নাটকের গানে কণ্ঠ দিলেন প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটার সাজ্জাদ

নাটকের গানে কণ্ঠ দিলেন প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটার সাজ্জাদ
Vinkmag ad

ক্রিকেটারদের সঙ্গীত পারদর্শীর্তার গল্প নতুন কিছু নয়। কিংবদন্তী ডন ব্র্যাডম্যান থেকে ব্রেট লি, সঞ্জয় মঞ্জরেকার, মার্ক বুচার কিংবা হালের ডোয়াইন ব্রাভো, সুরেশ রায়না, এবি ডি ভিলিয়ার্স রা যার অন্যতম উদাহরণ।

বাংলাদেশের সাবেক ক্রিকেটার ওমর খালদ রুমিতো দুই ভূমিকাতেই নিজেকে সর্বোচ্চ পর্যায়ে নিয়ে যান। দেশের হয়ে আইসিসি ট্রফি খেলা এই ক্রিকেটার আন্ডারগ্রাউন্ড পিচ লাভার (ইউপিএল) নামে ব্যান্ড গঠন করেন। ক্রিকেট পরবর্তী সঙ্গীত ক্যারিয়ারে নিজেকে করেছেন বেশ প্রতিষ্ঠিত।

সঙ্গীত চর্চা না করলেও অবসরে গান শোনা কিংবা গেয়ে থাকেন প্রায় সব ক্রিকেটারই। তবে শখ ও গানের প্রতি ভালোবাসা থেকে শুরু করে এবার নাটকের জন্য তৈরি গানেই কণ্ঠ দিলেন ক্রিকেটার ইফতেখার সাজ্জাদ রনি। প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটের পাশাপাশি ঘরোয়া ক্রিকেটের নিয়মিত মুখ এই অলরাউন্ডার। স্থগিত হওয়া চলতি বছরের ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগেও (ডিপিএল) সুযোগ পেয়েছেন শাইনপুকুর ক্রিকেট ক্লাবের হয়ে।

তবে করোনা প্রভাবে ফাঁকা সময়ে নিজের সঙ্গীত প্রতিভাকে কাজে লাগালেন বেশ ভালোভাবেই। চট্টগ্রামের সঙ্গীতাঙ্গনের জনপ্রিয় মুখ পিরান খানের পরিচালনায় ‘অজস্র রাত’ ও মনির উদ্দিনের পরিচালনায় ‘নীলে নীলে’ নামে গান দুটিতেও কণ্ঠ দিয়েছেন।

এছাড়া ইউটিউবে প্রকাশিত তার বেশ কিছু জনপ্রিয় গানের কাভারও জানান দেয় তার সঙ্গীত প্রতিভার। তবে পরিচালক শেখ নাজমুল হুদা ইমনের টেলিছবি ‘সে তো এলো না’ তে ‘যখন আকাশ আধারে ডুবে যায়’ গানটিতে কণ্ঠ দিয়ে আলোচনায় রনি।

আগামী ৩০ অক্টোবর ‘চ্যানেল আই’ তে দুপুর তিনটায় প্রচারিত হবে টেলি ছবিটি। এই ক্রিকেটারের গানে কণ্ঠ দেওয়ার পেছনেও আছেন আরেক ক্রিকেটার। প্রথম বিভাগ ক্রিকেট খেলা ক্রিকেটার ইমরুল করিমের বন্ধু নাট্য নির্মাতা শেখ নাজমুল হুদা ইমন।

এ প্রসঙ্গে ‘ক্রিকেট৯৭’ কে রনি বলেন, ‘ক্রিকেটের অবসরে একেকজন একেকভাবে সময় কাটায়। আমি গান ভালোবাসি, অবসরে গান গাই, গান শুনেই সময় কাটে।’

‘ইমরুল (করিম) ভাই ইমন (নাজমুল হুদা) ভাইকে বলেছে আমার কথা। আমার গান শুনে তার ভালো লাগে। কিছুদিন আগে উনি প্রস্তাব দেয় আমাকে আর স্ক্রিপ্ট পাঠায় যেন এটার উপর ভিত্তি করে গান বানাতে পারি। এরপর আমি মনির উদ্দিন (চট্টগ্রামের সঙ্গীত ব্যক্তিত্ব) ভাইকে নিয়ে কাজ শুরু করি। মনির ভাই লিরিক লিখে, সুর, কম্পোজ সবই উনার। আমি কণ্ঠ দিয়েছি।’

টেলি ছবিতে প্রথম কণ্ঠ দিয়েই অবশ্য থেমে নেই রনি, ইতোমধ্যে পেয়েছেন আরও কিছু কাজের প্রস্তাব। আগামী ভালোবাসা দিবসেও তার কন্ঠ দেওয়া গান প্রকাশিত হতে যাচ্ছে বলেও জানান এই অলরাউন্ডার। তবে সবকিছুর উর্ধ্বে থাকছে ক্রিকেটই, করোনা বাধা দূরে সরিয়ে ব্যক্তিগত অনুশীলনের পর স্থানীয় ক্রিকেট ক্লাবে চালিয়ে যাচ্ছেন মাঠে ফেরার কার্যক্রম। শাইনপুকুর ক্রিকেট ক্লাবের ট্রেনারের নির্দেশনা মেনে করছেন ফিটনেস উন্নতির কাজ।

২৫ টি প্রথম শ্রেণি ও ২৯ টি লিস্ট ‘এ’ ম্যাচ খেলা ইফতেখার সাজ্জাদ রনি বলেন, ‘ক্রিকেটই আমার পেশা, ধ্যান, জ্ঞান। মাঝে চোটের কারণে একটা বিরতি পড়ে, চট্টগ্রাম বিভাগে সুযোগ না হওয়ায় আমি রাজশাহী বিভাগের হয়ে খেলেছি জাতীয় ক্রিকেট লিগের (এনসিএলের) গত মৌসুম। এবার শাইনপুকুর ক্রিকেট ক্লাবের হয়ে ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগে (ডিপিএল) নাম লিখিয়েছি। কিন্তু করোনায় স্থগিত হওয়ায় আবার বিরতি পড়েছে।’

‘তিন মাস আগে থেকেই আমি অনুশীলন শুরু করেছি। প্রথম দিকে ব্যক্তিগতভাব করলেও এখন কিছু একাডেমির সাথে করছি। আমাদের ট্রেনারের (শাইনপুকুর ক্লাবের) সাথে যোগাযোগ হয়, উনি আমাকে রানিং সহ অন্যান্য দিক নির্দেশনা দিচ্ছেন।’

নাজমুল হাসান তারেক

Read Previous

ভারতের টি-টোয়েন্টি দলে বরুণ, তিন ফরম্যাটেই নেই রোহিত শর্মা

Read Next

গেইল ঝড়ে কোলকাতাকে হারাল পাঞ্জাব

Total
20
Share