অনলাইন জুয়ায় প্রচারণা, কোহলিকে গ্রেফতারের দাবি

Vinkmag ad

চেন্নাই ভিত্তিক একজন আইনজীবি সম্প্রতি মাদ্রাজ হাইকোর্টে অনলাইন জুয়া অ্যাপসগুলোর বিরুদ্ধে একটি আবেদন করেছেন। যেখানে অভিযুক্ত হিসেবে আছেন ভারতীয় অধিনায়ক ভিরাট কোহলি ও অভিনেত্রী তামান্না ভাটিয়া। দুজনকেই গ্রেফতারের আবেদন করা হয়। এই দুই তারকা মোবাইল প্রিমিয়ার লিগের (এমপিএল) ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর।

কিছুদিন আগেই ভারতের সবচেয়ে বড় মোবাইল গেমিং প্ল্যাটফর্ম এমপিএলে তামান্না ভাটিয়ার সাথে ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হিসেবে যোগ দেন কোহলি। তারা অ্যাপসটির প্রতিনিধিত্ব ও প্রচার কার্যক্রমে অংশ নেন।

অনলাইন জুয়া খেলায় হেরে অর্থ পরিশোধে ব্যর্থ হয়ে এক তরুণের স্বেচ্ছায় মৃত্যুবরণ করার  পরই বিষয়টি ভালোভাবে আলোচনায় আসে। গত সপ্তাহে মাদ্রাজ হাইকোর্টেও এ নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করা হয়।

যেখানে বলা হয় এসব অনলাইন জুয়ার অ্যাপস বেকার যুবকদের প্ররোচিত করে এবং রামির মত অনলাইন গেমগুলো আসক্তিতে পরিণত হচ্ছে। তামিল নাড়ু সরকারকে পরামর্শ দেওয়া হয় একটি আইন পাশের মাধ্যমে এসব নিয়ন্ত্রণে যথাযথ পদক্ষেপ নেওয়ার।

হাইকোর্টে দাখিলকৃত পিটিশনে বলা হয়, ‘বড় ধরণের আর্থিক অঙ্ক বোনাসের প্রলোভনে তরুণদের আসক্ত করে আসছে আয়োজকরা। তারা ভিরাট কোহলি ও তামান্না ভাটিয়ার মত বিখ্যাত ক্রিকেটার ও অভিনেতা/অভিনেত্রীদের ব্যবহার করে। যারা তাদের খ্যাতির মাধ্যমে তরুণদের মগজ ধোলাই করে গেমটিতে আসক্ত করার চেষ্টা করে।’

আবেদনকারী সূর্য প্রকাশনাম ভারতীয় গণমাধ্যমে বলেন, ‘অনলাইন জুয়ার ক্ষেত্রে ক্ষয়ক্ষতি খুব কম সময়ের মধ্যেই করা হয়। অন্যদিকে অ্যালকোহল, সিগারেট একজন ব্যক্তির ক্ষতি করতে প্রায় ১৫ বছর সময় নেয়। জনগণের মনে তারকাদের প্রভাব ব্যবহার করে গেমগুলোতে আকৃষ্ট করা হয়।’

‘তরুণরা নিজেদের অর্থ, পারিবারিক উৎস এমনকি ধারও করতে শুরু করে। যখন পাওনাদার তার বাড়ি যায় এবং অপমান করে তখন তারা চরম পর্যায়ের পদক্ষেপ নিয়ে নেয়। সাম্প্রতিক সময়ে এমন অনেক ঘটনা আছে, সামনে আরও খারাপ সময় অপেক্ষা করছে যখন যুবকরা বেকার ও অলস হয়ে পড়বে।’

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

ডেনলির সর্বনাশে লিভিংস্টোনের পৌষ মাস

Read Next

‘হাউজ অফ লর্ডসে’ যাচ্ছেন স্যার ইয়ান বোথাম

Total
75
Share