তাসকিনদের নিয়ে থাকা সন্দেহ ভেঙেছে বিসিবি সভাপতির

তাসকিনদের নিয়ে থাকা সন্দেহ ভেঙেছে বিসিবি সভাপতির

লম্বা বিরতির পর বিসিবি প্রেসিডেন্টস কাপ ওয়ানডে টুর্নামেন্ট দিয়ে প্রতিযোগিতামূলক ক্রিকেটে ফিরেছে বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা। যেখানে পারফরম্যান্সের চাইতে তাদের মাঠে ফেরাতে পেরেই সন্তুষ্ট বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। তবে টুর্নামেন্ট জুড়ে পেসারদের আধিপত্য ছিল নজর কাড়া, তরুণদের সাথে সিনিয়রদের দুই একজনও পারফর্ম করেছেন। তাদের ভূয়সী প্রশংসা করে ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতায় কষ্ট পেলেও শঙ্কিত নন বলে জানিয়েছেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন।

নাজমুল একাদশের বিপক্ষে ৭ উইকেটে জয়ের মাধ্যমে শিরোপা জয় করে মাহমুদউল্লাহ একাদশ। টুর্নামেন্টের পর্দা নামার দিনে গণমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে বেশ কিছু ক্রিকেটারের আলাদা করে প্রশংসা করেছেন বিসিবি বস। বিশেষ করে বদলে যাওয়া পেসার তাসকিন আহমেদ যেভাবে ফিরে এসেছেন তাতে বেশ মুগ্ধ নাজমুল হাসান পাপন। তাসকিন, রুবেলদের ফিরে আসা নিয়ে শঙ্কায় ছিলেন পাপন, তবে সেই ভুল ভেঙেছে তাদের পারফরম্যান্সে।

উইকেটে শিকারের সাথে পেসারদের নিয়ন্ত্রিত বোলিং ছিল বাড়তি কিছু। শুরু থেকেই ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থ হওয়া নিয়মিত ঘটনা। তবে এর মাঝেও নাজমুল একাদশের মুশফিকুর রহিম, ইরফান শুক্কুর, আফিফ হোসেন ধ্রুব, তামিম একাদশের শেখ মেহেদী হাসানরা খেলেছেন দারুণ কিছু ইনিংস। বিশেষ করে ইরফান শুক্কুর তো রান করেছেন ধারাবাহিকভাবে। বিসিবি সভাপতি মনে করেন এতে দল নির্বাচন কঠিন হয়ে যাবে, আর এমন চ্যালেঞ্জই চান তারা।

নাজমুল হাসান পাপন বলেন, ‘সবচেয়ে ভাল লেগেছে তাসকিন যেভাবে ফিরেছে। একটা সময় ভেবেছিলাম ও হয়ত আর জাতীয় দলে ফিরবেই না। কিন্তু ও খুব ভালোভাবে কামব্যাক করেছে। রুবেল, যাকে নিয়ে আমরা কী করব ভাবছি, কতদিন খেলবে কি খেলবে না, দলে সুযোগ পাবে কী পাবেনা চিন্তা করছি। রুবেল দারুণ বল করেছে। শুধু তাই না সুমন খান নতুন ছেলে দেখছি। এবাদত ভালো করেছে, আল-আমিন ভালো করেছে। বেশ কিছু খেলোয়াড় নিয়ে আমাদের যে সন্দেহ ছিল তা ভেঙে গেছে। তারা ফিরেছে।’

‘ব্যাটিংয়ে যদি দেখেন। ইরফান শুক্কুর ধারাবাহিকভাবে রান করেছে। সব ম্যাচে খুব চাপের মধ্যে সে এসে পারফর্ম করেছে। আরেকটা ছেলেকে দেওয়া হয়েছে তৌহিদ হৃদয়। ও হয়ত আহামরি কিছু করেনি। কিন্তু জুটিতে থেকেছে। মুশফিকের সাথে বলেন, ইরফানের সাথে বলেন সাপোর্ট দিয়ে গেছে। শেখ মেহেদী হাসান, ওকে আগে থেকেই চিনি। অলরাউন্ডার হিসেবে ওর ভালো সম্ভাবনা আছে। ব্যাটিংও করে, বলও ভালো করে।’

‘আরও আছে, এরকম বলতেই থাকতে পারি। এই ছেলেগুলোর কথা চিন্তা করে বলতে পারি প্লেয়ার নাই বলতে পারব না। আজকে উপরে এসেই বলছিলাম নির্বাচকদের, এখন দল নির্বাচন করে কীভাবে সেটা দেখতে চাই। ওদের সেরা একাদশ কি হয়। কারণ এটা অনেক বড় চ্যালেঞ্জ। আর এই চ্যালেঞ্জটা, সমস্যাটা কিন্তু ভালো সমস্যা। আমরা এরকমই চাই। পেস বোলিং আমাদের বড় দুর্বলতা ছিল। এই প্রথম একটা টুর্নামেন্ট দেখলাম যেখানে পেসাররা ডমিনেট করেছে, সবাই ভালো বল করেছে। শরিফুল ভালো করেছে।’

তরুণদের এখনই জাতীয় দলে সুযোগ না হলেও বিসিবির তত্বাবধানে থেকে নিজেকে মেলে ধরার সুযোগ হবে অন্তত সেই আভাস দিলেন নাজমুল হাসান পাপন, ‘তারা এখনই জাতীয় দলে আসবে তা না । তারা সম্ভাবনাময় ওদেরকে যদি নার্চার করতে পারি তাহলে পেস বোলিংয়ে ভালো সম্ভাবনা আছে। আমাদের ভালো যারা আছে তো আছেই। নতুন আরও কিছু পেয়েছি। ‘

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

স্যাম কারেনের চশমা নিয়ে টুইটারে হাস্যরস

Read Next

ড্যানিয়েল ভেট্টোরি, ব্যাটিং পরামর্শকের আপডেট

Total
3
Share