কর্পোরেট ক্রিকেট লিগ আয়োজনের ভাবনায় বিসিবি

কর্পোরেট লিগ আয়োজন করবে বিসিবি- নাজমুল হাসান পাপন

শ্রীলঙ্কান বোর্ডের পাঠানো কঠিন শর্তমতে টাইগারদের লঙ্কা সফর অসম্ভব বলে জানিয়ে দিয়েছেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। বিসিবির চাওয়া পূরণ হলেই কেবল টাইগারদের শ্রীলঙ্কা সফর আলোর মুখ দেখবে। সেক্ষেত্রে সফর বাতিল হলে দেশের ক্রিকেট ফেরানোর বিকল্প নিয়েও ভাবছে বিসিবি। সেক্ষেত্রে ঘরোয়া লিগেই নজর, আয়োজন হতে পারে কর্পোরেট লিগ।

আজ (১৪ সেপ্টেম্বর) গণমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে বিসিবি সভাপতি বলেন, ‘আমাদের বলা হয়েছিল তাদের ওখানে করোনা নাই বলতে গেলে। পরে দেখলাম ওদের ওখানে লিগ-টিগ হচ্ছে। পরে আমরা ওদের জানালাম যে আমরা বড় স্কোয়াড নিয়ে যাব। তাদের ওখানে আমরা অনুশীলন করবো।’

‘ওরা এখন অনুশীলনেরও সুযোগ দিচ্ছে না। কোনো অনুশীলন ছাড়া, যেখানে আমাদের খেলোয়াদের ৭ মাস ধরে খেলা নেই সেখানে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপতো হতেই পারে না। ওখানে গিয়েও আমরা অনুশীলন করতে পারবো না, সেটা তো সম্ভব না। কাজেই এই মুহূর্তে এটা হওয়া সম্ভব না।’

লঙ্কা সফর বাতিল হলেও ক্রিকেট ফেরানোর ব্যাপারে বেশ সচেষ্ট বিসিবি। এ প্রসঙ্গে নাজমুল হাসান পাপন যোগ করেন, ‘আমরা ক্রিকেট ফেরাবো বাইরের কারো সাথে হবে কিনা জানি না, আমরা ঘরোয়া ক্রিকেট শুরু করে দিবো এখনই। কি করবো সেটা আপনাদেরকে বলছি না, কিন্তু কিছু তো একটা করবোই। ক্রিকেট আমরা মাঠে ফেরাবোই।’

‘সবগুলা ক্লাবকে আমি ম্যানেজ করতে পারবো না। যেটুকু আমি ম্যানেজ করতে পারবো, তত জনকে নিয়েই করবো। ৪০ জন খেলোয়াড় হতে পারে, ১৬০ জনও হতে পারে। আমরা যতটুক ম্যানেজ করতে পারবো ততটুকুই করবো। করোনাকালীন সময় তাদের স্বাস্থ্যগত সুরক্ষাও আমাদের খেয়াল রাখতে হবে। আমরা যতটুকু নিয়ন্ত্রণ করতে পারবো, ততটুকুই খেলাটা চালাবো। তবে খেলা মাঠে গড়াবে ইনশাআল্লাহ।’

এদিকে বিসিবির পরিচালক ও হাই পারফরম্যান্স (এইচপি) ইউনিটের চেয়ারম্যান নাইমুর রহমান দুর্জয় ইঙ্গিত দিয়েছেন কি ধরনের লিগ দিয়ে ক্রিকেট ফেরানোর পরিকল্পনা করছে বিসিবি। ক্লাবগুলোর পক্ষে কঠিন হয়ে যাবে বলেই ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগ (ডিপিএল) আয়োজন সম্ভব নয়। তবে জাতীয় দল, এইচপি ও অনূর্ধ্ব-১৯ দলের খেলোয়াড়দের নিয়ে কর্পোরেট লিগ আয়োজনের ভাবনা আছে তাদের।

এ প্রসঙ্গে নাইমুর রহমান দুর্জয় গণমাধ্যমকে বলেন, ‘ঘরোয়া লিগ বলতে আমাদের ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ বা বিপিএল, বিসিএল এভাবে চিন্তা না করে এখন যেহেতু একটা বায়ো সিকিউরিটির ব্যাপার আছে সেহেতু আমাদের বোর্ডের একটা প্রস্তুতির ব্যাপার আছে। বোর্ডের নিয়ন্ত্রণে আছে যেসব সেসব আয়োজন করতে পারি।’

জাতীয় দলের দুইটা তিনটা দল, এইচপি, অনূর্ধ্ব-১৯ দল আছে সবাইকে নিয়ে আমাদের চুক্তিবদ্ধ ক্রিকেটার আছে তাদের একসাথ করে যদি কোন খেলা আয়োজন করতে পারি। আপনারাও জানেন ক্লবাগুলোর জন্য এখন কঠিন (ডিপিএল)। সেক্ষেত্রে যদি কর্পোরেট হাউজগুলো এগিয়ে আসে সম্ভবত কর্পোরেট লিগ হতে পারে।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

বিসিবির শক্ত অবস্থান, সুর নরম লঙ্কান ক্রীড়ামন্ত্রীর

Read Next

এইচপি ক্যাম্প নিয়ে বিসিবির নতুন ভাবনা

Total
8
Share