কড়া নির্দেশনা মেনেই অনুশীলন করতে হবে মুশফিকদের

ভারত সফরের জন্য বাংলাদেশ দলের ক্যাম্প
Vinkmag ad

অবশেষে ব্যক্তিগত উদ্যোগে বিসিবির সুযোগ সুবিধা ব্যবহার করে অনুশীলনে ফিরতে যাচ্ছেন জাতীয় দলের ৯ ক্রিকেটার। ঢাকা, চট্টগ্রাম, খুলনা ও সিলেটে চার ভেন্যুতে শুরু হচ্ছে ব্যক্তিগত ট্রেনিং কার্যক্রম। আজ (১৯ জুলাই) থেকে শুরু হওয়া অনুশীলনে অবশ্য বেশ কিছু বিধিনিষেধ মেনেই চলতে হবে মুশফিকুর রহিম, ইমরুল কায়েসদের। যেখানে অনুশীলনের পোশাকও বাসা থেকে পরে আসার নির্দেশনা দিচ্ছে বিসিবির মেডিকেল টিম।

মাস খানেক আগে থেকেই দেশের ৮ টি ভেন্যু অনুশীলন ও ম্যাচ আয়োজনের জন্য প্রস্তুত করে রাখা হচ্ছিল। ক্রিকেটারদের আগ্রহের ভিত্তিতেই মূলত ট্রেনিংয়ের অনুমতি মিলেছে কয়েকজনের। যারা এর আগেও অনুমতি চেয়ে পাননি। তবে এখনও অন্যদের অনুশীলনে নিরুৎসাহী করছে বোর্ড। ক্রিকেটারদের নিরাপত্তার কথা চিন্তা করেই ঝুঁকি নিতে চায়না তারা। যারা অনুশীলনের অনুমতি পেয়েছে তারাও একসাথে দুইজন থাকতে পারবেনা, মানতে হবে কড়া নির্দেশনা।

বিসিবির প্রধান চিকিৎসক দেবাশীষ চৌধুরী বলেন, ‘আমরা বেশ কয়েকটি নির্দেশনা দিয়েছি। যেমন বাড়ি থেকেই অনুশীলনের পোশাক পরে আসা। এতে করে ড্রেস পরিবর্তন করার যে ঝামেলাটা মাঠে করতে হবে না। এখানে তাদের গাড়ির ড্রাইভার কীভাবে আনবেন, কিংবা তারা কীভাবে যাতায়াত করবেন সেগুলোর একটি লিখিত কপি দেয়া হয়েছে ক্রিকেটারদের।’

‘এছাড়াও মাঠে আমাদের মেডিক্যাল বিভাগের কর্মকর্তারাও উপস্থিত থাকবেন। তারাও ক্রিকেটারদের দেখাশোনা করবেন, প্রয়োজনে যে কোনো ধরণের সাহায্য করবেন। তবে আমরা সব প্রস্তুত রাখলেও চাই ক্রিকেটাররা যতটা সম্ভব বিসিবি’র সুবিধাগুলো কম ব্যবহার করুক।’

ঈদের আগে মোট ৭ দিনের সূচি ঠিক করেছে বিসিবির মেডিকেল টিম। প্রথম পর্বে মিরপুরে ফিটনেসের সাথে ঘন্টাখানেক স্কিল ট্রেনিংও করা যাবে। তবে চট্টগ্রাম, সিলেট ও খুলনায় কেবল রানিং আর জিমেই সীমাবদ্ধ থাকছে ক্রিকেটারদের পদচারণা।

গ্লাভস কিংবা মাস্ক বাধ্যতামূলক না করলেও সূচি তৈরি করা হয়েছে এমনভাবে যেন একজনের সাথে আরেকজনের দেখা না হয়। দেবাশীষ চৌধুরী বলেন, ‘অনুশীলনে গ্লাভস আর মাস্ক ব্যবহার বাধ্যতামূলক নয়। তবে প্রয়োজন হলে ক্রিকেটাররা নিজেরা ব্যবহার করতে পারেন। এছাড়াও আমরা অনুশীলনের শিডিউল এমনভাবে সাজিয়েছি যেন একজন ক্রিকেটারের সঙ্গে আরেকজনের দেখা না হয়।’

উল্লেখ্য, আজ (১৯ জুলাই) থেকে শুরু হওয়া ব্যক্তিগত ট্রেনিংয়ের জন্য অনুমতি পেয়েছেন মিরপুরে মুশফিকুর রহিম, ইমরুল কায়েস, মোহাম্মদ মিঠুন ও শফিউল ইসলাম। সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে সৈয়দ খালেদ আহমেদ ও নাসুম আহমেদ। খুলনার শেখ আবু নাসের স্টেডিয়ামে নুরুল হাসান সোহান ও শেখ মেহেদী হাসান। চট্টগ্রাম জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে ফিটনেস নিয়ে কাজ করবেন নাইম হাসান।

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

নাসিম শাহের ‘৫’, রিজওয়ান-আসাদের ফিফটি

Read Next

আয়ারল্যান্ডের ওয়ানডে স্কোয়াডে ঢুকলেন থম্পসন

Total
7
Share