সুপার ওভারের রোমাঞ্চে পাকিস্তানকে হারাল জিম্বাবুয়ে

সুপার ওভারের রোমাঞ্চে পাকিস্তানকে হারাল জিম্বাবুয়ে
Vinkmag ad

পাকিস্তানকে ঘরের মাঠে হারিয়ে দিল জিম্বাবুয়ে। ৩ ম্যাচ সিরিজের শেষ ম্যাচ গড়ায় সুপার ওভারে। দুর্দান্ত ব্লেসিং মুজারাবানির সামনে পাত্তা পায়নি ইফতিখার-খুশদিলরা। সিরিজ হারলেও জয় দিয়ে সিরিজ শেষ করা নিঃসন্দেহে জিম্বাবুয়ে শিবিরে তৃপ্তি এনে দিবে।

রাওয়ালপিন্ডি ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টসে জিতে আগে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয় জিম্বাবুয়ে। মোহাম্মদ হাসনাইনের বোলিং তোপে ২২ রানেই ৩ উইকেট হারিয়ে বসে জিম্বাবুয়ে। চারে নামা ব্রেন্ডন টেইলর ও পাঁচে নামা শন উইলিয়ামস দলের বিপদের সময় হাল ধরেন।

চতুর্থ উইকেটে দুজন মিলে স্কোরবোর্ডে যোগ করেন ৮৪ রান। ৬৮ বলে ৫৬ রান করে টেইলর ফিরে গেলেও শেষ অব্দি উইকেটে থাকেন শন উইলিয়ামস। ওয়েসলে মাধেব্রের সঙ্গে ৭৫ ও সিকান্দার রাজার সঙ্গে ৯৬ রানের জুটি গড়ে দলকে বড় সংগ্রহ এনে দেন উইলিয়ামস। ১৩৫ বলে ১৩ চার ও ১ ছক্কায় ১১৮ রান করে অপরাজিত থাকেন তিনি।

জিম্বাবুয়ে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে স্কোরবোর্ডে তোলে ২৭৮ রান। পাকিস্তানের পক্ষে ২৬ রান খরচে ৫ উইকেট নেন মোহাম্মদ হাসনাইন।

২৭৯ রানের জয়ের লক্ষ্যে খেলতে নেমে শুরুটা ভাল হয়নি পাকিস্তানের। স্কোরবোর্ডে ৮৮ রান যোগ হতে না হতেই সাজঘরে ফেরেন ৫ ব্যাটসম্যান। অভিষিক্ত খুশদিল শাহর সঙ্গে ৬৩ রানের জুটি গড়ে প্রাথমিক বিপর্যয় সামলান পাকিস্তান দলপতি বাবর আজম। খুশদিল শাহ ৩৩ রান করে ফিরলে ভাঙে জুটি।

এরপর ওয়াহাব রিয়াজকে নিয়ে ৭ম উইকেটে ঠিক ১০০ রান যোগ করেন বাবর। ৫৬ বলে ৩ টি করে চার ও ছক্কায় ৫২ রান করে ওয়াহাব রিয়াজ আউট হলে ম্যাচে ফেরে জিম্বাবুয়ে। সেঞ্চুরি পূর্ণ করা বাবর আজম যখন ৯ম ব্যাটসম্যান হিসাবে আউট হন দলের তখনো দরকার ৬ বলে ১৩ রান।

লেজের দিকের দুই ব্যাটসম্যান মুসা খান ও মোহাম্মদ হাসনাইন করতে পারেন ১২ রান। ম্যাচ টাই হলে গড়ায় সুপার ওভারে।

সুপার ওভারে ব্লেসিং মুজারাবানির করা প্রথম ৪ বলে মাত্র ২ রান করে ইফতিখার আহমেদ ও খুশদিল শাহর উইকেট হারায় পাকিস্তান। শাহীন শাহ আফ্রিদির করা সুপার ওভারে ৩ বলেই প্রয়োজনীয় রান তুলে নেন ব্রেন্ডন টেইলর ও সিকান্দার রাজা।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

জিম্বাবুয়ে ২৭৮/৬ (৫০), চারি ৯, চিবাবা ০, আরভিন ১, টেইলর ৫৬, উইলিয়ামস ১১৮*, মাধেব্রে ৩৩, সিকান্দার ৪৫, টিরিপানো ১*; হাসনাইন ১০-৩-২৬-৫, ওয়াহাব ১০-০-৬৫-১

পাকিস্তান ২৭৮/৯ (৫০), ইমাম ৪, ফখর ২, বাবর ১২৫, হায়দার ১৩, রিজওয়ান ১০, ইফতিখার ১৮, খুশদিল ৩৩, ওয়াহাব ৫২, শাহীন শাহ ২, মুসা ৯*, হাসনাইন ৩*; মুজারাবানি ১০-১-৪৯-৫, গারাভা ৯-০-৬২-২, টিরিপানো ৭-০-৩৯-২

ফলাফলঃ ম্যাচ টাই, সুপার ওভারে জিম্বাবুয়ে জয়ী।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

ইংল্যান্ডের ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি স্কোয়াড ঘোষণা

Read Next

ইয়ো ইয়ো টেস্ট, তামিমের গুরু সান্নিধ্য ও তাদের ফেরার মিশন

Total
29
Share