যেকারণে ভারতের হেড কোচ হবার প্রস্তাব ফিরিয়ে দেন দ্রাবিড়

রাহুল দ্রাবিড়
Vinkmag ad

ভারতীয় সাবেক তারকা ক্রিকেটার রাহুল দ্রাবিড়েরও সুযোগ এসেছিল ভিরাট কোহলিদের প্রধান কোচ হওয়ার। তবে তার দুই সন্তানকে বাড়তি সময় দেওয়ার ইচ্ছে থেকেই সেটি প্রত্যাখ্যান করেন তিনি।

২০১৭ সালে ভারতীয় অধিনায়ক ভিরাট কোহলির সাথে অভ্যন্তরীণ সমস্যার জের ধরে পদত্যাগ করেন প্রধান কোচ অনিল কুম্বলে। কিংবদন্তী এই স্পিনার সরে যাওয়ার পরই রাহিল দ্রাবিড়কে কোচ হওয়ার প্রস্তাব দেওয়া হয় বোর্ড থেকে। মূলত ততদিনে বয়সভিত্তিক দলগুলোর সাথে কাজ করার অভিজ্ঞতাই এগিয়ে রাখে দ্রাবিড়কে।

তবে পারিবারিক কারণ দেখিয়ে সেটি প্রত্যাখ্যান করেন ‘দ্য ওয়াল’ খ্যাত ভারতের সাবেক অধিনায়ক। দ্রাবিড়ের অনিচ্ছার কথা তুলে ধরে বোর্ডের তখনকার পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান ভিনোদ রায় বলেন, ‘রাহুল আমাদের সাথে সোজাসাপ্টা কথা বলেছে। সে বলল দেখুন আমার দুটো ছেলে বড় হচ্ছে। ভারত জাতীয় দলের কোচ হওয়া মানে বিশ্বজুড়ে ঘুরতে হবে। আমি তাদের সময় দিতে পারবনা তাই সেদিকেই মনযোগ দিচ্ছি। আমি অনুভব করি আমার এখন তাদের সাথে নিবিড় সময় কাটানো প্রয়োজন।’

দ্রাবিড়ের সিদ্ধান্ত যুক্তিসঙ্গত ছিল বলে মনে করেন ভিনোদ রায়, ‘আমি মনে করি এটা খুবই যুক্তিসঙ্গত অনুরোধ ছিল। তার চিন্তাধারা সবসময় উঁচু পর্যায়েরই ছিল। আর সে কারণেই তার মতামতকে সর্বোচ্চ গুরুত্বের সাথে বিবেচনা করা হয়েছিল। দেখুন কোচিংয়ের ক্ষেত্রে দ্রাবিড়, শাস্ত্রী ও কুম্বলে তিনজনই নিখুঁত ছিল।’

দ্রাবিড় প্রস্তাব প্রত্যাখান করলে বর্তমান কোচ রবি শাস্ত্রীর কাঁধেই উঠে দায়িত্ব। তবে যুব দলের সাথে কাজ করে দারুণ সফল হওয়া দ্রাবিড়ের ভালোভাবেই নজর ছিল বোর্ডের। বয়সভিত্তিকে সফল হওয়া সাবেক এই ব্যাটসম্যানকে তাই জাতীয় দলে প্রপ্যোজন ছিল বলে মত তখনকার পরিচালনা পর্ষদ চেয়ারম্যানের।

তিবি যোগ করেন, ‘আমরা ইতিবাচকভাবে রাহুলের সাথে কথা বলেছি। সে ১৯ বছরের কম বয়সী ক্রিকেটারদের সাথে কাজ করেছে। তাদের সাথে বেশ ভালোভাবে মিশতে পেরেছে। সে তাদের বড় পর্যায়ের জন্য তৈরি করার পরিকল্পনা সাজিয়েছিল। অবিশ্বাস্য দারুণ ফলও পাচ্ছিল। যেভাবে ইতিবাচক ফল এসেছিল তাতে ছেলেদের সাথে অসমাপ্ত কাজগুলো শেষ করে যাওয়া দরকার ছিল। তার সেটা করা প্রয়োজন ছিল।’

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

ড্রাফট শেষে যেমন হল সিপিএলের ‘৬’ দল

Read Next

মুশফিকদের জিম সরঞ্জাম ধার দিচ্ছে বিসিবি

Total
4
Share