বাটলারের প্রশংসায় পঞ্চমুখ স্মিথ

বাটলারের ব্যাটে চড়ে চেন্নাইকে তলানিতে নামাল রাজস্থান
Vinkmag ad

বাটলার উইকেটে এসে যখন ব্যাটিং শো শুরু করলেন জয়ের স্বপ্ন দেখা সুপার কিংস’রা হঠাত করেই যেন নিজেদের শক্তি হারিয়ে ফেলে। কঠিন উইকেটে সাবলীলভাবে খেলে দারুণ এক ইনিংস উপহার দেন জস বাটলার। ইংলিশ তারকার ব্যাটে চড়েই চেন্নাই সুপার কিংসকে সহজে হারিয়েছে রাজস্থান রয়্যালস। এমন দুর্দান্ত বাটলারের বন্দনায় মেতেছেন অধিনায়ক স্টিভ স্মিথও।

রাজস্থান রয়্যালসের ইনিংসের পঞ্চম ওভারে তৃতীয় ব্যাটসম্যান হিসেবে সাঞ্জু স্যামসন আউট হলে উইকেটে আসেন জস বাটলার। তখন ক্রিজের অপর প্রান্তে স্টিভ স্মিথ। চেন্নাইয়ের দীপক চাহার আর জশ হ্যাজলউড বারবার পরাস্থ করার চেষ্টা করছেন, বিভিন্ন লাইনে বল ছাড়ছেন।

এমন মন্থর উইকেটে স্মিথ বাউন্ডারির দেখা পেলেন নিজের খেলা ২২ নম্বর বলে। রান তুলতে ধুঁকছিলেন ব্যাটসম্যানরা। স্রোতের বিপরীতে ছিলেন কেবল জস বাটলার। এমন কঠিন উইকেটে সাবলীলভাবে খেলে সেখানে বাটলার ৮ নম্বর বলেই বাউন্ডারি হাঁকান।

রবীন্দ্র জাদেজাকে বাউন্ডারি মারার পরে আবার বল হাতে জশ হ্যাজলউড। বাটলার থামেননি, অফ স্টাম্পের অর্ধেক উপরে থাকা বল তিনি ওভার মিডঅন দিয়ে বাউন্ডারি সীমানায় পাঠালেন। বাটলার যখন শো শুরু করলেন, চেন্নাই সুপার কিংসের ক্রিকেটারদের থেকে মারাত্মকভাবে নিখোঁজ হয়ে গেল: শক্তি, অভিপ্রায়, উদ্ভাবন ও স্পষ্টতা।

২৮ রানে ৩ উইকেট তুলে নিয়ে জয়ের স্বপ্ন দেখতে থাকা চেন্নাইকে বাস্তবের জমিনে নামিয়ে আনেন জস বাটলার ও স্টিভ স্মিথ।

এদিন মন্থর উইকেটে ৪৮ বলে ৭০ রানের ইনিংস খেলে রাজস্থান রয়্যালসকে জিতিয়েছেন জস বাটলার। আর অধিনায়ক স্মিথ ৩৪ বলে ২৬ রান করেন। বাটলারের ইনিংসের ব্যাপারে কথা বলতে গিয়ে স্মিথ আগে বলেন,

“বাটলার আমার উপর চাপ আসতে দেয়নি। আমি স্রেফ ক্রিজে টিকে ছিলাম। আর ও তেমনই ব্যাটিং করেছে যেমনটা ও স্বাভাবিকভাবে করে থাকে। ও সবসময়ই একটা ভাল স্ট্রাইক রেট বজায় রাখে।”

চেন্নাইয়ের বিরুদ্ধে জয়ের পর ভার্চুয়াল প্রেস কনফারেন্সে অনবদ্য ইনিংস খেলা জস বাটলার সম্পর্কে রাজস্থান অধিনায়ক স্টিভ স্মিথ বলেন,

“আমি মনে করি জস বাটলার সত্যিই ইতিবাচক মানসিকতা নিয়ে ইনিংস শুরু করতে এসেছিলেন। এবং তার দারুন শটগুলো এই খেলাটা সহজ করে দিয়েছে। তিনি বলগুলো দুর্দান্ত এবং শক্তভাবে আঘাত করেছিলেন। অন্য প্রান্তে থাকা আমার পক্ষে উইকেটে থাকা আরও সহজ হয়েছে। এবং এ কারণেই আমি আমার ইনিংসে নিজের শতভাগ দিতে সক্ষম হয়েছি।”

অবশ্যই, চেন্নাইয়ের বিপক্ষে জস বাটলার দারুণ এক ইনিংস খেলে সবাইকে আবারও মনে করিয়ে দিলেন যে তিনি মিডল অর্ডারে একজন শর্ট-গান। বড় টার্গেটের ফিনিশিং কিকের জন্য বাটলার এক অনবদ্য ব্যাটসম্যান। রাজস্থানের হয়ে এবারের আসরের শুরুতে ওপেনিং করলেও বাটলারকে মিডল অর্ডারে খেলিয়ে সুবিধা পাচ্ছেন রয়্যালস কোচ অ্যান্ড্রু ম্যাকডোনাল্ড।

মিডল অর্ডারে জস বাটলার কেমন ব্যাট হাতে আচরণ করেন? স্মিথ বাটলারের সামর্থ্য বোঝাতে উদাহরণ এনেছেন বিধ্বংসী ডি ভিলিয়ার্স, কাইরন পোলার্ডকে।

“আমি শুনেছি জস টপে ব্যাটিং করতে বেশ পছন্দ করে। জস স্পষ্টতই টপ-অর্ডারের একজন অবিশ্বাস্য খেলোয়াড়। তবে আমি এও বিশ্বাস করি যে তিনি এবি ডি ভিলিয়ার্স, পোলার্ড এবং হার্দিক পান্ডিয়াদের মতো ইনিংস শেষ করে আসার ক্ষমতা রাখেন। এধরণের ক্রিকেটাররা ম্যাচ জিতিয়ে আনতে পারে, যথেষ্ট দক্ষতাসম্পন্ন তারা। তবে তাদের কাজটি মোটেও সহজ নয়।”

রাকিবুল হাসান

Read Previous

তামিমদের বিদায় করে দিয়ে ফাইনালে নাজমুল একাদশ

Read Next

আইপিএল থেকে ছিটকে গেলেন ব্রাভো

Total
1
Share