দল হারলেও ম্যাচসেরা রেকর্ড গড়া ধাওয়ান

দল হারলেও ম্যাচসেরা রেকর্ড গড়া ধাওয়ান
Vinkmag ad

শিখর ধাওয়ানের ব্যাক টু ব্যাক সেঞ্চুরি সত্ত্বেও পরাজয় বরণ করতে হলো দিল্লি ক্যাপিটালসকে। নিকোলাস পুরানের ঝড়ো ফিফটির সুবাদে দিল্লি ক্যাপিটালসের বিপক্ষে ৫ উইকেটের জয় পায় কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব।

দুবাই স্টেডিয়ামে টসে জিতে প্রথমে ব্যাটিং নেন দিল্লির অধিনায়ক শ্রেয়াস আইয়ার। শুরু থেকেই শিখর ধাওয়ান সাবলীল ব্যাটিং করতে থাকেন। অন্যদিকে চলমান রানের খরা থেকে বের হতে পারেন নি অপর ওপেনার পৃথ্বী শ, এদিন মাত্র ৭ রান করে পাঞ্জাবের নিশামের বলে আউট হন।

২য় উইকেটে শ্রেয়াসকে সাথে নিয়ে দলের রানের গতি বাড়াতে থাকেন ধাওয়ান। ৪৮ রানের জুটিতে শ্রেয়াসের অবদান মাত্র ১৪। শ্রেয়াস আউট হওয়ার পর রিশাব পান্ট, মার্কাস স্টয়নিস কিংবা শিমরন হেটমেয়ার নামলেও কেউই ইনিংস বড় করতে পারেননি। একদিকে ধাওয়ান একাই লড়ে যান। ১৯ তম ওভারে শতরানে পৌঁছান ধাওয়ান। শেষ পর্যন্ত ৬১ বলে ১২টি চার ও ৩টি ছক্কার সাহায্যে ১০৬ রানে অপরাজিত থাকেন শিখর ধাওয়ান। আইপিএল ইতিহাসে ধাওয়ানই প্রথম যিনি কিনা টানা দুই ম্যাচে সেঞ্চুরি করেছেন।

 

View this post on Instagram

 

First player to have consecutive centuries in IPL. #KXIPvDC #Dream11IPL #ipl2020

A post shared by cricket97 (@cricket97bd) on

অন্যদিকে যোগ্য সমর্থনের অভাবে ২০ ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে ১৬৪ রানের বেশি করতে পারেনি দিল্লি ক্যাপিটালস। কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের পক্ষে মোহাম্মদ শামি ২টি উইকেট নেন।

১৬৫ রানের জবাবে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের পক্ষে ব্যাট করতে নামেন দুই ইনফর্ম ওপেনার অধিনায়ক লোকেশ রাহুল এবং মায়াঙ্ক আগারওয়াল। তবে এদিন রাহুল মাত্র ১৫ রান করে দিল্লির আক্সার প্যাটেলের বলে আউট হলে ১ম উইকেটের পতন হয়। এরপর শুরু হয় ক্রিস গেইল শো। গেইলের ২টি করে চার ও ছক্কার মারে পাওয়ারপ্লেতে ৫০ রান পার করে ফেলে পাঞ্জাব।

১৩ বলে ২৯ রান করে রবিচন্দ্রন অশ্বিনের বলে বোল্ড হন গেইল। ওপেনিংয়ে নেমে মাত্র ৯ বলে ৫ রান করা আগারওয়াল ৬ষ্ঠ ওভারে নিকোলাস পুরানের সাথে ভুল বোজাবুঝিতে রান আউটের শিকার হন। এরপর দলের হাল ধরেন পুরান ও গ্লেন ম্যাক্সওয়েল। পুরান তার স্বভাবসুলভ মারমুখী ব্যাটিং প্রদর্শন করেন দুবাই স্টেডিয়ামে।চার-ছক্কার ফুলঝুরি ছুটতে থাকে। অন্যপ্রান্তে স্ট্রাইক রোটেট করে পুরানকে যোগ্য সহায়তা দেন ম্যাক্সওয়েল।

২৭ বলে অর্ধশত রান পূর্ণ করে ফেলেন পুরান। অর্ধশত রান করার পরের বলে কাগিসো রাবাদার লাফিয়ে উঠা বল গ্লাভসে লেগে রিশাব পান্টের হাতে ধরা পড়েন তিনি। গ্লেন ম্যাক্সওয়েল দায়িত্বশীল ব্যাটিং করতে থাকেন। জয় থেকে ২০ রান দূরে থাকতে ম্যাক্সওয়েলও বিদায় নেন। বাকি পথটুকু সহজে পার করেন দিপক হুদা এবং জেমস নিশাম। ১৯ তম ওভারের শেষ বলে ছক্কা মেরে দলকে ৫ উইকেটের জয় এনে দেন নিশাম। দিল্লির পক্ষে রাবাদা দুই উইকেট নেন।

দল হেরে গেলেও অনবদ্য সেঞ্চুরির জন্য ম্যাচ সেরা হন দিল্লির শিখর ধাওয়ান।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

দিল্লি ক্যাপিটালসঃ ১৬৪/৫ (২০ ওভার), ধাওয়ান ১০৬*, শ্রেয়াস ১৪; শামি ২/২৮, নিশাম ১/১৭

কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবঃ ১৬৭/৫ (১৯ ওভার), পুরান ৫৩, ম্যাক্সওয়েল ৩২; রাবাদা ২/২৭, আক্সার ১/২৭

ফলাফলঃ কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব ৫ উইকেটে জয়ী

ম্যাচ সেরাঃ শিখর ধাওয়ান (দিল্লি ক্যাপিটালস)।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

আইপিএল নিয়ে প্রত্যাশার কথা জানালেন সালমা-জাহানারা

Read Next

তামিমদের বিদায় করে দিয়ে ফাইনালে নাজমুল একাদশ

Total
1
Share