দ্বিধায় থাকা মুশফিক আয়োজনে সন্তুষ্ট

মুশফিকুর রহিম হাসি
Vinkmag ad

দেশের সবচেয়ে পরিশ্রমী ক্রিকেটার হিসেবে খ্যাতি মুশফিকুর রহিমের। করোনা প্রভাবে চার মাসের বেশি সময় তাকেই ঘরবন্দী থাকতে হয়েছে। মাঝে বিসিবির কাছে ব্যক্তিগত অনুশীলনের অনুমতি চেয়েও মিলেনি। মূলত দেশের করোনা পরিস্থিতি খারাপ হওয়াতেই ঝুঁকি নিতে চায়নি দেশের ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা। তবে গত ১৯ জুলাই থেকে দেশের চার ভেন্যুতে বেশ কয়েকজন ক্রিকেটারকে ব্যক্তিগত অনুশীলনের সুযোগ করে দেয় বিসিবি।

মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে অনুশীলনের সুযোগ পাওয়াদের তালিকায় মুশফিকুর রহিমের থাকাটা অনুমেয়ই ছিল। প্রথম পর্বে ৭ দিনের সূচি প্রস্তুত করে দেয় বিসিবির মেডিকেল টিম। যার শেষিদিন ছিল আজ (২৬ জুলাই), সূচি অনুসারে আজ ছুটি হলেও মুশফিকুর রহিম ঠিকই ঘাম ঝরিয়েছেন নিয়ম করে। রানিং, ফিটনেস নিয়ে বাসায় ও খোলা আকাশের নিচে সবুজ ঘাসে কাজ করার ফারাক তুলে ধরেছেন মিস্টার ডিপেন্ডেবল।

তবে রেড জোনের আওতায় থাকায় অনুশীলন করা নিয়ে শুরুতে দ্বিধায় ছিলেন এই অভিজ্ঞ টাইগার ব্যাটসম্যান। যদিও বিসিবির আয়োজনে বেশ সন্তুষ্ট মুশফিক, নিরাপত্তা নিয়ে বিসিবির উদ্যোগের প্রশংসা করেছেন ভালোভাবেই। অনুশীলনের সুযোগ করে দেওয়ায় জানিয়েছেন ধন্যবাদও।

আজ (২৬ জুলাই) অনুশীলন শেষে এক ভিডিও বার্তায় মুশফিক বলেন, ‘আমি বলবো শুরুর দিকে একটু দ্বিধায় ছিলাম। একটু ভয় লাগছিল যে কীভাবে হবে আর আদৌ হবে কীনা। যেহেতু মিরপুরের আশেপাশে সব জায়গায় রেড জোন। তো এখানে এসে যেটা দেখলাম আস্তে আস্তে আত্মবিশ্বাস তৈরি হয়েছে। এখানে এত সুন্দর পরিবেশ ও সবকিছু এত পরিষ্কার। আমি মনে করি আমার সাথে ব্যক্তিগত অনুশীলন করা বাকি ৫-৬ জনও একমত হবে। খুবই ভালো একটা পরিবেশ ছিল, আমরা অনুশীলনের সুযোগ পেয়েছি।’

চার মাস পর মাঠে ফিরে প্রথম পর্বে কাজ করেছেন এক সপ্তাহ। ঈদ সামনে রেখে ব্যক্তিগত অনুশীলনে এখনই পড়তে যাচ্ছে যতি চিহ্ন। তবে যে কয়দিন অনুশীলনের সুযোগ পেয়েছেন তাতেই তৃপ্তির ঢেঁকুর তুলছেন এই টাইগার ব্যাটসম্যান,

‘শেষ ৪ মাস সবার জন্যই কঠিন সময় গিয়েছে। আমরা চেষ্টা করেছি বাসা থেকে যতটুকু কাজ করা যায়। আমার জীবনে প্রথমবার দেখা এমন চার মাস প্রায় লকডাউন।’

‘বিসিবিকে অসংখ্য ধন্যবাদ তারা আমাকে এমন সুযোগ করে দিয়েছে। বিশেষ করে ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগকে, তারা এত সুন্দর করে পরিকল্পনা মাফিক সব সাজিয়েছে। ৭-৮ দিন যাই অনুশীলন করেছি ভালো ছিল।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

‘অনেকগুলো ফিফটি বা সেঞ্চুরি মিস হয়ে যাচ্ছে’

Read Next

আত্ববিশ্বাসই পারে মুশফিকদের ঐক্যবদ্ধ অনুশীলনে ফেরাতে

Total
4
Share