খেলা শুরুর আগে নার্ভাস ছিলেন মুমিনুল

খেলা শুরুর আগে নার্ভাস ছিলেন মুমিনুল
Vinkmag ad

সাড়ে ৬ মাস পর প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে ব্যাট করেছেন মুমিনুল হক। আন্তর্জাতিক কিংবা ঘরোয়া লিগের কোন ম্যাচ না হলেও নিজেদের মধ্যে ভাগ হয়ে খেলা প্রস্তুতি ম্যাচকে টাইগারদের টেস্ট অধিনায়ক কাজে লাগিয়েছেন ভালোভাবে।

বিশেষ করে যে পরিস্থিতিতে দলের হাল ধরে সেঞ্চুরি তুলে নিয়েছেন তাকে প্রস্তুতির জন্য আদর্শই বলতে হয়। মুমিনুল নিজেও বলছেন ম্যাচের আবহেই খেলতে চেয়েছেন, যে কারণে ব্যাটিং করেছেন পুরোদস্তুর টেস্ট মেজাজেই।

আগের দিন ২৩০ রানে অলআউট ওটিস গিবসন একাদশ। আজ (৩ অক্টোবর) ব্যাটিং করতে নামা মুমিনুলের রায়ান কুক একাদশ শুরুতেই প্রতিপক্ষ পেসারদের তোপে নাকাল। দুই ওপেনার সাদমান ইসলাম ও ইয়াসির আলি রাব্বির সাথে মুশফিকুর রহিমের বিদায়ে ২৪ রানেই তিন উইকেট হারায় রায়ান কুক একাদশ।

সেখান থেকে দিনের শুরুতে পেসারদের দারুণ বোলিং সামলে ধীরে ধীরে দলকে সামনে টেনে নেন মুমিনুল হক।

অধিনায়ককে যোগ্য সঙ্গ দেন মোহাম্মদ মিঠুন। দুজনে চতুর্থ উইকেটে যোগ করেন ১৬৩ রান, সেঞ্চুরি আসে মুমিনুলের ব্যাট থেকে। মোহাম্মদ মিঠুন থামেন ৬২ রানে। মিঠুন আউট হলেও মুমিনুল ছিলেন সাবলীল, শেষ পর্যন্ত কেবল অন্যদের সুযোগ দিতেই ১১৭ রানে স্বেচ্ছায় অবসরে যান। এবাদত, হাসান মাহমুদদের সামলে মুস্তাফিজ, রুবেল, নাইমদের উপর চড়াও হয়েছেন বেশ আক্রমণাত্মক ভঙ্গিতে।

 

View this post on Instagram

 

A very good day at office for captain Mominul Haque

A post shared by cricket97 (@cricket97bd) on

৯৭ বলে ফিফটিতে পৌঁছানো মুমিনুল সেঞ্চুরি তুলে নেন ১৭৪ বলে ১২ চার ১ ছক্কায়। মাঠ ছাড়ার আগে অপরাজিত ছিলেন ২২০ বলে ১৪ চার ১ ছক্কায় ১১৭ রানে। ম্যাচ শেষে জানিয়েছেন দীর্ঘ বিরতির পর ফিরে এসে এমন ইনিংস খেলার পথে নিজের ভাবনার কথা।

এক ভিডিও বার্তায় মুমিনুল বলেন, ‘চেষ্টা করছিলাম টেস্ট ম্যাচে যেরকম পরিবেশ, পরিস্থিতি থাকে ওইভাবে শুরু করার। চিন্তা ছিল ব্যাটসম্যান হিসেবে যারা ব্যাটিং করেছিল রানের জন্য না খেলে আমরা যেন সারাটা দিন ব্যাটিং করতে পারি। কন্ডিশনের সঙ্গে, আবহাওয়ার সঙ্গে মানিয়ে নেওয়ার চেষ্টা ছিল যেহেতু অনেকদিন খেলার ভেতরে ছিল না। এটা মানিয়ে নেওয়ার জন্যই আমরা এভাবে ব্যাটিং করেছি।’

খেলা শুরুর আগে চিন্তিত থাকলেও টাইগারদের টেস্ট কাপ্তান বলছেন উপভোগ করেছেন দুইদিনের এই ম্যাচ, ‘খেলা শুরু হওয়ার আগে কিছুটা চিন্তিত ছিলাম। মানুষ হিসেবে চিন্তা থাকাটাই স্বাভাবিক। শেষ ৭ মাস ধরে আমরা খেলিনি। শুধু অনুশীলন করেছি। প্রথমে একটু নার্ভাস ছিলাম। শেষ দুইদিন আমাদের অনেক ভালো অনুশীলন হয়েছে মনে হয়। বিশেষ করে পেসারদের।’

‘আমাদের ব্যাটসম্যান যারা রান করেছে তাদেরও ভালো প্রস্তুতি হয়েছে। দুইদিনের খেলা আমি খুব উপভোগ করেছি। পেসাররা খুব ভালো বোলিং করেছে। যখন আমরা টেস্ট ম্যাচ শুরু করবো আমাদের নতুন করে শুরু করতে হবে।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

দুই দিনের প্রস্তুতি ম্যাচে আলো ছড়ালেন মুমিনুল

Read Next

দাপুটে জয়ে পয়েন্ট তালিকার শীর্ষে ব্যাঙ্গালোর

Total
4
Share