‘এটিই আমার শেষ ম্যাচ হতে পারত’

বেন স্টোকস জস বাটলার
Vinkmag ad

ব্যাট হাতে ধারাবাহিকভাবে ব্যর্থ, উইকেটের পেছনেও সহজ সুযোগ মিস করছেন নিয়মিত। সবমিলিয়ে জায়গাটা যে নড়বড়ে হয়ে গিয়েছে আঁচ করতে পেরেছেন জস বাটলার। এমন চাপে থাকা সময়েই খাদের কিনারা থেকে টেনে তুলে দলকে জয় উপহার দিলেন। পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যানচেস্টার টেস্টে ক্রিস ওকসের সাথে তার ১৩৯ রানের জুটিই ইংলিশদের জয় এনে দেয়।

ওকসের অপরাজিত ৮৪ রানের বিপরীতে বাটলারের ৭৫ রানের ইনিংস। ম্যাচ শেষে নিজেই জানালেন ধরে নিয়েছিলেন ব্যর্থ হলেই ক্যারিয়ারের শেষ ইনিংস হবে। শেষ সুযোগ কাজে লাগিয়ে ২৭৭ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে ১১৭ রানে ৫ উইকেট হারানো ইংল্যান্ডের জয়ে অন্যতম ভূমিকা রাখলেন।

স্কাই স্পোর্টসের সাথে আলাপে ইংলিশ উইকেট রক্ষক ব্যাটসম্যান বলেন, ‘অবশ্যই এমন ভাবনা এসেছে যে রান করতে না পারলে এটিই আমার শেষ ম্যাচ হতে পারে। এসব মাথায় ঘুরছিল। তবে মাথে নেমে এসব পেছনে ফেলেই খেলায় মনযোগ দিতে হয়। চেষ্টা করতে হয় পরিস্থিতি অনুযায়ী খেলতে। আমি খুশি যে সেটা করতে পেরেছি।’

এদিকে পুরো ম্যাচে কয়েক দফায় স্টাম্পিং ক্যাচ মিস করেছেন জস বাটলার। প্রথম ইনিংসে পাকিস্তানকে একাই টেনে নিয়ে যাওয়া শান মাসুদের ১৫৬ রানের ইনিংসে বড় কৃতিত্ব বাটলারেরই। ফিফটির আগেই পাকিস্তানি ওপেনারের দেওয়া সুযোগ হাতছাড়া করেন দুইবার। খুব বেশি প্রভাব না ফেললেও ইয়াসির শাহের ক্যাচও হাতছাড়া করেন প্রথম ইনিংসে।

ফলে উইকেটের পেছনে নিজের বাজে পারফরম্যান্স নিয়েও ভেবেছেন ইংলিশ উইকেট রক্ষক। সুযোগগুলো নিতে পারলে আরও আগেই জয় আসতো উল্লেখ করে যগ করেন, ‘আমি ঐ সুযোগগুলো নিতে পারলে প্রায় দুই ঘন্টা আগেই জিততে পারতাম। খুব ভালো করে জানি, আমি ভালো কিপিং করিনি। কিছু সুযোগ হাত ফসকে গেছে, এই পর্যায়ে এসব করার সুযোগ কোনভাবেই নেই, ব্যাটিংয়ে যত ভালোই খেলি। আমার আরও ভালো করতে হবে কিপিং আর আমি সেটা জানি।’

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

এলপিএল খেলতে আগ্রহী সাউদি-প্লাঙ্কেট সহ ৯৩ বিদেশি

Read Next

‘মাঝে মাঝে হতাশা কাজ করছে’

Total
3
Share