ফিল সিমন্সকে বরখাস্তের দাবি ক্যারিবীয় বোর্ডকর্তার

ফিল সিমন্স
Vinkmag ad

শশুরের শেষকৃত্যে হাজির হয়ে দুইবার করোনা নেগেটিভ হওয়ার পরও আইসোলেশনে থাকতে হয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ প্রধান কোচ ফিল সিমন্সকে। ৮ জুলাই সাউদাম্পটনে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম টেস্ট মাঠে গড়াবে ক্যারিবিয়ানদের। তবে তার আগেই সিমন্সকে কোচের পদ থেকে সরিয়ে দেওয়ার দাবি ক্রিকেট ওয়েস্ট ইন্ডিজ বোর্ডের এক কর্মকর্তার।

দলের সাথে থাকাকালীন শেষকৃত্যে যোগ দেওয়াকে বেপরোয়া হিসেবেও উল্লেখ করা হয়েছে। তার প্রেক্ষিতেই সিমন্সকে সরিয়ে দেওয়ার দাবি ক্রিকেট ওয়েস্ট ইন্ডিজের বোর্ড সদস্য কনডি রিলের। যিনি বার্বাডোস ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের (বিসিএ) প্রধান হিসেবেও দায়িত্ব পালন করছেন।

যদিও ক্রিকেট ওয়েস্ট ইন্ডিজের অনুমতি সাপেক্ষেই শশুরের শেষকৃত্যে যোগ দেন সাবেক ওয়েস্ট ইন্ডিজ অলরাউন্ডার সিমন্স। ফিরে এসে নিজেকে আলাদা রেখে পালন করছেন কোয়ারেন্টাইনও।

ইএসপিএনক্রিকইনফকে কনডি রিলে বলেন, ‘আমাকে প্রভাবশালী কর্তা ও বার্বাডোস ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের সদস্যদের কাছ থেকে নানা কথা শুনতে হচ্ছে। এমন আচরণ (ফিল সিমন্সের) বেআইনী ও বেপরোয়া। এটা ইংল্যান্ডে অবস্থানরত ২৫ জন ক্রিকেটার তথা পুরো টিম ম্যানেজমেন্টকেই হুমকিতে ফেলেছে।’

‘এসব সহ্য করা যায়না। ইংলিশ গণমাধ্যমগুলো তার বিচার নিয়ে কথা বলবে এবং আমি প্রস্তাব দেই যেন দ্রুত পদক্ষেপ নিই। ঘটনা সত্য হলে তাকে কোচ পদ থেকে সরে দাঁড়ানোর আহ্বান করছি।’

ওয়েস্ট ইন্ডিজের স্কোয়াডে ১৪ সদস্যের ৯ জনই বার্বাডোসের। এ কারণেই বাড়তি উদ্বেগ কাজ করছে কনডি রিলের। কিন্তু ক্রিকেট ওয়েস্ট ইন্ডিজ স্পষ্ট জানিয়েছে তারাই অনুমতি দিয়েছে সিমন্সকে।

এক বিবৃতিতে ক্রিকেট ওয়েস্ট ইন্ডিজ জানায়, ‘বায়ো সুরক্ষিত স্থান থেকে তার নির্দিষ্ট সময়ের জন্য চলে যাওয়ার বিষয়টি ক্রিকেট ওয়েস্ট ইন্ডিজের মেডিকেল টিম এবং ইংল্যান্ড ও ক্রিকেট বোর্ড (ইসিবি) কর্তৃক অনুমোদিত ছিল। আর সে ফিরে এসেও নির্ধারিত নিয়ম কানুনের মধ্যেই অবস্থান করছে।’

‘সে ফিরে এসে আইসোলেশনে আছে। আর এভাবেই পরিকল্পনা করা হয়েছিল। এখনো পর্যন্ত দুটি কোভিড-১৯ পরীক্ষা করা হয় তার। দুটোই নেগেটিভ এসেছে। এমনকি সিরিজে দলের সাথে যোগ দেওয়ার আগে তার আরও একটি পরীক্ষা করা হবে।’

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

আইসিসি চেয়ারম্যানের পদ থেকে সরে দাঁড়ালেন শশাঙ্ক মনোহর

Read Next

শানাকা ঝড়ে ম্লান চান্দিমাল-পেরেরার বীরত্ব

Total
5
Share