সীমিত আকারে খেলাধুলা ও প্রশিক্ষণ চালুর অনুমতি দিল যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়

জাহিদ আহসান রাসেল
Vinkmag ad

করোনা প্রভাব বিস্তার শুরু হলে মার্চের মাঝামাঝিতে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের নির্দেশে অনির্দিষ্টকালের জন্য দেশের সব ধরণের খেলাধুলা স্থগিত হয়। দীর্ঘ পাঁচ মাসের বেশি সময় পর সীমিত আকারে, স্বাস্থবিধি মেনে খেলাধুলা আয়োজন ও প্রশিক্ষণ চালুকরণের অনুমতি দিয়েছে মন্ত্রণালয়। তবে মানতে হবে ১০ টি সুনির্দিষ্ট নির্দেশনা।

সম্প্রতি করোনা পরিস্থিতির উন্নতি হওয়ায় খেলাধুলা ও প্রশিক্ষণ কার্যক্রম চালুকরণের বিষয়ে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ে মতামত চেয়ে পত্র প্রেরণ করে। তাদের অনুমতি সাপেক্ষেই আজ (১০ আগস্ট) সচিবালয়ে যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী এক জরুরি সভা শেষে খেলাধুলা চালুকরণের সিদ্ধান্ত জানান।

যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের দেওয়া সংবাদ বিজ্ঞপ্তির বরাত দিয়ে যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল বলেন, ‘বিশ্বের অনেক দেশে করোনা সংক্রমণ কমে যাওয়ার প্রেক্ষিতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে খেলাধুলা ও প্রশিক্ষণ কার্যক্রম শুরু করেছে। আমাদের দেশেও করোনা সংক্রমণের হার নিম্নমুখী। এ প্রেক্ষিতে, আমরা খেলাধুলা ও প্রশিক্ষণ কার্যক্রম চালুকরণের বিষয়ে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের মতামত চেয়ে পত্র প্রেরণ করি।’

‘স্বাস্থ্য অধিদফতর ১০টি শর্তে সীমিত আকারে খেলাধুলা আয়োজন ও প্রশিক্ষণ কার্যক্রম চালুর বিষয়ে মতামত প্রদান করেছে। এমতাবস্থায়, স্বাস্থ্য অধিদপ্তর কর্তৃক নির্ধারিত শর্তসমূহ প্রতিপালন পূর্বক দেশের সকল পর্যায়ে খেলাধুলা ও প্রশিক্ষণ কার্যক্রম সীমিত আকারে চালুর বিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে।’

স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের দেওয়া শর্তসমূহের মধ্যে খেলার মাঠ ও প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে আগে থেকে মহামারী প্রতিরোধক ব্যবহার, খেলোয়াড়, প্রশিক্ষক, ম্যানেজমেন্ট কমিটি এবং খেলাধুলা সংশ্লিষ্ট সকলের নিয়মিত করোনা পরীক্ষা নিশ্চিত অন্যতম। এছাড়া অন্যান্য শর্তের মধ্যে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা, খেলার সরঞ্জাম ব্যবহারে সতর্কতা, পৃথক খাবারের পাত্র, শরীরে তাপমাত্রা মাপার যন্ত্রের পর্যাপ্ততা, অধিক জনসমাগম না করার নির্দেশনা দেওয়া হয়।

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

নাইমের বিশ্বাস দ্রুত আগের জায়গায় ফিরবেন

Read Next

নতুন শুরুর অস্বস্তিতে নারীরাও

Total
3
Share