স্টোকসের দাপুটে শতকে রাজস্থানের সহজ জয়

স্টোকসের দাপুটে শতকে রাজস্থানের সহজ জয়
Vinkmag ad

দলে যখন বেন স্টোকসের মত অলরাউন্ডার থাকে, তখন দল বিশাল লক্ষ্য অতিক্রম করায় ভরসা রাখতেই পারে। সেই কাজের কাজটিই করলেন স্টোকস। স্টোকসের অনবদ্য সেঞ্চুরির সাথে স্যামসনের চৌকষ ব্যাটিংয়ে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সকে ৮ উইকেটে হারালো রাজস্থান রয়্যালস।

আবুধাবির শেখ জায়েদ স্টেডিয়ামে টসে জিতে প্রথমে ব্যাটিং করার সিদ্ধান্ত নেন মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের অধিনায়ক কাইরন পোলার্ড। আজও হ্যামস্ট্রিং ইনজুরির কারণে খেলতে পারেননি নিয়মিত অধিনায়ক রোহিত শর্মা। ফলে মুম্বাইয়ের হয়ে কুইন্টন ডি ককের সাথে আবারও ওপেনিংয়ে নামেন ইশান কিশান।

১ম ওভারের ৪র্থ বলে রয়্যালসের জফরা আর্চারকে মিড উইকেট দিয়ে হাঁকান ডি কক। কিন্তু আর্চারের পরের বলেই বোল্ড হয়ে যান তিনি। এরপর ইশান কিশানের সাথে ব্যাটিং করতে আসেন সুরিয়াকুমার যাদব। এ দুইজন চমৎকার ব্যাটিং করে ২য় উইকেট জুটিতে ৮৩ রান যোগ করে দলের ভীত শক্ত করেন। কার্তিক তিয়াগির বাউন্সারকে থার্ড ম্যানের উপর দিয়ে ছক্কা হাঁকাতে গিয়ে আর্চারের এক হাতের দুর্দান্ত ক্যাচের শিকার হন ইশান কিশান। আউট হওয়ার আগে ৩৭ রান করেন তিনি।

এক ওভার পরে সুরিয়াকুমার ব্যক্তিগত ৪০ রানে বিদায় নেন। ক্রিজে নেমে শ্রেয়াস গোপালকে ছক্কা মারার পর ঐ ওভারের শেষ বলে বোল্ড হয়ে যান অধিনায়ক পোলার্ড। ৯০ রানে ১ উইকেট থেকে ১০১ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে কিছুটা বিপদে পড়ে মুম্বাই। তবে সেখান থেকে ৫ম উইকেট জুটিতে ৬৪ রান যোগ করেন সৌরভ তিওয়ারি এবং হার্দিক পান্ডিয়া।

তিওয়ারি ৩৪ রান আউট হলেও হার্দিকের ঝড়ো ব্যাটিং চলতে থাকে। তিয়াগির শেষ ওভারে ২৭ রান নেন হার্দিক এবং আইপিএলে নিজের ৪র্থ অর্ধশতরানও তুলে নেন। শেষ পর্যন্ত ২০ ওভার শেষে ৫ উইকেট হারিয়ে ১৯৫ রানের চমৎকার স্কোর দাঁড় করায় মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স। ২টি চার ও ৭টি বিশাল ছক্কার সাহায্যে মাত্র ২১ বলে ৬০ রানে অপরাজিত থাকেন হার্দিক পান্ডিয়া। রয়্যালসের হয়ে আর্চার ও গোপাল ২টি করে উইকেট নেন।

 

View this post on Instagram

 

🔥🔥🔥 #RRvMI #Dream11IPL #IPL2020

A post shared by cricket97 (@cricket97bd) on

১৯৬ রানের লক্ষ্যে রাজস্থান রয়্যালসের হয়ে ব্যাট করতে নামেন দুই ওপেনার রবিন উথাপ্পা এবং বেন স্টোকস। স্টোকসকে কোন স্ট্রাইক না দিয়ে ১ম ১১ বল মোকাবেলা করে ১৩ রান নিয়ে জেমস প্যাটিনসনের শিকার হন উথাপ্পা। এরপর স্মিথের সাথে ২য় উইকেটে ৩৩ রানের জুটি গড়েন স্টোকস। স্মিথ ১১ রান করে প্যাটিনসনের বোলে বোল্ড হন।

৪৪ রানে ২ উইকেট হারানোর পর ক্রিজে আসেন সাঞ্জু স্যামসন। স্টোকস-স্যামসন বামহাতি-ডানহাতি কম্বিনেশনে দুর্দান্ত খেলতে থাকেন। দুইজনের ব্যাটেই বাউন্ডারি-ওভার বাউন্ডারি ফুলঝুরি ছুটতে থাকে। স্যামসন প্রথম দিকে কিছুটা নড়বড়ে থাকলেও সময়ের সাথে নিজের ব্যাটিং প্রতিভা ফুটিয়ে তোলেন।

অন্যদিকে প্রথম থেকে আক্রমণাত্নক মনোভাব নিয়ে ব্যাটিং করতে থাকেন স্টোকস। অসাধারণ ব্যাটিং করে আইপিএলে নিজের ২য় সেঞ্চুরি তুলে নেন, স্যামসনও তুলে নেন অর্ধশতরান। এই দুইজন ৩য় উইকেটে অবিচ্ছিন্ন থেকে ১৫২ রানের জুটি গড়েন। প্যাটিনসনকে মিড উইকেট দিয়ে ছক্কা হাঁকিয়ে শতরান পূর্ণ করার পর পরের বলে ডিপ কাভার দিয়ে চার মেরে জয়সূচক রান তুলে নেন স্টোকস।

 

View this post on Instagram

 

Career best innings in T20s for Ben Stokes What a knock! 🔥🔥🔥 #RRvMI #Dream11IPL #IPL2020

A post shared by cricket97 (@cricket97bd) on

১০ বল বাকি থাকতে মাত্র ২ উইকেট হারিয়ে লক্ষ্যে পৌঁছে যায় রাজস্থান রয়্যালস। ৬০ বলে ১৪টি চার ও ৩টি ছক্কার সহায়তায় ১০৭ রানে অপরাজিত থাকেন স্টোকস। অন্যদিকে ৩১ বলে ৪টি চার ও ৩টি ছক্কার সাহায্যে ৫৪ রানে অপরাজিত থাকেন স্যামসন। মুম্বাইয়ের পক্ষে ২টি উইকেটই নেন প্যাটিনসন।

ম্যাচ জয়ী অসাধারণ সেঞ্চুরি উপহার দেওয়ার জন্য ম্যাচ সেরা হন বেন স্টোকস।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সঃ ১৯৫/৫ (২০ ওভার), হার্দিক ৬০*, সুরিয়াকুমার ৪০, ইশান কিশান ৩৭; গোপাল ২/৩০, আর্চার ২/৩১

রাজস্থান রয়্যালসঃ ১৯৬/২ (১৮.২ ওভার), স্টোকস ১০৭*, স্যামসন ৫৪*, উথাপ্পা ১৩; প্যাটিনসন ২/৪০

ফলাফলঃ রাজস্থান রয়্যালস ৮ উইকেটে জয়ী

ম্যাচ সেরাঃ বেন স্টোকস (রাজস্থান রয়্যালস)।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

সাকিব কবে দেশে ফিরবেন জানালেন বিসিবি সভাপতি

Read Next

টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টের বৃত্তান্ত জানালেন বিসিবি সভাপতি

Total
3
Share