সিদ্ধান্তে পৌঁছেছে লঙ্কান ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের বিশেষ তদন্ত কমিটি

অরবিন্দ ডি সিলভা উপুল থারাঙ্গা কুমার সাঙ্গাকারা মাহেলা জয়াবর্ধনে
Vinkmag ad

অবশেষে ২০১১ বিশ্বকাপ বিক্রির অভিযোগে গঠিত বিশেষ তদন্ত কমিটি সংশ্লিষ্টদের বিবৃতি গ্রহণ সমাপ্ত ঘোষণা করেছে। অরবিন্দ ডি সিলভা, উপুল থারাঙ্গা ও কুমার সাঙ্গাকারা ছাড়াও অভিযোগকারী সাবেক ক্রীড়া মন্ত্রী মাহিন্দানান্দা আলুথগামাগকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। যদিও মাহেলা জয়াবর্ধনেকে ডেকে এনেও ফেরত পাঠানো হয় কোন ধরণের জিজ্ঞাসাবাদ ছাড়াই।

তবে আজ (৩ জুলাই) দেওয়া এক বিবৃতিতে প্রধান তদন্ত কর্মকর্তা জানিয়েছেন তদন্ত কার্যক্রম শেষ হয়েছে। তিনজন ক্রিকেটারকে জিজ্ঞাসাবাদের পর তারা সিদ্ধান্তে পৌঁছেছেন যে মাহিন্দানান্দা আলুথগামাগের তোলা অভিযোগ প্রমাণিত হয়না।

এ প্রসঙ্গে লঙ্কান গণমাধ্যম লঙ্কাদ্বীপ কে প্রধান তদন্ত কর্মকর্তা জগাথ ফোনসেকা বলেন, ‘তিনটি বিবৃতি (সিলভা, সাঙ্গাকারা ও থারাঙ্গার) রেকর্ড করা হয়েছিল। যা থেকে স্পষ্ট হওয়া যায় সাবেক ক্রীড়ামন্ত্রী মাহিন্দানান্দা আলুথগামাগের তোলা অভিযোগ সত্য বলার মত কোন প্রমাণ নেই। আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিলও (আইসিসি) এই অভিযোগটির বিষয়ে কোন সাড়া দেয়নি। এমনকি এটির কোন তদন্তও শুরু করেনি।’

আজ (৩ জুলাই) মাহেলা জয়াবর্ধনেকে ডাকার দিনেই নিজেদের মধ্যে আলোচনা করে এমন সিদ্ধান্তে আসে তদন্ত কমিটি। আর এ কারণেই সাবেক এই ব্যাটসম্যানকে বাড়তি কোন ঝামেলায় না জড়াতে জিজ্ঞাসাবাদ না করেই ফিরিয়ে দেওয়া হয়। তদন্ত কার্যক্রম সম্পন্নের একটি প্রতিবেদন লঙ্কান ক্রীড়া মন্ত্রণালয়েও জমা দিবেন তারা।

গত ১৮ জুন ২০১১ বিশ্বকাপের সময়কার ক্রীড়ামন্ত্রী মাহিন্দানান্দা আলুথগামাগে অভিযোগ করেন ইচ্ছে করেই ফাইনাল হেরেছে শ্রীলঙ্কা। ভারতের বিপক্ষে ওই ম্যাচে সেঞ্চুরি করা মাহেলা জয়াবর্ধনে ও অধিনায়ক কুমার সাঙ্গাকারা দুজনেই সাথে সাথে উড়িয়ে দেন অভিযোগ।

কিন্তু বিষয়টিকে হালকা ভাবে না নিয়ে বিশেষ তদন্ত কমিটি গঠন করে লঙ্কান ক্রীড়া মন্ত্রণালয়। তারই প্রেক্ষিতে তখনকার প্রধান নির্বাচক অরবিন্দ ডি সিলভাকে জিজ্ঞাসাবাদ করে গোয়েন্দারা। সাবেক এই তারকা ক্রিকেটারের ৬ ঘন্টা ধরে দেওয়া বিবৃতির উপর ভিত্তি করেই ডাকা হয় ঐ ম্যাচের ওপেনার উপুল থারাঙ্গাকে। পরদিন তাকেও প্রায় ২ ঘন্টা জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। গত সপ্তাহে অভিযোগকারী মাহিন্দানান্দা আলুথগামাগের বিবৃতিও রেকর্ড করে পুলিশ।

এরপর গতকাল (২ জুলাই) প্রায় ১০ ঘন্টা ধরে জেরা করা হয় ঐ ম্যাচের অধিনায়ক কুমার সাঙ্গাকারাকে। ক্রিকেটের প্রতি দায়িত্ব ও সম্মানের জায়গা থেকে বিবৃতি দিতে এসেছেন বলে জানান লঙ্কান এই তারকা।

এরপরই জানা যায় আজ (৩ জুলাই) এই ইস্যুতে কথা বলতে ডাকা হয়েছে ২০১১ বিশ্বকাপে সাঙ্গাকারার ডেপুটি জয়াবর্ধনেকে। যথাসময়ে হাজির হলেও জিজ্ঞাসাবাদ স্থগিত হয়েছে বলে জানানো হয় তদন্ত কমিটির তরফ থেকে।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে প্রস্তুতি ম্যাচে হোল্ডারদের প্রাপ্তি-অপ্রাপ্তি

Read Next

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ নিয়ে ভীত মাইক হাসি

Total
26
Share