মিসবাহর ২০০৭ এর দুঃখ ২০০৯ এ ভোলাতে চেয়েছিলেন ইউনুস খান

মিসবাহ উল হক ইউনুস খান
Vinkmag ad

২০০৯ সালের ২১ জুন লর্ডসে শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে আইসিসি টি-টোয়েন্টির শিরোপা জিতেছিল পাকিস্তান। শহীদ আফ্রিদির অলরাউন্ড নৈপুণ্যে ৮ বল ও ৮ উইকেট হাতে রেখেই জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় পাকিস্তান। ব্যাট হাতে নামাই লাগেনি মিসবাহ উল হক, ইউনুস খানদের।

২০০৭ আইসিসি ওয়ার্ল্ড টি-টোয়েন্টির ফাইনালে তীরে এসে তরী ডুবিয়েছিল পাকিস্তান। চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারতের বিপক্ষে ৫ রানে হারা ম্যাচে শেষ ব্যাটসম্যান হিসাবে আউট হয়েছিলেন মিসবাহ উল হক। ৩৮ বলে ৪৩ রান করা মিসবাহই পাকিস্তানকে জয়ের আশা দেখিয়েছিলেন, তবে শেষমেশ তা বাস্তবে ধরা দেয়নি।

২০০৭ সালে মিসবাহর সেই দুঃখ ২০০৯ সালে ভোলাতে চেয়েছিলেন অধিনায়ক ইউনুস খান। টি-টোয়েন্টির শিরোপা জেতার ১১ বছর পূর্তিতে এমনটাই জানান মিসবাহ।

পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি) এর ইউটিউবে মিসবাহ বলেন, ‘যখন আমরা জিতে যাব যাব করছি, ইউনুস আমার কাছে এসে আমাকে প্যাড পরে প্রস্তুত থাকতে বলে। কারণ সে জানত শেষ টুর্নামেন্টের সেই পরাজয় আমার মনে এখনো আছে। সে চেয়েছিল আমি খেলাটা শেষ করে পাকিস্তানকে এযাত্রায় শিরোপা জয়ের আনন্দে ভাসাই।’

এছাড়া টুইটারে টি-টোয়েন্টির বিশ্ব আসর জেতার স্মৃতি রোমন্থন করেন মোহাম্মদ আমির, আহমেদ শেহজাদরা।

বল হাতে ৪ ওভারে ২০ রান খরচে ১ উইকেট নেবার পর ম্যান অব দ্য ফাইনাল শহীদ আফ্রিদি ব্যাট হাতে ৪০ বলে অপরাজিত ৫৪ রানের ইনিংস খেলেছিলেন সেদিন। ২ টি করে চার ও ছক্কা হাঁকিয়েছিলেন।

ক্রিকইনফো সেই ম্যাচের ভিডিও পোস্ট করে। সেটা রিটুইট করে অ্যারন ফিঞ্চ লেখেন ‘সুইং এ বিট হার্ডার আফ্রিদি;!’

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

‘আমি আর গেইল কান্না আটকানোর চেষ্টা করছিলাম’

Read Next

রাজনীতির শিকার হয়ে আর বেঙ্গলের হয়ে খেলবেন না ডিন্ডা

Total
5
Share