ওয়েস্ট ইন্ডিজের বাংলাদেশ সফর: সর্বশেষ হালনাগাদকৃত তথ্য

নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজের আগে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজ
Vinkmag ad

করোনা পরবর্তী বাংলাদেশের ক্রিকেট কার্যক্রমটা বেশ ধীরেই শুরু হয় আর সেটির মূল কারণ ছিল ক্রিকেটারদের নিরাপত্তাকে প্রাধান্য দেওয়া। তবে জুলাইয়ের শেষদিকে ব্যক্তিগত ও পর্যায়ক্রমে ঐক্যবদ্ধ অনুশীলন দিয়ে ক্রিকেটে ফেরার মিশনে নামে তামিম ইকবাল, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহরা। এমনকি শেষ মুহূর্তে স্থগিত না হলে বর্তমানে তিন ম্যাচ টেস্ট সিরিজ খেলতে শ্রীলঙ্কায় অবস্থান করার কথা ছিল টাইগারদের।

লঙ্কা সফর স্থগিত হওয়ায় চলতি বছর আর কোন আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলা হচ্ছে না বাংলাদেশের। কিন্তু ক্রিকেটারদের ব্যস্ত রাখতে নানা কার্যক্রম হাতে নিয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। স্কিল ক্যাম্প অব্যাহত রাখার পাশাপাশি আয়োজন করে দুটি দুইদিনের প্রস্তুতি ম্যাচ। ১১ অক্টোবর থকে শুরু হচ্ছে প্রায় ৫০ জন ক্রিকেটার নিয়ে তিন দলীয় বিসিবি প্রেসিডেন্টস কাপ ওয়ানডে সিরিজ।

এরপরই আছে নভেম্বরের মাঝামাঝিতে ৫ দলের কর্পোরেট টি-টোয়েন্টি। এর বাইরে স্থগিত হওয়া ক্লাব ক্রিকেট ফেরাতেও সচেষ্ট দেশের ক্রিকেট নিয়ন্ত্রক সংস্থা। এদিকে জনুয়ারিতে পূর্ণাঙ্গ সিরিজ খেলতে ওয়েস্ট ইন্ডিজ বাংলাদেশে আসবে আর এর মধ্য দিয়েই আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে প্রত্যাবর্তন হবে মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ, লিটন দাসদের।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বাংলাদেশ সফরের সর্বশেষ হালনাগাদ তথ্যও দিয়েছেন বিসিবির প্রধান নির্বাহী নিজাম উদ্দিন চৌধুরী সুজন। এফটিপি অনুসারে যথাসময়েই মাঠে গড়ানোর কথা সিরিজটি, দুই বোর্ডের মধ্যে চলছে নিয়মিত আলাপ আলোচনাও।

আজ (৮ অক্টোবর) মিরপুরে সাংবাদিকদের বিসিবি প্রধান নির্বাহী বলেন, ‘এখন পর্যন্ত এফটিপি (ফিউচার ট্যুর প্ল্যান) প্রতিশ্রুতি অনুসারেই আছে, আমাদের সাথে কথা হচ্ছে। ওরা (ওয়েস্ট ইন্ডিজ) আমাদের কাছে কিছু তথ্য চেয়েছে আমরা সেসব দিয়েছি।’

‘আমরা আস্তে আস্তে ক্রিকেটে ঢোকার চেষ্টা করছি। পদক্ষেপগুলো আমরা সেভাবেই নিচ্ছি। আমরা প্রাথমিকভাবে ক্রিকেটারদের ব্যক্তিগত অনুশীলন আয়তাধীন করি। পরবর্তীতে আমরা দলীয় অনুশীলনের ব্যবস্থা করি, ইতোমধ্যে কয়েকটি অনুশীলন ম্যাচেরও আয়োজন করা হয়েছে। যদিও এটা খুবই সীমিত আকারে হয়েছে। এখন আমরা ধাপে ধাপে এগোচ্ছি। তার অংশ হিসেবেই তিন দলীয় বিসিবি প্রেসিডেন্টস কাপ ওয়ানডে সিরিজটি আয়োজন করছি।’

বিসিবি প্রেসিডেন্টস কাপের পর কর্পোরেট টি-টোয়েন্টি লিগ ও পর্যায়ক্রমে অন্যান্য ঘরোয়া টুর্নামেন্টের সাথে সূচি মোতাবেক আন্তর্জাতিক সিরিজ আয়োজনে দৃষ্টি বিসিবির।

নিজাম উদ্দিন চৌধুরী যোগ করেন, ‘বিসিবি প্রেসিডেন্টস কাপ আয়োজনের পরই আমাদের আরেকটি টুর্নামেন্ট আয়োজনের পরিকল্পনা রয়েছে। যেটার ঘোষণা ইতোমধ্যে আপনারা বোর্ড থেকে পেয়েছেন (কর্পোরেট টি-টোয়েন্টি)। তারপরই অন্যান্য টুর্নামেন্ট ও যেসব আন্তর্জাতিক সিরিজ আমরা আয়োজন করার কথা সেগুলোও আমরা আয়োজনের পরিকল্পনা করছি।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

এখনো পরিকল্পনায় আছে এশিয়া একাদশ ও বিশ্ব একাদশের ম্যাচ

Read Next

পাঞ্জাবকে বড় ব্যবধানে হারাল হায়দ্রাবাদ

Total
16
Share