সুপ্রিম কোর্টে আজ গাঙ্গুলি-জয়ের ভাগ্য নির্ধারণ

জয় শাহ সৌরভ গাঙ্গুলি
Vinkmag ad

সাবেক ভারতীয় অধিনায়ক সৌরভ গাঙ্গুলি বিসিসিআই সভাপতির দায়িত্ব নেওয়ার আগেই জানা গিয়েছিল লোধা কমিটির সুপারিশ অনুযায়ী বেশিদিন তিনি এই পদে থাকতে পারবেন না। মূলত বোর্ডের প্রশাসনিক দায়িত্বে টানা ৬ বছর কাজ করার পর যেতে হয় তিন বছরের কুলিং পিরিয়ডে।

সে হিসেবে চলতি বছর জুলাইয়ে শেষ হওয়ার কথা বিসিসিআই সভাপতির মেয়াদ। তবে সুপ্রিম কোর্টের মাধ্যমে আগেই আবেদন জানায় ভারতীয় ক্রিকেট নিয়ন্ত্রক সংস্থা। সেই আবেদনের শুনানি আজ।

এদিকে গাঙ্গুলির সাথে বোর্ডের সেক্রেটারি জয় শাহের কুলিং পিরিয়ডে যাওয়ার সময় হয়েছিল আরও আগেই। আজ শুনানির পরেই দুজনের ভাগ্য নির্ধারণ হওয়ার কথা। যদিও পদে বহাল থাকার প্রক্রিয়াই সম্পন্ন করছে বিসিসিআই এমন সম্ভাবনাই বেশি।

বিসিসিআই সভাপতি ও সেক্রেটারি হিসেবে সৌরভ গাঙ্গুলি ও জয় শাহ গত বছর অক্টোবরে দায়িত্ব নেন। তবে এর আগে গাঙ্গুলি ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন অফ বেঙ্গল (সিএবি) ও জয় গুজরাট ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের হয়ে পাঁচ বছরের বেশি সময় কাজ করে ফেলেন।

সরাসরি বিসিসিআই এর দায়িত্ব পাওয়ার পরই তারা অবগত ছিলেন নিজেদের মেয়াদ সম্পর্কে। আর সেটি বিবেচনায় রেখেই ডিসেম্বরে বোর্ডের ৮৮ তম বার্ষিক সাধারণ সভায় সকল সদস্যের সম্মতিক্রমে সুপ্রিম কোর্টে আবেদন করায় হয় নিয়ম নীতি বদলের উদ্দেশ্যে।

ভারতের প্রধান বিচারপতি এসএ বোবডের নেতৃত্বাধীন বেঞ্চ ও এল নাগেস্বর রাওসহ সুপ্রিম কোর্টে আজ (২২ জুলাই) শুনানিটি অনুষ্ঠিত হবে। বিতর্কিত বিষয়টি আরও ভালোভাবে সামনে আসে চলতি বছরের শুরুতে জয় শাহ অ্যাপেক্স কাউন্সিলের সভায় অংশ নেওয়ার কারণে। মে মাসে মেয়াদ শেষ হওয়া জয় শাহ সভায় অংশ নিলে বিসিসিআই নিয়ন্ত্রক ও অডিটর জেনারেল মনোনীত প্রার্থী আলকানি রেহানী আপত্তি জানায়।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

‘তিন ফরম্যাটে খেলে আমি অনেক বড় ভুল করেছি’

Read Next

ডি কক জানালেন বিবেচনায় ছিলেন ডি ভিলিয়ার্স

Total
0
Share