মুম্বাইকে উড়িয়ে দিয়ে কোলকাতাকে বিদায় করল হায়দ্রাবাদ

মুম্বাইকে উড়িয়ে দিয়ে কোলকাতাকে বিদায় করল হায়দ্রাবাদ
Vinkmag ad

জিতলে প্লে অফ, হারলে টুর্নামেন্ট থেকে বাদ। বাঁচা মরার এমন সমীকরণে শাহবাজ নাদিম- সন্দ্বীপ শর্মার চমৎকার বোলিং এবং ডেভিড ওয়ার্নার ও ঋদ্ধিমান সাহার অবিচ্ছিন্ন জুটিতে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সকে ১০ উইকেটে হারিয়ে প্লে অফ নিশ্চিত করলো সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদ। হায়দ্রাবাদের এই জয়ে প্লে অফে যাওয়া হল না কোলকাতা নাইট রাইডার্সের।

শারজাহ স্টেডিয়ামে টসে জিতে সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদের অধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নার প্রথমে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নেন। দলে ফিরে এসেও সুবিধা করতে পারেননি মুম্বাইয়ের অধিনায়ক রোহিত শর্মা। ইনিংসের ৩য় ওভারে সানরাইজার্সের ফর্মে থাকা বোলার সন্দ্বীপ শর্মার বলে ওয়ার্নারকে ক্যাচ দিয়ে বিদায় নেন রোহিত।

ভালো খেলতে থাকা কুইন্টন ডি কককে ব্যক্তিগত ২৫ রানে বোল্ড করে দেন সন্দ্বীপ। এরপর ৩য় উইকেটে সুরিয়া কুমার যাদব এবং ইশান কিশান ৪২ রানের দারুণ জুটি গড়েন। শাহবাজ নাদিম ইনিংসের ১২ তম ওভারে বোলিংয়ে একইসাথে সুরিয়াকুমার এবং ক্রুনাল পান্ডিয়াকে আউট করে সানরাইজার্সকে ম্যাচে ফিরিয়ে আনেন।

পরের ওভারে সৌরভ তিওয়ারিকে রাশিদ খান সাজঘরে ফেরালে চরম বিপর্যয়ে পড়ে মুম্বাই। সেখান থেকে ইশান ও কাইরন পোলার্ড ৩৩ রানের জুটি গড়ে কিছুটা বিপর্যয় সামাল দেন। ১ রানের ব্যবধানে ইশান ও নাথান কোল্টারনাইল আউট হলে আবারও বিপদে পড়ে মুম্বাই। শেষদিকে পোলার্ড ঝড়ে ২০ ওভার শেষে ৮ উইকেট হারিয়ে ১৪৯ রান সংগ্রহ করে মুম্বাই।

পোলার্ড ২৫ বলে ২টি চার ও ৪টি ছক্কার সাহায্যে দলীয় সর্বোচ্চ ৪১ রান করেন। সানরাইজার্সের পক্ষে সন্দ্বীপ ৩টি এবং হোল্ডার ও নাদিম ২টি করে উইকেট পান।

১৫০ রানের টার্গেটে সানরাইজার্স হায়দ্রবাদের হয়ে ওপেন করতে নামেন অধিনায়ক ওয়ার্নার এবং ঋদ্ধিমান সাহা। আগের দুই ম্যাচের মত এদিনও দুর্দান্ত জুটি গড়ে তোলেন। দুইজনই প্রথম থেকে মারমুখী ব্যাটিং করতে থাকেন। পাওয়ারপ্লেতে কোন উইকেট না হারিয়ে ৫৬ রান তুলে ফেলে সানরাইজার্স।

সিংগেলস-ডাবলসের সাথে দর্শনীয় কিছু বাউন্ডারি আদায় করে নেন ওয়ার্নার ও ঋদ্ধিমান। চমৎকার ব্যাটিং অব্যাহত রেখে প্রথমে ওয়ার্নার এবং পরে ঋদ্ধিমান সাহা অর্ধশত রান পূর্ণ করেন। অর্ধশতকের পর আরও মারমুখী হয়ে ওঠেন ওয়ার্নার।

১০ উইকেট এবং ১৭ বল হাতে রেখে লক্ষ্যে পৌঁছে যায় সানরাইজার্স এবং পয়েন্ট টেবিলের ৩য় দল হিসেবে প্লে অফ নিশ্চিত করে।

ওয়ার্নার ৫৮ বলে ১০টি চার এবং ১টি ছক্কার সহায়তায় ৮৫ রানের অসাধারণ ইনিংস খেলে অপরাজিত থাকেন, ঋদ্ধিমান অপরাজিত থাকেন ৫৮ রানে।

৪ ওভারে ১৯ রান খরচে ২ উইকেট নিয়ে ম্যাচসেরা হন শাহবাজ নাদিম।

আগেই ১ম দল হিসেবে কোয়ালিফায়ার নিশ্চিত করা মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স ১ম কোয়ালিফায়ারে খেলবে দিল্লি ক্যাপিটালসের বিপক্ষে। অন্যদিকে এলিমিনেটরে সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদের প্রতিপক্ষ রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সঃ ১৪৯/৮ (২০ ওভার), পোলার্ড ৪১, সুরিয়া ৩৬, ইশান ৩৩; সন্দ্বীপ ৩/৩৪, নাদিম ২/১৯, হোল্ডার ২/২৫

সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদঃ ১৫১/০ (১৭.১ ওভার), ওয়ার্নার ৮৫*, ঋদ্ধিমান ৫৮*

ফলাফলঃ সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদ ১০ উইকেটে জয়ী

ম্যাচ সেরাঃ শাহবাজ নাদিম (সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদ)।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

শতভাগ দিয়ে পরিপূর্ণ হবার চেষ্টা করছেন নাইম শেখ

Read Next

এলপিএলের সম্ভাব্য ভেন্যু তালিকায় দুবাই-মালয়েশিয়া!

Total
0
Share