ছে নাসিরের ক্রিকেট খেলার ইচ্ছেই নেই’

'মনে হচ্ছে নাসিরের ক্রিকেট খেলার ইচ্ছেই নেই'
Vinkmag ad

একসময় জাতীয় দলে নিয়মিত ছিলেন, ব্যাট হাতে দারুণ এক ফিনিশার হিসেবেও খ্যাতি কুড়িয়েছেন। তবে সময়ের সাথে সাথে নানা বিতর্কিত ইস্যুতেই নাসির হোসেন খবরের শিরোনাম হতে শুরু করেন। জাতীয় দল থেকে তো ছিটকে গেছেনই, ঘরোয়া ক্রিকেটেও নাসির যেন আড়ালে যাওয়ার পথে। মূলত ফিটনেস ইস্যুতে তার খেয়ালিপনা আধুনিক ক্রিকেটের সাথে যায়না নিশ্চিতভাবেই।

আসন্ন বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপ সামনে রেখে চলমান বিপ টেস্টে বেশিরভাগ ক্রিকেটারই উতরে গেছেন। নির্ধারিত বেঞ্চ মার্ক ১১ ছাড়িয়ে অনেকে দেখিয়েছেন চমকও। তরুণদের পাশাপাশি প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটারদের মধ্যে অভিজ্ঞ মোহাম্মদ আশরাফুল, শাহরিয়ার নাফিস, আব্দুর রাজ্জাকরাও অনায়েসেই ছুঁয়েছেন বেঞ্চ মার্ক। যা স্পষ্ট ইঙ্গিত দেয় বর্তমানে ফিটনেস ইস্যুতে কতটা সিরিয়াস ক্রিকেটাররা।

তবে নাসির হোসেন যেন বেরই হতে পারছেন না বাজে ফিটনেস থেকে। আজ (১০ নভেম্বর) দেওয়া বিপ টেস্টে তুলতে পেরেছেন মাত্র ৮.৫। যা রীতিমত অবাক করেছে প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু ও বিসিবির হেড অফ ফিজিক্যাল পারফরম্যান্স ট্রেভর নিকোলাস লিকেও। সর্বশেষ জাতীয় লিগের আগেও দুই দফা বিপ টেস্ট দিয়ে পাশ করতে পারেননি নাসির হোসেন।

বেহাল ফিটনেসের নাসিরকে নিয়ে কথা বলতে গিয়ে প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু সংবাদ মাধ্যমকে বলেন, ‘ওর তো খুব খারাপ অবস্থা। ও খেলতে পারবে না। ৮ তো আমিই টেস্ট দিলে পাব। যারা ফেল করছে তাদের আর কোনো পরীক্ষা নেয়া হবে না। দেখেন, ফিটনেস টেস্টে পাশ করতে হলেও অনুশীলন করতে হয়।’

‘আপনি এসেই তো আর পাশ করতে পারবেন না তাই না? রাজ্জাক, শাহরিয়ার নাফিস ভালো করেছে এতে ওর শিক্ষা হয়নি? এটা আপনি কী বললেন ৮! নিক লি (ফিজিক্যাল অ্যান্ড স্ট্রেংথেনিং কোচ) দেখে হাসছে। লজ্জাজনক! একজন জাতীয় পর্যায়ের প্লেয়ার, প্রথম শ্রেণির চুক্তিভুক্ত প্লেয়ার, তার ফিটনেস লেভেলে হলো ৮ (মূলত ৮.৫)!’

নাসিরের মত একই অবস্থা প্রতিভাবান অলরাউন্ডার সোহাগ গাজীর। বেখেয়ালিপনায় ফিটনেস ইস্যুতে তার অবস্থাও করুণ। দু দফা বিপ টেস্ট দিয়ে নাসিরের চাইতে কিছুটা উন্নতি অবশ্য করেছেন (৯.৪ ও ১০), তবে ছুঁতে পারেননি নির্ধারিত বেঞ্চ মার্ক ১১। বিপ টেস্টে ব্যর্থ হওয়াদের পেছনে আর সময় ব্যয় করতে রাজি নন নির্বাচকরা। এমনকি দেওয়া হবেনা দ্বিতীয় সুযোগও।

নাসির হোসেন, সোহাগ গাজীদের ব্যাপারে ট্রেভর নিকোলাস লিও নেতিবাচক মন্তব্য করেছেন মিনহাজুল আবেদিন নান্নুর কাছে। এ প্রসঙ্গে নান্নু যোগ করেন, ‘সোহাগ গাজীর কথাই ধরুন না, ওর ফিটনেস লেভেল ৯ (মূলত ৯.৪ ও দ্বিতীয় দফায় ১০)। যারা ফেল করেছে ওদের নিয়ে আর নতুন করে ভাবার কিছু নেই। দুই বছর হলো ওদের নিয়ে দৌঁড়াচ্ছি। আর সম্ভব না।’

‘নিজের ফিটনেস নিজের কাছে। এটা কী আমি আপনি করে দিতে পারব? আপনি যতদিন ফিট থাকবেন খেলবেন, না হলে খেলবেন না। আমার মনে হচ্ছে নাসিরের ক্রিকেট খেলার ইচ্ছেই নেই। আমাকে নিক বলেছে, ওর তো খেলার ইচ্ছেই নাই। সোহাগ গাজীরও একই অবস্থা।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

মাঠে দর্শক ফেরাতে সরকারের সঙ্গে যোগাযোগ করবে বিসিবি

Read Next

‘বিশ্বকাপ ফাইনালের পর আইপিএল ফাইনালই সবচেয়ে বড় কিছু’

Total
14
Share