রস্টন চেজে ম্লান নিকোলাস পুরান

রস্টন চেজ নিকোলাস পুরান

সিপিএল (ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগ) এর চলতি আসরে গায়ানা অ্যামাজন ওয়ারিয়র্স ও সেন্ট লুসিয়া জুকসের সামনে সুযোগ ছিল পয়েন্ট তালিকায় এগিয়ে যাবার। সেই সুযোগ কাজে লাগিয়েছে সেন্ট লুসিয়া জুকস। গায়ানাকে হারিয়ে পয়েন্ট তালিকার দুই নম্বরে উঠে এসেছে ড্যারেন স্যামির দল।

ত্রিনিদাদের ব্রায়ান লারা স্টেডিয়ামে টসে জিতে আগে ব্যাট করতে নামে সেন্ট লুসিয়া জুকস। টপ থ্রি’র কেউই বলার মত রান করতে না পারলেও চারে নেমে ৫১ বলে ৬৬ রানের ইনিংস খেলেন রস্টন চেজ। এছাড়া ছয়ে নামা মোহাম্মদ নবি ২৭, সাথে নামা জাভেল গ্লেন ১৯ রান করলে নির্ধারিত ২০ ওভারে ১৪৪ রান স্কোরবোর্ডে জমা করতে পারে সেন্ট লুসিয়া।

গায়ানা অ্যামাজন ওয়ারিয়র্সের পক্ষে ৩ উইকেট নেন ইমরান তাহির, ২ উইকেট নেন ওডেন স্মিথ। ১ টি করে উইকেট নেন ক্রিস গ্রিন, আশমিয়াদ নেদ।

১৪৫ রানের জয়ের লক্ষ্য নিয়ে খেলতে নেমে গায়ানার শুরুটা হয় ভুলে যাবার মত। স্কোরবোর্ডে ৭ রান তুলতেই গায়ানা হারায় ব্রেন্ডন কিং, শিমরন হেটমেয়ার ও রস টেইলরের উইকেট।

পাঁচে নামা নিকোলাস পুরান খেলেন দারুণ এক ইনিংস। ৭ চার ও ১ ছয়ে ৬৮ রান করেন এই উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান। তাকে সঙ্গ দেন চন্দরপল হেমরাজ (১৫), কিমো পল (২০), শেরফানে রাদারফোর্ড (১৫)। তবে তা যথেষ্ট হয়নি। ৮ উইকেটে ১৩৪ রান স্কোরবোর্ডে জমা করতেই শেষ হয় কোটার ২০ ওভার।

১০ রানে ম্যাচ জেতে সেন্ট লুসিয়া জুকস, ম্যাচসেরা হন রস্টন চেজ।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

সেন্ট লুসিয়া জুকস ১৪৪/৭ (২০), ফ্লেচার ১২, মেলিয়াস ৮, দেয়াল ২, চেজ ৬৬, নাজিবউল্লাহ ০, নবি ২৭, গ্লেন ১৯, স্যামি ০*, কুগেলেইন ২*; গ্রিন ৩-০-২৪-১, তাহির ৪-০-২২-৩, নেদ ৪-০-২০-১, স্মিথ ৪-০-৩৩-২

গায়ানা অ্যামাজন ওয়ারিয়র্স ১৩৪/৮ (২০), কিং ১, হেমরাজ ১৫, হেটমেয়ার ৪, টেইলর ১, পুরান ৬৮, কিমো ২০, রাদারফোর্ড ১৫, গ্রিন ১, স্মিথ ১*, তাহির ১*; নবি ৪-০-১৭-১, কুগেলেইন ৪-১-২৪-৩, হোল্ডার ৪-০-৩২-২, কেসরিক ৪-০-৩২-২

ফলাফলঃ সেন্ট লুসিয়া জুকস ১০ রানে জয়ী

ম্যাচসেরাঃ রস্টন চেজ (সেন্ট লুসিয়া জুকস)।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

পাকিস্তানের হয়ে একাই লড়লেন আজহার আলি

Read Next

ম্যানক্যাডিং ইস্যুতে দীনেশ কার্তিকের ‘দুই’ আপত্তি

Total
4
Share