দুই বছরের জন্য নিষিদ্ধ হলেন কাজী অনিক

কাজী অনিক
Vinkmag ad

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) আজ এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তি দিয়ে জানিয়েছে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটার কাজী অনিক দুই বছরের জন্য নিষিদ্ধ হয়েছেন। বিসিবির অ্যান্টি ডোপিং নিয়ম ভঙ্গ করে নিষিদ্ধ হলেন এই প্রতিশ্রুতিশীল বোলার।

বিসিবি জানিয়েছে ডোপ টেস্টে পজিটিভ প্রমাণিত হয়েছেন অনিক। ২০১৮ সালের ৬ নভেম্বর কক্সবাজারে ডোপ টেস্ট করানো হয়েছিল তার। টেস্টে তার শরীরে ‘Methamphetamine (d-)’ এর উপস্থিতি পাওয়া গিয়েছে।

ভুল স্বীকার করেছেন কাজী অনিক এবং অ্যান্টি ডোপিং নিয়ম ভঙ্গ করে পাওয়া শাস্তি (দুই বছরের নিষেধাজ্ঞা) মেনে নিয়েছেন।

কাজী অনিকের শরীরে যে নিষিদ্ধ দ্রব্যের উপস্থিতি পাওয়া গেছে তা আইসিসির নিষিদ্ধ দ্রব্যের তালিকায় অন্তর্ভূক্ত। অনিক বিসিবির অ্যান্টি ডোপিং কোচ ২.১ ভঙ্গ করেছেন।

বিসিবির অ্যান্টি ডোপিং কোডের অনুচ্ছেদ নম্বর ১০.১০.১, ১০.১০.২, ১০.১০.৩ আমলে নিয়ে অনিককে শাস্তি দেওয়া হয়েছে। এটা তার প্রথম নিয়ম ভঙ্গ, বিবেচনা করা হয়েছে সেটাও।

কাজী অনিকের এই দুই বছরের নিষেধাজ্ঞা কার্যকর হয়েছে ৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ থেকে। ২০২১ সালের ৭ ফেব্রুয়ারি (মধ্যরাত) থেকে পুনরায় ক্রিকেট খেলায় ফিরতে পারবেন তিনি।

২১ বছর বয়সী কাজী অনিক ৪ টি প্রথম শ্রেণির ম্যাচ, ২৬ টি লিস্ট-এ ম্যাচ ও ৯ টি স্বীকৃত টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছেন। সেখানে অনিকের উইকেট সংখ্যা যথাক্রমে ১৫, ৪১ ও ১১। ২০১৮ সালে আইসিসি অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে খেলেছেন তিনি, প্রতিনিধিত্ব করেন টাইগার যুবাদের।

২০১৫ সাল থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দলের হয়ে ১৭ টি যুবা ওয়ানডে খেলে ১৯ উইকেট শিকার করেন কাজী অনিক। ২০১৮ অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দলের পক্ষে সর্বোচ্চ উইকেট সংগ্রাহক ছিলেন অনিক। ৬ ম্যাচে ১৯.৭০ গড়ে নিয়েছিলেন ১০ উইকেট।

২০১৯ সালে ঢাকা ডায়নামাইটসের হয়ে বিপিএলে ৫ টি ম্যাচ খেলেন কাজী অনিক, উইকেট পান ৪ টি। ২০১৭ সালে রাজশাহী কিংসের পক্ষে ৩ ম্যাচ খেলে ৬ উইকেট পেয়েছিলেন তিনি।

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

আত্ববিশ্বাসই পারে মুশফিকদের ঐক্যবদ্ধ অনুশীলনে ফেরাতে

Read Next

ম্যানচেস্টার টেস্টে আরো এক ‘ব্রডময়’ দিন

Total
117
Share