ব্রডের মাইলফলক স্পর্শ করার দিনে ইংল্যান্ডের বড় জয়

ব্রড ৫০০ ইংল্যান্ড
Vinkmag ad

স্টুয়ার্ট ব্রডের ৫০০ উইকেট শিকারের মাইলফলক স্পর্শের দিনে ক্রিস ওকসের তোপে ম্যানচেস্টারে ২৬৯ রানের বড় জয় পেল ইংলিশরা। প্রথম টেস্টে হারের পরও টানা দুই টেস্ট জয়ে তিন ম্যাচ সিরিজটি ২-১ ব্যবধানে জিতে নিল স্বাগতিকরা। ২৬৯ রানের জয়টি ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ইংল্যান্ডের রানের হিসেবে সবচেয়ে বড় জয়।

৩৯৯ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে তৃতীয় দিন শেষ বিকেলে ৬ ওভার খেলে ২ উইকেট হারিয়ে ১০ রান তোলে ক্যারিবিয়ানরা। জয়ের জন্য শেষ দুই দিনে প্রয়োজন ছিল ৩৮৯, অন্যদিকে ইংল্যান্ডের ৮ উইকেট। ৪৯৯ টেস্ট উইকেট নিয়ে ৫০০ উইকেট শিকারি ক্লাবে ঢুকতে ক্যারিবিয়ানদের একজন ব্যাটসম্যানকে ফেরাতে পারলেই হয় স্টুয়ার্ট ব্রডের।

কিন্তু বেরসিক বৃষ্টি চতুর্থ দিনে একটি বলও গড়ানোর সুযোগ দেয়নি। ব্রডের অপেক্ষার সাথে ক্যারিবিয়ানদের মুখের হাসিটাও চওড়া হয়েছিল। ফলে ম্যাচ বাঁচাতে শেষ দিনটা কোনভাবে কাটিয়ে দিতে পারলেই হবে। কিন্তু সেটিই আর হল কই? জেসন হোল্ডারের দলকে গুটিয়ে দিতে পঞ্চম দিন ৩১.১ ওভারের বেশি বল করতে হয়নি ক্রিস ওকস-স্টুয়ার্ট ব্রডদের।

তৃতীয় দিন ওয়েস্ট ইন্ডিজের দ্বিতীয় ইনিংসে মাত্র ৩ ওভার বল করেই ব্রড তুলে নেন দুই উইকেট। আজ (২৮ জুলাই) পঞ্চম দিন শুরুর আঘাতও হানেন এই ইংলিশ পেসার। ২ রানে ক্রেইগ ব্র্যাথওয়েট ও ৪ রানে দিন শুরু করা শাই হোপ নিজেদের জুটিকে টেনে নেওয়ার চেষ্টা করেন। তবে দিনের ৮ম ও ব্রডের চতুর্থ ওভারের তৃতীয় বলেই এলবিডব্লিউ’র ফাঁদে পড়েন ব্র্যাথওয়েট।

ব্রডের ৫০০ তম শিকার হয়ে ব্র্যাথয়েট ফিরেছেন ৪৪ বলে ১৯ রান করে। কাকতালীয়ভাবে আরেক ইংলিশ পেসার জিমি অ্যান্ডারসনের ৫০০ তম শিকারও ছিলেন এই ক্যারিবিয়ান ব্যাটসম্যান। ফলে ৫০০ উইকেট শিকারি ক্লাবে যোগ দেওয়া দুই ইংলিশ বোলারই অসাধারণ এই কীর্তি ছুঁয়েছেন ব্র্যাথওয়েটকে ফিরিয়ে।

মুত্তিয়া মুরালিধরন, অনিল কুম্বলে, শেন ওয়ার্ন, গ্লেন ম্যাকগ্রা, কোর্টনি ওয়ালস ও সতীর্থ জিমি অ্যান্ডারসনের পর ৭ম বোলার হিসেবে টেস্টে ৫০০ উইকেটের মাইলফলক স্পর্শ করেন স্টুয়ার্ট ব্রড। এরপর ফিরিয়েছেন জার্মেইন ব্ল্যাকউডকেও (২৩)। তবে মাঝে বাকি কাজটা একাই সেরেছেন পেসার ক্রিস ওকস।

বৃষ্টি বাঁধায় নির্ধারিত সময়ের আগেই লাঞ্চে চলে যেতে হয়। ততক্ষণে ৮৪ রান তুলতে পাঁচ উইকেট নেই ওয়েস্ট ইন্ডিজের। বৃষ্টি শেষে খেলা শুরু হলে জয় পেতে বেশি সময় লাগেনি ইংল্যান্ডের। নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারানো ক্যারিবিয়ানরা অল আউট হয় ১২৯ রানে। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৩১ রান আসে উইকেট রক্ষক ব্যাটসম্যান শাই হোপের ব্যাট থেকে। ৩৬ রানে ৪ উইকেট নিয়ে ম্যাচে ১০ উইকেট শিকার স্টুয়ার্ট ব্রডের। অন্যদিকে ক্যারিয়ারের চতুর্থ পাঁচ উইকেট শিকার ক্রিস ওকসের। ৫০ রান খরচায় ৫ উইকেট পকেটে পুরেন এই পেসার।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

ইংল্যান্ড ১ম ইনিংস: ৩৬৯ ও ২য় ইনিংস ২২৬/২ ডিক্লেয়ার

ওয়েস্ট ইন্ডিজ ১ম ইনিংস: ১৯৭ ও ২য় ইনিংস ১২৯/১০ (৩৭.১ ওভার) , ব্র্যাথওয়েট ১৯, হোপ ৩১, ব্রুকস ২২, চেইজ ৭, ব্ল্যাকউড ২৩, হোল্ডার ১২, ডাওরিচ ৮, কর্নওয়াল ২, গ্যাব্রিয়েল ০*; অ্যান্ডারসন ৮-৪-১৮-০, ব্রড ৮.১-১-৩৬-৪, ওকস ১১-০-৫০-৫, আর্চার ১০-১-২৪-০।

ফল: ইংল্যান্ড ২৬৯ রানে জয়ী।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

‘ব্রড ক্যারিয়ারে আমার চেয়েও বেশি উইকেট পাবে’

Read Next

সাহস বেড়েছে সোহানের, ধন্যবাদ দিলেন বিসিবিকে

Total
2
Share