‘ধোনি ভারতের হয়ে শেষ ম্যাচ খেলে ফেলেছে’

Ashish Nehra dhoni
Vinkmag ad

২০১৯ ইংল্যান্ড বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সবশেষ আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলেন মাহেন্দ্র সিং ধোনি। এরপর ভারতীয় দলে আর জায়গা হয়নি দেশটির অন্যতম সফল এই অধিনায়কের। আইপিএল দিয়ে মাঠে ফেরার কথা থাকলেও সেটিও স্থগিত হয়ে যায় করোনা প্রভাবে। ফলে এক বছরের বেশি সময় ধরে কোন ধরণের প্রতিযোগিতামূলক ম্যাচ খেলেননি ধোনি।

একদিকে জাতীয় দলে বিবেচিত হচ্ছেন না অন্যদিকে নিজেও অবসর নিয়ে কোন কথা বলছেন না। ফলে ভারতীয় ক্রিকেটের অন্যতম জটিল এক পরিস্থিতি হিসেবে ধরা হচ্ছে ধোনির অবসর ইস্যুকে। কিন্তু তার জাতীয় দল ও আইপিএলে দীর্ঘদিনের সতীর্থ সাবেক পেসার আশিস নেহরা মনে করেন ক্যারিয়ারের শেষ আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলে ফেলেছেন ধোনি।

অবসর নিয়ে জল্পনা কল্পনা বাড়ার সাথে ভক্ত সমর্থকদের আশা আগামী বছর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ঠিকই দেখা যাবে ধোনিকে। বিশেষ করে চেন্নাইয়ের হয়ে আইপিএল দারুণ ফর্মই হতে পারে তার হাতিয়ার। কিন্তু আশিস নেহরা তেমনটা ভাবছেন না। ধোনিকে বিচার করতে আইপিএল কখনো মানদণ্ড হওয়া উচিৎ নয় বলে মত তার।

সাবেক এই বাঁহাতি পেসার বলেন, ‘আমি মনে করিনা ধোনির আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারের সাথে আইপিএলের কোন যোগসূত্র আছে। যদি আপনি নির্বাচক, অধিনায়ক কিংবা কোচ হন তাহলে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হল ধোনি যদি ফিট থাকে তবে সে আমার তালিকার প্রথম নাম হবে। এমএস ধোনিকে আমি যতটুকু চিনি, আমি মনে করি সে ভারতের হয়ে তার শেষ ম্যাচটি খেলে ফেলেছে।’

২০১১ বিশ্বকাপে ধোনির অধীনেই নিজের শেষ ওয়ানডে খেলেন আশিস নেহরা। অবশ্য ২০১৭ সাল পর্যন্ত গায়ে চাপিয়েছেন ভারতের হয়ে টি-টোয়েন্টি জার্সি। ৪১ বছর বয়সী সাবেক এই পেসার স্টার স্পোর্টসের সাথে আলাপে জানান ধোনির প্রমাণ করার কিছু নেই। তিনি বলেন, ‘এমএস ধোনির প্রমাণ করার কিছু নেই। মিডিয়ার লোক ও অন্যরা বলতে পারে কারণ সে এখনো অবসরের ঘোষণা দেয়নি।’

‘সুতরাং সে নিজেই জানে তার মনে কী আছে। আমার মতে তার খেলার সামর্থ্য কমেনি। এর আগেও আমরা আলোচনা করেছি যে, শেষ ম্যাচ হয়তো সে খেলে ফেলেছে। ধোনি যতক্ষণ টিকে ছিল (বিশ্বকাপ সেমি ফাইনালে) ততক্ষণ ভারতের ফাইনালে ওঠার আশা ছিল। তার রান আউটের পরই সবাই আশা হারিয়েছে। সুতরাং এ থেকেই স্পষ্ট এখনো দলে তার কতটা প্রভাব।’

‘সে জানে কীভাবে দল চালাতে হয়, কীভাবে তরুণদের সামনে এগিয়ে নেওয়া যায়। আর এসব বিষয় আমি আবারও সবার সামনে তোলার দরকার নেই বলে মনে করি। আমি মনে করিনা আইপিএল ধোনির মর্যাদায় বা দৃষ্টি ভঙ্গিতে কোন পার্থক্য তৈরি করে। আইপিএলের মত কোন টুর্নামেন্ট ধোনির নির্বাচনের মানদণ্ড হওয়া উচিৎ না।’

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

বাদ পড়ে অবসরের চিন্তাও মাথায় এসেছিল ব্রডের

Read Next

আমিরাতে ৫৩ দিনের লম্বা আইপিএল আসর

Total
4
Share