সাকিব ইস্যুতে সতর্ক নির্বাচকরা, গণমাধ্যমের প্রতি অনুরোধ

আকরাম খান মিনহাজুল আবেদিন নান্নু হাবিবুল বাশার সুমন

বাংলাদেশের শ্রীলঙ্কা সফরের তিন ম্যাচ টেস্ট সিরিজটি শুরু হবে ২৩ অক্টোবর থেকে। অন্যদিকে ২৯ অক্টোবর নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ শেষ হবে সাকিব আল হাসানের। ফলে প্রথম টেস্টে সম্ভব না হলেও পরের দুই টেস্টে সাকিবকে রেখেই দল সাজানোর পরিকল্পনা বিসিবির। যদিও তাকে দলে অন্তর্ভূক্ত করার প্রক্রিয়া এখনই পরিষ্কার না ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগ ও নির্বাচকদের কাছে।

লঙ্কা সফর সামনে রেখে স্কোয়াড নিয়ে হচ্ছে কাটাছেঁড়া। আজ (২ সেপ্টেম্বর) বৈঠকে বসেন ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের প্রধান আকরাম খান এবং দুই নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু ও হাবিবুল বাশার সুমন। এদিকে বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন আগেই জানিয়েছেন নিষেধাজ্ঞা উঠে যাওয়ার পর দুই টেস্টেই থাকবেন সাকিব আল হাসান।

স্কোয়াড নিয়ে আলোচনায় তাই সঙ্গত কারণেই সাকিব আল হাসান একটা বড় ইস্যু। তবে তার দলে অন্তর্ভূক্তির ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নিবে টিম ম্যানেজমেন্ট এমনটাই বলছেন প্রধান নির্বাচক। এ প্রসঙ্গে মিনহাজুল আবেদীন নান্নু সভা শেষে গণমাধ্যমকে বলেন, ‘এটা এই মুহূর্তে আমি কিছু বলতে পারবোনা কারণ টিম ম্যানেজমেন্ট সিদ্ধান্ত নিবে যে কীভাবে কি করবে। ওর নিষেধাজ্ঞাতো অক্টোবর পর্যন্ত আছে, এরপর কি করণীয় আছে টিম ম্যানেজমেন্ট, প্রধান কোচ না আসা পর্যন্ত কিছু বলতে পারছিনা।’

ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের প্রধান আকরমান খানও অনেকটা একই সুরে কথা বললেন। তিনি বলেন, ‘আমাদের গাইডলাইন হবে ২৯ তারিখের পরে তার আগে না। তার আগে আমাদের কোচ যদি তাকে সাহায্য করতে চায় সে কিন্তু ব্যক্তিগতভাবে গিয়ে করতে পারবে।’

নিষেধাজ্ঞার সময়টায় এখনো পর্যন্ত সাকিব আল হাসানের আচরণে সন্তুষ্ট আইসিসির দুর্নীতি দমন ইউনিট (আকসু)। আকরাম খানের চাওয়া শেষ পর্যন্ত যেন এমনটাই থাকে, ত্যাগ স্বীকার করতে অনুরোধ করেছেন গণমাধ্যমকে। বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন অনুরোধ করেছিলেন এই সময়ে তাকে নিয়ে কম খবর প্রকাশ করতে।

আকরাম খানের কণ্ঠেও অনেকটা একই রকম আভাস, ‘আপনারা জানেন আইসিসি থেকে নিষেধাজ্ঞা আছে এবং আমি আপনাদের অনুরোধ করবো যেহেতু এখনো পর্যন্ত ওর সবকিছু ভালো আছে শেষের দিকে যেন কোন কিছু তার বিরুদ্ধে না যায়। আকসুর নিয়মানুসারে, সেটা একটু ত্যাগ স্বীকার করবেন।’

উল্লেখ্য, নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ শেষের আগে বিসিবির কোন অবকাঠামোগত সুযোগ সুবিধা ব্যবহার করতে পারবেনা সাকিব আল হাসান। ফল ব্যক্তিগত উদ্যোগে করতে হবে অনুশীলন। সাকিব বেছে নিয়েছেন তার সাবেক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বিকেএসপিকে। আজ (২ সেপ্টেম্বর) দেশে ফিরেছেন সাকিব, করোনা টেস্ট শেষে নেগেটিভ প্রমাণিত হলেই বিকেএসপিতে চলে যাবেন। অনুশীলন করবেন তার বিকেএসপিরই কোচ নাজমুল আবেদীন ফাহিম ও মোহাম্মাদ সালাউদ্দিনের অধীনে।

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

ম্যাকমিলানকে সাহায্য করছেন ম্যাকেঞ্জি

Read Next

মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সে মালিঙ্গার বদলি প্যাটিনসন

Total
15
Share