বিসিবির উদ্যোগের প্রশংসায় মুমিনুল-আফিফ

মুমিনুল হক আফিফ হোসেন ধ্রুব
Vinkmag ad

করোনা ভাইরাসের প্রভাবে প্রায় ৪ মাস গৃহবন্দী বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা। সাম্প্রতিক সময়ে ব্যক্তিগত উদ্যোগে ঘর ছেড়ে বের হতে শুর করেছেন কেউ কেউ। কিন্তু বিসিবির অধীনে দলবদ্ধ অনুশীলনের পথ এখনো মসৃণ হয়নি। যদিও এ সময়টায় ক্রিকেটারদের মানসিক ও শারীরিকভাবে ফিট রাখতে নানা কার্যক্রম হাতে নিয়েছে দেশের ক্রিকেটের অভিভাবক সংস্থা। যার মধ্যে আছে জাতীয় দলের কোচদের সাথে নিয়মিত অনলাইন সভা।

এর ফলে দূরে থেকেও একে অপরের মানসিক অবস্থার জানান দিতে পারছে। ভাগাভাগি করতে পারছে পরিকল্পনা। যা বেশ ইতিবাচকভাবেই নিচ্ছেন টাইগারদের টেস্ট অধিনায়ক মুমিনুল হক। তরুণ ক্রিকেটার আফিফ হোসেন ধ্রুবও জানান সিনিয়রদের সাথে এমন সভায় যোগ দিয়ে অনেক কিছু শিখতে পারছেন।

গতকাল (১২ জুলাই) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে বিসিবি তাদের অনলাই কার্যক্রমের বিষয়টি জানায়। বিসিবির ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগ নিয়মিত এই ভার্চুয়াল সভায় সাম্প্রতিক সময়ে টেস্ট দলে থাকা ক্রিকেটার, সাদা বলের দলে থাকা ক্রিকেটার, ব্যাটসম্যান ও পেসারদের নিয়ে আলাদা গ্রুপ তৈরি করেছে। যেখানে পৃথক পৃথক সেশন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তির বরাত দিয়ে অনলাইন সভার ইতিবাচক দিক নিয়ে টেস্ট অধিনায়ক মুমিনুল হক বলেন, ‘আমরা সবাই যত তাড়াতাড়ি মাঠে ফিরতে চাই। একজন ক্রিকেটারের জন্য প্রশিক্ষণ কিংবা খেলায় না থাকার চাইতে হতাশার কিছু হতে পারেনা। আর এ কারণে এই সভাগুলো সত্যিই গুরুত্বপূর্ণ এবং আমাদের মনযোগী ও ক্রিকেটের সংস্পর্শে থাকতে সাহায্য করে।’

‘সিনিয়র থেকে জুনিয়র সব ক্রিকেটার এতে স্বতঃস্ফূর্ত আলোচনায় অংশ নিচ্ছে। কোচ, ক্রিকেটাররা নিজেদের আইডিয়া ভাগাভাগি করছে। মানসিক সুস্থতা ও প্রস্তুতিতে প্রচুর জোর দেওয়া হচ্ছে। আমাদের টেস্ট পারফরম্যান্স নিয়ে পর্যালোচনা হয়েছে এবং সাম্প্রতিক অভিজ্ঞতা থেকে কী শিখলাম তা নিয়ে কথা বলছি। আমি বিশ্বাস করি সবার নিজের কাছে এখন অনেক সময় যা তাদের নিজেদের খেলা নিয়ে স্পষ্ট চিন্তা করতে সাহায্য করবে। যাতে তারা বুঝতে পারে তাদের কী করা উচিৎ।’

তরুণ অলরাউন্ডার আফিফ হোসেন এ প্রসঙ্গে বলেন, ‘মুশফিকুর রহিমের মত অভিজ্ঞ একজন ক্রিকেটার খোলায়াড়দের দায়িত্ব ও সামনে আমাদের কাছে কী প্রত্যাশা করছেন তা নিয়ে কথা বলেছেন। আমাদের ম্যাচগুলোর ভিডিও বিশ্লেষণটাও খুব কাজে দিচ্ছে।’

উল্লেখ্য, আগস্টের মাঝামাঝিতে কন্ডিশনিং ক্যাম্প করার নতুন পরিকল্পনা বিসিবির। ইতোমধ্যে ক্যাম্পের জন্য ৩৮ জন ক্রিকেটারের পুল তৈরি করে জমা দিয়েছে নির্বাচক প্যানেল। শুধু জাতীয় দল নয় প্রস্তুত আছে হাই পারফরম্যান্সের (এইচপি) জন্য ২৬ জনের তালিকাও। তাদের নিয়েও একই সময়ে কন্ডিশনিং ক্যাম্প শুরু করার ভাবনা বিসিবির।

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

করোনা জয় করে অপুর দুই রকমের লড়াই

Read Next

বিশাল হৃদয়ের গ্যাব্রিয়েলকে প্রশংসায় ভাসালেন হোল্ডার

Total
5
Share