বিসিবির সাথে এখনও কন্টাক্টে নেই বিপিএলের কোন ফ্র্যাঞ্চাইজি

বিসিবির সাথে এখনও কন্টাক্টে নেই বিপিএলের কোন ফ্র্যাঞ্চাইজি
Vinkmag ad

করোনা শেষে ধীরে ধীরে ফিরতে শুরু করেছে দেশের ক্রিকেট। তবে বিদেশি ক্রিকেটার ও প্রোডাকশন ইস্যু জড়িত বলে চলতি বছর বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) আয়োজন সম্ভব না অনুমেয়ই ছিল। আজ (১১ অক্টোবর) আনুষ্ঠানিকভাবে বিসিবি সভাপতি জানিয়ে দিলেন চলতি বছরের বিপিএল মাঠে গড়াচ্ছেনা। তবে যখনই মনে হবে আয়োজন সম্ভব তখনই বিপিএল নিয়ে ভাববে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

বিসিবি প্রেসিডেন্ট’স কাপ ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচ চলাকালীন আজ সন্ধ্যায় গণমাধ্যমের মুখোমুখি হন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। বিপিএল প্রসঙ্গে তার ভাষ্য স্পষ্ট চলতি বছরের আসর মাঠে গড়াচ্ছেনা নিশ্চিত, আগামী বছর নিয়েও ভাবতে তাকিয়ে পরিস্থিতির দিকে।

নাজমুল হাসান পাপন বলেন, ‘এবছর তো হচ্ছে না বিপিএল। সামনের বছর দেখা যাবে। অবস্থা এবং পরিস্থিতির উপর নির্ভর করবে সবকিছু। কোনো খেলাই আমরা বাদ দিতে চাচ্ছি না। আমরা সব খেলাই ফেরাতে চাচ্ছি। তবে অবশ্যই সবকিছু পরিস্থিতির উপরে। কারণ বিপিএলের কথা যখনই আসবে তখন বিদেশি ক্রিকেটার অবশ্যই থাকবে। একই সঙ্গে প্রোডাকশনের ব্যাপার আছে।’

‘এখন সেগুলো যদি আমরা করতে পারি বাংলাদেশে তাহলে ভালো, আমাদের কোনো আপত্তি নেই। তবে ওখানে তো আরেকটু বড়। সেখানে খেলোয়াড় সংখ্যা, টিম ম্যানেজমেন্ট সবই অনেক বেশি। সেটা হ্যান্ডেল করতে পারবো কিনা জানি না।’

বিপিএলের সর্বশেষ আসরে ছিলনা কোন ফ্র্যাঞ্চাইজি, বিসিবি নিজেদের তত্বাবধানে আয়োজন করে টুর্নামেন্ট। তবে আসন্ন আসরে নতুন কোন ফ্র্যাঞ্চাইজি থাকবে নাকি বিসিবিই চালিয়ে নিবে তা নিয়ে সিদ্ধান্ত হয়নি এখনো। এ প্রসঙ্গে পাপন বলেন, ‘বিপিএলের কোনো ফ্র্যাঞ্চাইজি এখনও আমাদের কন্টাক্টে নেই। আমাদের প্রথম কথা হচ্ছে কবে আমরা বিপিএল আয়োজন করতে পারবো। করছি কিনা এবং করলে কবে শুরু করতে পারছি এটা আমাদের প্রথম বিষয়।’

‘যখন পারবো তখন ভাববো যে নতুন ফ্র্যাঞ্চাইজি দিব নাকি এভাবেই এবারো চালিয়ে দেব সেটি ঠিক করবো। মানে এগুলো আমাদের কাছে গুরুত্বপূর্ণ নয়, খেলাটি আমাদের কাছে বেশি গুরুত্বপূর্ণ।’

এদিকে দেশের মাটিতে আয়োজন সম্ভব না হলে আইপিএলের মত বিদেশে আয়োজনের কোন সম্ভাবনা আছে কীনা এমন প্রশ্নে বিসিবি সভাপতির সহজ স্বীকারোক্তি প্রায় অসম্ভব। তিনি বলেন, ‘আমার মনে হয় এটা সহজ হবে না (বাইরে আয়োজন করা)। আপনাদেরকে আমি বলি বাংলাদেশে চালাতে (বিপিএল) গিয়েই আমাদের একটি দুটি ফ্র্যাঞ্চাইজি ছাড়া বাকিদের কিন্তু বেশ কষ্ট হয়।’

‘আর যেখানে জৈব সুরক্ষা বলয় যেটি তৈরি করতে হচ্ছে বাইরে, ইংল্যান্ডে এমনকি দুবাইয়ে আইপিএলের জন্য………আজকেও শুনলাম যেমনটা সেটা শুনলে কারো পক্ষে সম্ভব বলে আমার মনে হয় না। আমাদের যে স্কেল এতে করে এত টাকা খরচ করা সেই নিরাপত্তার জন্য এটা প্রায় অসম্ভব।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

আবারো তেওয়াটিয়া জেতালেন রাজস্থানকে

Read Next

জয় দিয়ে শুরু করল নাজমুল একাদশ

Total
25
Share