অভিষিক্ত কাপ্তানের রেকর্ড গড়া শতকেই রক্ষে ইংল্যান্ডের

match report 5
Vinkmag ad

2653956

লর্ডস টেস্টের প্রথম দিনটা আসলে কার? ইংল্যান্ডের? না আরও স্পষ্ট করে বলতে গেলে এই টেস্ট দিয়েই অধিনায়ক পর্বের যাত্রা শুরু করা জো রুটের! ম্যাচ শেষে স্কোরকার্ড কিন্তু বারবার আঙুল তুলছে রুটের দিকেই। ধুঁকতে থাকা দলকে প্রথমে টেনে তুলেছেন এরপর রেকর্ড গড়া এক অপরাজিত সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে দিনটা করে নিয়েছেন নিজের এবং দলের।

সফরকারী আর স্বাগতিক বৃহস্পতিবার টস করতে উইকেটে যাওয়া দুই দলের অধিনায়কেরই ছিল নেতৃত্বের শুরুর দিন। ডিন এলগার অবশ্য ফাফ ডু প্লেসিসের বদলে সুযোগ পেয়েছেন অধিনায়কত্ব করার, প্লেসিস ফিরে আসলে তিনিই নেবেন আফ্রিকার দলের ভার। কিন্তু রুট এখন ইংল্যান্ডের নতুন টেস্ট অধিনায়ক। আর অধিনায়কত্বের একদম প্রথম ম্যাচে লর্ডসে টসটাও হাসলো রুটের পক্ষেই।

265403

কিন্তু উইকেটটা ঠিক হাসেনি। দলের রান ৫০ না পেরুতেই গায়েব টপঅর্ডারের তিন উইকেট। রুটের হাতে দলের ভার তুলে দেয়া সদ্যই সাবেক ‘কাপ্তান’ বনে যাওয়া অ্যালিস্টার কুক ফিরেছেন ৩ রানে। আম্পায়ারের সিদ্ধান্ত ভুল হয়েছিল জেনিংসের আউটে, আর রিভিউ না নিয়ে তিনিও আরেক ভুল করে সাজঘরের রাস্তায়। দলে ফেরা গ্যারি ব্যালেন্সও ফিরলেন দলীয় ৪৯ রানের মাথায়। বেশ কিছুদিন ধরেই মিডলঅর্ডারে দলের হাল ধরা জনি বেয়ারস্টোও ফিরলেন একটু পরেই। ৭৬ রানে নেই স্বাগতিকদের চার উইকেট।

এরপরের গল্পটা যতটুকু মনে রাখবেন জো রুট ঠিক ততটুকুই আক্ষেপে পুড়বেন জেপি ডুমিনি অথবা মারক্রাম। ইংলিশ এই অধিনায়ক ৫ রানে এবং ১৬ রানে ক্যাচ দিয়েছিলেন মারক্রাম এবং ডুমিনির হাতে। মারক্রামের সাথে ডুমিনির বিশ্বস্ত হাত থেকেও ফসকে যায় রুটের ক্যাচ। দুইবার জীবন পেয়ে একদম রেকর্ড গড়েই দিন শেষ করা রুট অপরাজিত ছিলেন ১৮৪ রানে। জীবন অবশ্য আরও একবার পেয়েছেন রুট। ১৪৯ রানের সময় স্ট্যাম্পড হয়ে হাঁটা শুরু করলেও পরে দেখা যায় কেশব মহারাজার ঘুর্ণিবলটা আসলে ছিল ‘নো’ বল।

265387
১৬ রানে রুটের ক্যাচ ফেলে দিয়ে ম্যাচটাই ফেলে দিলেননা তো জেপি ডুমিনি?

এর আগে ইংলিশদের হয়ে পাঁচজন অধিনায়ক গড়েছিলেন নেতৃত্বের অভিষেকেই শতক। রুট শতক করেই থামেননি অ্যালিস্টার কুকের ১৭৩ রানের সর্বোচ্চ ইনিংস টপকে নিজেকে নিয়ে গিয়েছেন একদম শীর্ষে। ১৮৪ রানের হার না মানা ইনিংসে ইংলিশ অধিনায়কত্বের শুরুর ইনিংসে সবচেয়ে বেশী রানের মালিক এখন রুটই।

265396
স্কোরারদের ভুলে অর্ধশতকের পর দু’বার ব্যাট উঁচিয়ে দর্শকদের অভিবাদনের জবাব দেয়ার ব্যাপারটা বেশ ভাল উপভোগ করেছিলেন বেন স্টোকস!

কাঁপতে থাকা  ইংলিশদের দিন শেষে প্রোটিয়াদের কাঁপিয়ে দেয়ার পেছনে অবদান রয়েছে আরও দুজনের। সহ-অধিনায়ক বেন স্টোকস এবং মইন আলি দুজনেই নতুন অধিনায়ককে দিয়েছেন যোগ্য সমর্থন। ৫৬ রান করে স্টোকস ফিরেছেন রুটের সাথে ১১৪ রানের জুটি। আর মইন আলি অপরাজিত ৬১ রানের ইনিংস খেলার পাশাপাশি ষষ্ঠ ইনিংসে দলনায়কের সঙ্গে দলের স্কোরকার্ডে রান যোগ করেছেন ১৬৭।

১৫০ বল খেলে ক্যারিয়ারের ১২তম শতকের দেখা পেয়েছেন রুট। পরের পঞ্চাশ রান করেছেন মাত্র ৪৩ বলে। আর দিনশেষে ২২৭ বলে ২৬ চার আর এক ছক্কায় রুট অপরাজিত ১৮৪ রানে। সকালের উইকেটে ইংলিশদের দারুণ বিপর্যয়ে ফেলে দিয়ে প্রোটিয়া বোলারদের মধ্যে সর্বোচ্চ ৩ উইকেট শিকার করেছেন ভারনন ফিলান্ডার।

265385

সংক্ষিপ্ত স্কোরকার্ডঃ

ইংল্যান্ডঃ ৩৫৭/৫ (৮৭ ওভার) জো রুট ১৮৪*, মইন আলি ৬১* বেন স্টোকস ৫৬, গ্যারি ব্যালেন্স ২০। ভারনন ফিলান্ডার ৩/৪৬, মর্নে মরকেল ১/৬৪

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

কিছু বাস্তবতা স্বপ্নকেও হার মানায়

Read Next

কোহলির ব্যাটে চড়ে সিরিজ জিতলো ভারত

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
0
Share