‘এভাবে বসে থাকলে ক্রিকেট ক্যারিয়ার বলে কিছু থাকবে না’

নুরুল হাসান সোহান
Vinkmag ad

করোনা সংকট কাটিয়ে দেশে দেশে ফিরছে ক্রিকেট। কিন্তু দফায় দফায় উদ্যোগ নিয়েও বাস্তবায়নে ব্যর্থ বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। মূলত ক্রিকেটারদের নিয়ে ঝুঁকি না নিতেই যথেষ্ট সাবধানতা অবলম্বন। তবে ক্রিকেটই যাদের রুটি রুজি, চার মাস ধরে তাদের করোনার সাথে আর্থিক টানাপোড়নের লড়াইটাও করতে হচ্ছে।

বিশেষ করে জাতীয় দলের বাইরে ঘরোয়া লিগই আয়ের মূল উৎস শত শত ক্রিকেটারের। আর সে কারণেই এবার মাঠে ফিরতে করোনাকে মানিয়ে নিতে রাজি তারা। ক্রিকেটার্স ওয়েলফেয়ার  অ্যাসোসিয়েশন অফ বাংলাদেশের (কোয়াব) সাথে আজ (৭ জুলাই) আবারও বৈঠকে বসতে যাচ্ছে ক্রিকেটাররা।

দ্রুত মাঠে খেলা ফেরাতে ঈদুল ফিতরের আগেই বোর্ডকে চিঠি দেয় কোয়াব। বোর্ডও নানা পরিকল্পনা সাজাতে থাকে। তবে দেশে করোনা পরিস্থিতি অবনতির দিকে যাওয়াতেই পিছু হটতে হয় দেশের ক্রিকেটের অভিভাবক সংস্থাকে।

এভাবে গৃহবন্দী সময় কাটালে ক্যারিয়ারই হুমকির মুখে পড়তে পারে বলছেন উইকেট রক্ষক ব্যাটসম্যান নুরুল হাসান সোহান। তিনি বলেন, ‘আমরা বৈঠক করবো আমাদের সংগঠন কোয়াবের সঙ্গে। আর ঘরে বসে থাকা এখন আমাদের জন্য কঠিন। তাই যত দ্রুত ফেরা যায় সে নিয়ে আলোচনা হবে।’

‘এখন সময় এসেছে করোনার সঙ্গে মানিয়ে চলার। এখান থেকে বাঁচার পথ আমাদের স্পোর্টসম্যানদের জানা থাকতে হবে। করোনার ভয়ে যদি এভাবে বাসায় বসে থাকি আমাদের ক্রিকেট ক্যারিয়ার বলে আর কিছুই থাকবে না।’

ঘরোয়া লিগের আরেক নিয়মিত মুখ ইলিয়াস সানি করোনাকে এখন আর ভয় পাওয়ার মানেও দেখছেন না। বাঁহাতি এই স্পিনার বলেন, ‘৩ মাস হয়ে গেল আর ঘরে বসে থাকার কোনো উপায় দেখছি না। এতে করে আমাদের ক্রিকেট ক্যারিয়ারই ধ্বংস হয়ে যাবে। করোনাকে আর ভয় পেয়ে লাভ নেই। এখন আমাদের মাঠে ফিরতে হবে।’

‘কারণ, আমাদের রুটিরুজির সব পথ বন্ধ হয়ে আছে। বিশেষ করে ঢাকা প্রিমিয়ার ক্রিকেট লীগের উপর যারা আমরা নির্ভর করে থাকি তারা খুব অসহায় বোধ করছি। লীগ না হলে আমাদের সারা বছরের আয়ের পথটি বন্ধ হয়ে যাবে। তাই এখন আর করোনার ভয় করে লাভ নেই!’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

মুশফিকদের জিম সরঞ্জাম ধার দিচ্ছে বিসিবি

Read Next

স্টনিয়ারের সঙ্গে চুক্তির মেয়াদ বাড়াল বিসিবি

Total
5
Share