ফেব্রুয়ারিতে নিউজিল্যান্ড সফরে যাবে টাইগাররা

মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ কেন উইলিয়ামসন বাংলাদেশ-নিউজিল্যান্ড টেস্ট
Vinkmag ad

করোনা পরিস্থিতি পেছনে ফেলে ব্যস্ত হতে যাচ্ছে দেশের ক্রিকেট। অক্টোবরে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ দিয়ে করোনা পরবর্তী প্রথম আন্তর্জাতিক সিরিজ খেলবে টাইগাররা। এর বাইরে স্থগিত হওয়া প্রায় সব সিরিজ নিয়েই আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছে বিসিবি। আগামী বছর ফেব্রুয়ারিতে নিউজিল্যান্ড সফরও অনেকটা নিশ্চিত, নিউজিল্যান্ডের বাংলাদেশ সফরও হতে পারে আগামী বছর মাঝামাঝি সময়ে।

করোনার প্রভাবে বাংলাদেশের যে কয়টি সিরিজ স্থগিত হয় তার মধ্যে আগস্ট-সেপ্টেম্বরে নিউজিল্যান্ডের বাংলাদেশ সফর ও সেপ্টেম্বরে বাংলাদেশের নিউজিল্যান্ড সফর ছিল। গত মাসেই নিউজিল্যান্ড ক্রিকেটের প্রধান নির্বাহী ডেভ হোয়াইট জানিয়েছেন বাংলাদেশের নিউজিল্যান্ড সফরটি আগামী বছর ফেব্রুয়ারিতে অনেকটা চূড়ান্ত। শুধু বাংলাদেশ নয় ৩৭ দিন সময়সীমায় তারা আতিথেয়তা দিবে পাকিস্তান, ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও অস্ট্রেলিয়াকেও।

এবার বিসিবিও বলছে বাংলাদেশের নিউজিল্যান্ড সফরতো হচ্ছেই সাথে নিউজিল্যান্ডের বাংলাদেশ সফর নিয়েও আলোচনা গড়িয়েছে ইতিবাচক পথে। আজ (১ সেপ্টেম্বর) গণমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে বিসিবির প্রধান নির্বাহী নিজাম উদ্দিন চৌধুরী বলেন, ‘নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড যে চারটা সিরিজের কথা বলেছে তার মধ্যে একটা আমাদের ট্যুর রয়েছে নিউজিল্যান্ডে। এটা সামনের বছর ফেব্রুয়ারির দিকে হবে, সেভাবেই পরিকল্পনা রয়েছে।’

নিজাম উদ্দিন চৌধুরী
নিজাম উদ্দিন চৌধুরী

বাংলাদেশের স্থগিত হওয়া সিরিজগুলো নিয়ে কীভাবে পরিকল্পনা সাজাচ্ছে বিসিবি তা জানাতে গিয়ে নিজাম উদ্দিন চৌধুরী যোগ করেন, ‘আপনারা জানেন যে আমাদের ৪ টা সিরিজ স্থগিত হয়েছে। অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড, শ্রীলঙ্কা ও আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে। নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডের সাথেও আমাদের একটা বোঝাপড়া হয়েছে যে আগামী বছর মাঝামাঝি সময়ে আমরা সিরিজটি (নিউজিল্যান্ডের বাংলাদেশ সফর) নিশ্চিত করবো। শ্রীলঙ্কার সাথে সিরিজটিতো চূড়ান্তই।’

অস্ট্রেলিয়া ও আয়ারল্যান্ডের সাথে আলাপ আলোচনা চলছে। যদিও অস্ট্রেলিয়া সিরিজটি নিয়ে থাকছে কিছুটা শঙ্কা। বিসিবি প্রধান নির্বাহী বলেন, ‘অস্ট্রেলিয়া ও আয়ারল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডের সাথেও আমাদের আলাপ আলোচনা চলছে। আমরা চেষ্টা করবো যে অস্ট্রেলিয়া সিরিজটি যে কোন সুবিধাজনক সময়ে…আসলে আমরা এভেইলএবল থাকলেতো হবেনা, অস্ট্রেলিয়ার মত একটা বড় দলের ফাঁকা সময়েরও ব্যাপার আছে।’

‘তো নির্ধারিত সময়ের মধ্যেই সিরিজটি কনফার্ম করতে হবে, আইসিসির যে নির্ধারিত সময়সীমা আছে। এছাড়া আয়ারল্যান্ডে ওয়ানডে খেলা, সেক্ষেত্রে আইসিসির একটা সময়সীমা বর্ধিত করার একটা পরিকল্পনা রয়েছে ইতোমধ্যে। সেই বর্ধিত সময়সীমার মধ্যেই আমরা আশা করছি যে হয়তোবা শেষ করতে পারবো।’

এপ্রিলে পাকিস্তানের বিপক্ষে একটি টেস্ট ও ওয়ানডে খেলার সূচিও প্রস্তুত ছিল। করোনা থাবায় সেটিও স্থগিত হয়। টেস্ট ম্যাচটি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের অংশ হলেও ওয়ানডে ম্যাচটি দুই বোর্ডের সমঝোতায় যোগ হয়েছিল। টেস্ট ম্যাচটি খেলার ব্যাপারেও আশাবাদী নিজাম উদ্দিন চৌধুরী তবে সে ক্ষেত্রে বাড়তি ওয়ানডে ম্যাচটি বাদ পড়তে পারে বলে আভাস দিয়েছেন।

বিসিবি প্রধান নির্বাহী এ প্রসঙ্গে বলেন, ‘এর বাইরে একটি টেস্ট বাকি ছিল, যেটা পাকিস্তানের সাথে। যেহেতু মাত্র একটি টেস্ট সেহেতু আমাদের অল্প সময়ের একটা উইন্ডো দরকার হবে। এটা আমরা পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের সাথে আলোচনা করে ঠিক করব আশা রাখি।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

অবশেষে ট্রেনিং শুরু করতে পারছে চেন্নাই সুপার কিংস

Read Next

চলতি সপ্তাহেই চলে আসবেন কোচিং স্টাফরা

Total
37
Share