স্পন্সর খুঁজতে খুঁজতে হয়রান পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড

পাকিস্তান
Vinkmag ad

করোনা ভাইরাস প্রভাবে ক্রিকেট বোর্ডগুলো বড় ধরণের আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছে তা বলার অপেক্ষা রাখেনা। পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়ায় বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) তো টাইটেল স্পন্সর, সম্প্রচার সত্ব কোন কিছু নিয়েই এগোতে পারছেনা।

এদিকে টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলতে ইতোমধ্যে ইংল্যান্ড পৌঁছে গেলেও পাকিস্তান দলের স্পন্সর এখনো চূড়ান্ত হয়নি। মাত্র একটি প্রতিষ্ঠান আগ্রহ দেখানোয় পুরো প্রক্রিয়াটিই কঠিন হয়ে পড়েছে।

করোনা পরবর্তী মাঠে ক্রিকেট ফিরলেও সেটা যে সহসায় স্বাভাবিক অবস্থায় থাকবেনা আগেই জানা। প্রচলিত নিয়মে পরিবর্তনের সাথে বেশিরভাগ ম্যাচই ‘ক্লোজ ডোর’ হবে। ফলে বানিজ্যিকভাবে বোর্ডগুলোর খুব বেশি স্পন্সর পাওয়ার সম্ভাবনা ক্ষীণই বলা যায়। কিন্তু দলের মূল স্পন্সর নিয়ে ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি) কে।

পিসিবির সাথে স্পন্সর হিসেবে সবশেষ চুক্তিবদ্ধ ছিল একটি বেভারেজ কোম্পানি। বেশ কিছুদিন আগেই চুক্তির মেয়াদ শেষ হলেও নতুন কোন স্পন্সর পায়নি পিসিবি। সেক্ষেত্রে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজ শুরুর আগেও তাই দুশ্চিন্তায় পড়েছে তারা। যে কারণে ইংল্যান্ডে অনুশীলন করা বাবর আজম, আজহার আলিদের জার্সিতে নেই কোন বানিজ্যিক লোগো।

সবচেয়ে আশ্চর্যের ব্যাপার একমাত্র যে কোম্পানিটি আগ্রহ প্রকাশ করেছে তারাও আগের চুক্তির তুলনায় অনেক কম মূল্য দিতে চায়। আগের চুক্তির তুলনায় যা ৩০ শতাংশের বেশি নয়। পিসিবির বিপণন বিভাগ অবশ্য বুঝতে পারছে করোনা ভাইরাস প্রভাবেই স্পন্সর হতে অনাগ্রহ কোম্পানিগুলোর। যদিও বোর্ড ঘরোয়া ক্রিকেট কাঠামোর মাধ্যমে প্রতিষ্ঠানগুলোকে আকৃষ্ট করতে ব্যর্থ হয়েছে বলে ধারণা অনেকের।

পিসিবি অবশ্য আশাবাদী ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজ শুরুর আগেই চূড়ান্ত হবে তাদের নতুন স্পন্সর। ইংলিশদের বিপক্ষে সমান তিনটি করে টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলবে পাকিস্তান। আগামী ৩০ জুলাই প্রথম টেস্ট দিয়ে সিরিজটি মাঠে গড়ানোর কথা রয়েছে।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

‘সিএ’ ও ‘এসিএ’ এর মধ্যে সমঝোতা

Read Next

করোনা টেস্টে আরেক দফা পজিটিভ মাশরাফি

Total
33
Share