টেস্ট দলে নিজের সুযোগ দেখেন না ফিঞ্চ

অ্যারন ফিঞ্চ

অস্ট্রেলিয়ার সীমিত ওভারের অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ বলছেন তার টেস্ট দলে ফিরে আসার সম্ভাবনা বাস্তবসম্মত কোন ভাবনা নয়। যথেষ্ট প্রথম শ্রেণির ম্যাচ খেলতে না পারাকেই নিজের টেস্ট দলে জায়গা পাকা না হওয়ার কারণ হিসেবে দেখছেন ফিঞ্চ।

সমান তিন ম্যাচ ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলতে বর্তমানে ইংল্যান্ডে অবস্থান করছে অস্ট্রেলিয়া। কদিন আগেই দলটির অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ জানিয়েছেন এখনই অবসর নয়, তার নজর আসন্ন তিনটি আইসিসি বিশ্বকাপে। ২০২৩ সালে ভারতে অনুষ্ঠিত ওয়ানডে বিশ্বকাপকে পাখির চোখ করেই সামনে এগোচ্ছেন।

এখনো পর্যন্ত অস্ট্রেলিয়ার জার্সিতে ১২৬ ওয়ানডে ও ৬১ টি-টোয়েন্টি খেললেও বিপরীত টেস্ট মাত্র ৫ টি। আন্তর্জাতিক অভিষেকের ৭ বছর পর সাদা পোশাকে খেলার সুযোগ পান, তবে ২০১৮ সালে পাঁচটি টেস্ট খেলার পর আর বিবেচিত হননি।

সীমিত ওভারের ক্রিকেটে অস্ট্রেলিয়ার অবিচ্ছেদ্য অংশ তবে টেস্ট দলে ফেরাটা যে এক প্রকার অবাস্তব তাও মানেন। এ প্রসঙ্গে ফিঞ্চ বলেন, ‘লাল বলের ক্রিকেটের ক্ষেত্রে, আমি মনে করিনা আমার আবারও টেস্ট খেলা বাস্তব কোন ভাবনা।’

‘মাত্র দুটি বিষয়ের উপর ভিত্তি করেঃ চার দিনের ম্যাচ খেলা ও সুযোগের পরিমাণ নিয়ে জোর দাবি করার পরিধি আমি মনে করি সীমিত হতে চলেছে। অস্ট্রেলিয়া কিছু মারাত্মক তরুণ প্রতিভা পেয়েছে, যারা সত্যিকার অর্থেই দারুণ খেলোয়াড়, বিশেষ করে টপ অর্ডারে। এই ছেলেদের প্রতিভার গভীরতা বেশ শক্ত, তাই সত্যি বলতে আমি কোন সুযোগই দেখিনা।’

৩৩ বছর বয়সী সীমিত ওভারের ক্রিকেটে অজি দলপতি ইংল্যান্ড সফরে সবসময়ই দুর্দান্ত। ক্যারিয়ারের এক পঞ্চমাংশ রান ইংল্যান্ডের মাটিতেই করেছেন। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ১ হাজার ওয়ানডে রান থেকে মাত্র ২৮ রান দূরে আছেন। কেবল রিকি পন্টিং, অ্যাডাম গিলক্রিস্ট ও মাইকেল ক্লার্কেরই তার চাইতে বেশি রান রয়েছে।

‘ক্রিকেটডটকমডটএইউ’ এর সাথে আলাপে ফিঞ্চ বলছেন ক্যারিয়ারের শুরুর দিকেই এখানে প্রচুর ম্যাচ খেলেছেন যা তাকে কন্ডিশন সম্পর্কে বাড়তি ধারণা দেয়, ‘এটা এমন একটা জায়গা যেখানে আমি সবসময় রান করতে পছন্দ করি। ঠিক তখন থেকে যখন আমি ইয়র্কশায়ারের হয়ে ক্লাব ক্রিকেট খেলতে এসেছি। আমি মনে করি ৬ টি কাউন্টি টি-টোয়েন্টি মৌসুম ও চারদিনের ম্যাচ খেলা আমাকে সাহায্য করে।’

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

মায়ের্স ঝড়ে বার্বাডোসের দ্বিতীয় জয়

Read Next

ছিটকে গেলেন জেসন রয়

Total
12
Share