দিল্লিকে পাত্তা না দিয়ে হারাল কোলকাতা

দিল্লিকে পাত্তা না দিয়ে হারাল কোলকাতা
Vinkmag ad

ব্যাটে-বলে সমান দাপট দেখিয়ে দিল্লি ক্যাপিটালসকে ৫৯ রানে হারিয়েছে কোলকাতা নাইট রাইডার্স (কেকেআর)। নিতিশ রানা ও সুনীল নারাইনের অনবদ্য ব্যাটিংয়ের পর বরুণ চক্রবর্তী ও প্যাট কামিন্সের বুদ্ধিদীপ্ত বোলিংয়ে বড় জয় পায় কোলকাতা।

আবুধাবির শেখ জায়েদ স্টেডিয়ামে টসে জিতে প্রথমে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন দিল্লি ক্যাপিটালসের অধিনায়ক শ্রেয়াস আইয়ার। কোলকাতা নাইট রাইডার্সের (কেকেআর) হয়ে প্রথমে ব্যাট করতে আসেন শুবমান গিল এবং নিতিশ রানা। ডানহাতি-বামহাতি কম্বিনেশনে শুরুটা অবশ্য ভালো হয়নি। দিল্লির তুষার দেশপাণ্ডেকে ১ম ওভারে ২টি চার হাঁকালেও ২য় ওভারে আনরিখ নরকিয়ার বলে আউট হন গিল।

এরপর ২য় উইকেটে রাহুল ত্রিপাঠির সাথে ২৪ রানের জুটি গড়েন রানা। ত্রিপাঠিকে বোল্ড করে দিল্লির পক্ষে আবারও ব্রেকথ্রু এনে দেন নরকিয়া। চারে নেমে দীনেশ কার্তিকও মাত্র ৩ রান করে সাজঘরে ফেরেন। ৪২ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে কিছুটা বিপদে পড়ে কেকেআর।

এরপর সুনীল নারাইন-নিতিশ রানা ৪র্থ উইকেট জুটিতে ১১৫ রান যোগ করে কেকেআরকে বড় স্কোরের ভিত্তি গড়ে দেন। মাত্র ২৪ বলে ফিফটি করা নারাইন ৬টি চার ও ৪টি ছক্কার সাহায্যে ৬৪ রানের দুর্দান্ত ইনিংস খেলে কাগিসো রাবাদার বলে আউট হয়ে যান। নিতিশ রানা একপ্রান্ত ধরে তার স্বভাবসুলভ ব্যাটিং প্রদর্শনী চালিয়ে যান। মার্কাস স্টয়নিসের বলে আউট হওয়ার আগে ৫৩ বলে ১৩টি চার ও ১টি ছক্কার সাহায্যে ৮১ রানের অসাধারণ ইনিংস খেলেন।


ইনিংসের শেষ বলে অধিনায়ক কেকেআরের অধিনায়ক এউইন মরগানকে আউট করেন স্টয়নিস। শেষ পর্যন্ত ২০ ওভার শেষে ৬ উইকেট হারিয়ে ১৯৪ রানের বিশাল স্কোর দাঁড় করায় কেকেআর। দিল্লির পক্ষে নরকিয়া, রাবাদা এবং স্টয়নিস ২টি করে উইকেট নেন।

১৯৫ রানের লক্ষ্যে দিল্লি ব্যাট করতে নামে। ১ম বলেই দিল্লির ওপেনার আজিঙ্কা রাহানেকে এলবিডব্লিউর ফাঁদে ফেলেন কেকেআরের প্যাট কামিন্স। নিজের ২য় ওভারে আগের দুই ম্যাচে ব্যাক টু ব্যাক সেঞ্চুরি করা শিখর ধাওয়ানকে সরাসরি বোল্ড করেন কামিন্স।

এরপর দলের হাল ধরেন অধিনায়ক শ্রেয়াস এবং রিশাব পান্ট। এ দুইজন ৩য় উইকেট জুটিতে স্কোরবোর্ডে ৬৩ রান যোগ করেন। পান্টকে ২৭ রানে আউট করার মধ্য দিয়ে শুরু হয় বরুণ চক্রবর্তী শো। দলীয় ৯৫ রানের মাথায় পরপর দুই বলে শিমরন হেটমেয়ার এবং অধিনায়ককে শ্রেয়াসকে বিদায় করে কেকেআরের জয়ের রাস্তা প্রশস্ত করেন বরুণ।

স্টয়নিস মাত্র ৬ রান করে বরুণের বলে বিদায় নেন। একই ওভারে আক্সার প্যাটেলকে সরাসরি বোল্ড করে প্রথমবারের মত আইপিএলে ফাইফার তুলে নেন বরুণ। শেষদিকে রাবাদা ও রবিচন্দ্রন অশ্বিনের ব্যাটিংয়ে পরাজয়ের ব্যবধান কিছুটা কমে।

২০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে ১৩৫ রানে দিল্লির ইনিংস থামলে ৫৯ রানের বড় জয় পায় কেকেআর। শ্রেয়াস সর্বোচ্চ ৪৭ রান করেন। কেকেআরের পক্ষে বরুণ ৪ ওভারে মাত্র ২০ রান দিয়ে ৫ উইকেট শিকার করে নেন। কামিন্স ৩টি উইকেট নেন।

দাপুটে বোলিং পারফরম্যান্সের জন্য ম্যাচ সেরা হন কেকেআরের বরুণ চক্রবর্তী।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

কোলকাতা নাইট রাইডার্সঃ ১৯৪/৬ (২০ ওভার), নিতিশ রানা ৮১, নারাইন ৬৪; নরকিয়া ২/২৭, রাবাদা ২/৩৩

দিল্লি ক্যাপিটালসঃ ১৩৫/৯ (২০ ওভার), শ্রেয়াস ৪৭, পান্ট ২৭; বরুণ ৫/২০, কামিন্স ৩/১৭

ফলাফলঃ কোলকাতা নাইট রাইডার্স ৫৯ রানে জয়ী

ম্যাচ সেরাঃ বরুণ চক্রবর্তী (কোলকাতা নাইট রাইডার্স)।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

তামিমদের হয়ে ব্যাট করলেন রুবেল

Read Next

ফিট মুশফিক গ্লাভস হাতে অনিশ্চিত

Total
3
Share